সাম্প্রতিক পোস্ট

করোনাকালীন সময়ে প্রতিবন্ধিদের প্রতি পরিবার, সমাজ ও রাষ্ট্রের ভূমিকা

নেত্রকোনা থেকে রুখসানা রুমী:
নেত্রকোনা সম্মিলিত যুব সমাজের আয়োজনে এবং বারসিক’র সার্বিক সহযোগিতায় বৈশ্বিক দুর্যোগ করোনাকালীন সংকটে গত জুলাই নেত্রকোনা কর্মএলাকার ‘প্রতিবন্ধি ব্যক্তিদের নিরাপত্তায় পরিবার, সমাজ ও রাষ্ট্রের করণীয়’ শীর্ষক এক অনলাইন মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
অনলাইন মতবিনিময়ে নেত্রকোনা জেলা প্রতিবন্ধি কল্যাণ ও সাহায্য কেন্দ্র’র কর্মকর্তা সঞ্জীব চক্রবর্তী, রাজুরবাজার কলেজিয়েট স্কুলের অধ্যক্ষ প্রতিবন্ধি বিষয়ক লেখক গোলাম মোস্তফা, নেত্রকোনা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক শ্যামলেন্দু পাল, সাংবাদিক আলপনা বেগম, প্রতিবন্ধি বিষয়ক প্রশিক্ষক এনজিও প্রতিনিধি শিল্পী বিশ্বাস, বারসিক নেত্রকোনা অঞ্চলের পরিচালক সৈয়দ আলী বিশ্বাস, রাজশাহী, সাতক্ষীরা, মানিকগঞ্জ ও নেত্রকোনার অঞ্চলের আঞ্চলিক সমন্বয়কারীগণ ও বারসিক নেত্রকোনার কর্মীবৃন্দ এবং নেত্রকোনার বিভিন্ন যুব সংগঠনের সদস্য ও প্রতিবন্ধি সংগঠনের প্রতিবন্ধি প্রতিনিধিরাসহ ১৪জন অংশগ্রহণ করেন। অংশগ্রহণকারী যুব প্রতিনিধিরা ও বারসিক’র কর্মীগণ মাঠ পর্যায়ে করোনাকালীন সময়ে প্রতিবন্ধি ব্যক্তির সার্বিক অবস্থা, প্রতিবন্ধি ব্যক্তিদের শারীরিক ও মানসিক সমস্যা তুলে ধরেন।
জেলা প্রতিবন্ধি কল্যাণ ও সাহায্য কেন্দ্র’র জেলা কর্মকর্তা সঞ্জিব চক্রবর্তী করোনাকালীন সময়ে প্রতিবন্ধি ব্যক্তিদের জন্য তাঁর প্রতিষ্ঠানের বিভিন্ন সেবাসমূহ তুলে ধরেন। তিনি বলেন, ‘প্রতিবন্ধি ব্যক্তিদের জন্য আমার প্রতিষ্ঠান জেলা প্রতিবন্ধি কল্যাণ ও সাহায্য কেন্দ্রে বিভিন্ন ধরণের চিকিৎসার সেবা, উপকরণ সহযোগিতার ব্যবস্থা রয়েছে। যুব প্রতিনিধি ও বারসিক’র স্টাফগণ মাঠ পর্যায়ে প্রতিবন্ধি ব্যক্তি কেন্দ্রিক যেসব সমস্যা আপনারা মনে করবেন, সেগুলো আমাদের জানাবেন এবং আমাদের প্রতিষ্ঠানে পৌছানোর ব্যবস্থা করবেন, আমরা সমস্যাগুলোর সমাধান দিতে চেষ্টা করবো। শুধু আমাদেরকে যথা সময়ে জানালেই হবে।’

জেলা প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক বাবু শ্যামুলেন্দু পাল বলেন, ‘প্রতিবন্ধি ব্যক্তিদের সমস্যা নিয়ে আমাদের শুধু সভা করলেই হবে না, প্রতিবন্ধিদের প্রতি আমাদের সকলেল দৃষ্টিভঙ্গির পরিবর্তন আনতে হবে। আমি ত্রিশ বছর ধরে প্রতিবন্ধিদের নিয়ে কাজ করি। আমাদেরকে প্রতিবন্ধি ব্যক্তিদের অধিকার সম্বলিত একটা সুপারিশমালা তৈরি করে আমাদের সমাজকল্যাণ মন্ত্রীর নিকট তুলে ধরতে হবে। বারসিক, সম্মিলিত যুব সমাজ সাথে থাকলে আমরা প্রতিবন্ধিদের নিয়ে আরো সামনে এগিযে যেতে পারবো।’ তিনি সকল ধরণের প্রতিবন্ধি ব্যক্তিদেরকে মর্যাদা ও সম্মানের সাথে দেখার আহবান জানান।
প্রতিবন্ধি বিষয়ক লেখক ও রাজুরবাজার কলেজিয়েট স্কুলের অধ্যক্ষ গোলাম মোস্তফা বলেন, ‘আমরা হাসপাতালে প্রতিবন্ধিদের জন্য আলাদা ওয়ার্ড, প্রশিক্ষিত ডাক্তার ও নার্স চাইতে পারি। আমরা সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী মহোদয়ের নিকট দাবি করে নেত্রকোনার হাসপাতালে প্রথম প্রতিবন্ধিদের জন্য পৃথক ওয়ার্ড চালু করতে পারি। আমি প্রতিবন্ধি ব্যক্তিদের জন্য ক্লাশের জন্য লেকচার সিট তৈরি করছি, এটি আপনারা বারসিক’র কর্মীরা ও যুবরা প্রচারের ব্যবস্থা করবেন।
তিনি নেত্রকোনা অঞ্চলের প্রতিবন্ধি ব্যক্তিদের সমস্যার কথা, চিকিৎসা ও পূর্নবাসনে সহায়তার কথা সম্বলিত একটি গ্রহণযোগ্য নীতিমালা তৈরির জন্য বারসিককে সাথে নিয়ে মন্ত্রীর সাথে আলোচনার প্রস্তাব করেন। বিভিন্ন প্রচার প্রচারণা কাজে লাগাতে হবে সাধারণ সম্পাদক শ্যামুর্লেদু পালকে
জেলা প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক বাবু শ্যামুলেন্দু পাল সবাইকে ধন্যবাদ জানাইয়ে সভা শেষ করেন।

happy wheels 2
%d bloggers like this: