সাম্প্রতিক পোস্ট

মমেনা বেওয়ার সবজি চাষ ও হাঁস মুরগির পালন

রাজশাহী থেকে সুলতানা খাতুন

মমেনা বেওয়া বিলনেপাল পাড়া নারী সংগঠনের সদস্য তার বাড়ির চারপাশে লাগিয়েছেন বিভিন্ন ধরনের শাকসবজি ও ফল-মূলের গাছ। তাঁর স্বামী না থাকায় তিনি নিজেই পরিবারের প্রধান। তিনি তার কাজের মাধ্যমে তাঁর পরিবারকে সচল রেখেছেন। তবে স্বামী মারা যাবার পরে সংসারকে সচল রাখতে অনেক কষ্ট করতে হয়েছে তাকে।

মমেনার পরিবারের সদস্য সংখ্যা ৩ জন। তিনি নিজে হাঁস, মুরগি, গরু, ছাগল পালন করেন। এর পাশাপাশি বাড়ির আনাচে কানাচে মিষ্টি কুমড়া, সিম, পুঁই শাক, লাউ, তরই বিভিন্ন ধরনের সবজির চাষ করেন। তাঁর বাড়িতে ১৫ রকম ফলের গাছ রয়েছে। মহামারী করোনাকালিন সময়ে সবজি চাষ, হাঁস মুরগি, গরু, ছাগল পালন করে জীবিকা নির্বাহ করেন। তিনি বলেন, ‘প্রতিবছর আমি ৩০ থেকে ৩৫ হাজার আয় করি ছাগল, হাঁস এবং শাকসবজি বিক্রি করে।’ মমেনা বেওয়ার এরকম উদ্যোগ দেখে গ্রামের অন্য নারীরাও উৎসাহিত হন।

বাংলাদেশের বিভিন্ন এলাকায় মমেনার মতো আরও অনেক নারী রয়েছেন যারা স্থায়িত্বশীল কৃষি চর্চা করে যেমন জীবিকা নির্বাহ করেন, সংসারের হাল ধরেন এবং স্থায়িত্বশীল কৃষি চর্চা করে তাঁরা পরিবেশও সুরক্ষা করছেন।

happy wheels 2
%d bloggers like this: