সাম্প্রতিক পোস্ট

একুশের চেতনায় আল্পনা, অসাম্প্রদায়িক দেশ গড়ার প্রত্যয়

মানিকগঞ্জ থেকে এম.আর.লিটন:

বাংলা আমার প্রাণের ভাষা/ বাংলা আমার নতুন আশা,/ বাংলা আমার মায়ের মুখ/ বাংলা আমার অমোঘ সুখ।’ এই বাংলা ভাষার জন্য ১৯৫২ সালে ২১ ফেব্রুয়ারি এদেশের দামাল ছেলেরা বুকের রক্ত দিয়ে ঢাকায় রাজপথ রঞ্জিত করেছিলো, ভাষার জন্য সেইদিন শহিদ হয়েছিলেন, রফিক , বরকত, জব্বার, সালাম ও শফিউর । তাদের আত্মত্যাগের বিনিময়ে আমরা পেয়েছি মাতৃভাষা বাংলা ।

IMG_20190220_232815

তৎকালীন পাকিস্তানের কেন্দ্রীয় সরকার বাংলাভাষী মানুষের গণআন্দোলনের মুখে বাধ্য হয়ে ১৯৫৬ সালে সংবিধান পরিবর্তনের মাধ্যমে বাংলা ভাষাকে রাষ্ট্রভাষার স্বীকৃতি প্রদান করে। ১৯৯৯ সালে ইউনেস্কো বাংলা ভাষার প্রতি সম্মান জানিয়ে ২১ ফেব্রুয়ারিকে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে ঘোষণা করে । যা এখন গভীর শ্রদ্ধা ও যথাযোগ্য মর্যাদার সাথে বাংলাদেশসহ বিভিন্ন দেশে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে উদযাপন করা হয়।

IMG_20190221_063317

আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশ উদীচী শিল্পিগোষ্ঠীর উদ্যোগে ২০ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যায়, মানিকগঞ্জ শহরে শহিদ রফিক চত্ত্বরে আয়োজন করা হয় আল্পনা উৎসবের । শহরের বিভন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও রাজনৈতিক সংগঠনের অংশগ্রহণে আল্পনা উৎসবে মানুষের ঢল নামে । সন্ধ্যা থেকে রাত ১২টা  পর্যন্ত শহিদ রফিক চত্ত্বরসহ সড়কে বিভিন্ন স্থানে আলপনা করা হয়। আল্পনা চলাকালীন সময়ে শহিদ রফিক মুক্তমঞ্চে চলতে থকে গণসংগীত, আবৃত্তি, আলোচনা ।

আল্পনা উৎসবে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক এস.এম ফেরদৌস, উদ্বোধন করেন জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীরমুক্তিযোদ্ধা গোলাম মহীউদ্দীন, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, পৌরসভার মেয়র বীরমুক্তিযোদ্ধা গাজী কামরুল হুদা সেলিম, জাসদের সহ-সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা ইকবাল হোসেন খান, সিপিবি’র কেন্দ্রীয় সদস্য বীরমুক্তিযোদ্ধা এ্যাড. আজহারুল ইসলাম আরজু ও  উদীচীর সাবেক সভাপতি এ্যাড. দীপক কুমার ঘোষ প্রমুখ।

52457278_2251748568436411_2524915628691685376_n

আল্পনা উৎসবে সভাপতিত্ব করেন উদীচীর জেলা সভাপতি কাজী লুৎফর রহমান শিউলী, সঞ্চালনা করেন সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান মামুন ।

আল্পনা উৎসবের মধ্য দিয়ে ভাষা শহিদদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদমুক্ত অসাম্প্রদায়িক দেশ গড়ার প্রত্যয় গ্রহণ করেন উপস্থিত সবাই ।

এছাড়াও উদীচীর জেলা সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান মামুন বলেন, আমাদের ভাষা ও সাংস্কৃতির লড়াইয়ের গৌরবময় জয়যাত্রা এবং একুশের চেতনাকে নতুন প্রজন্মর কাছে তুলে ধরতে আমাদের এই আল্পনা উৎসবের আয়োজন ।

 

 

happy wheels 2

Comments

%d bloggers like this: