সাম্প্রতিক পোস্ট

পরিচ্ছন্ন পরিবেশই সুস্থ থাকার হাতিয়ার

ঢাকা থেকে ফেরদৌস আহমেদ উজ্জল

পরিচ্ছন্ন পরিবেশেই মানুষ সুস্থ থাকতে পারে। পরিচ্ছন্ন থাকার জন্য নিজেদের সচেতন হওয়ারও বিকল্প নেই বলে অভিমত ব্যক্ত করেছেন পরিবেশ বাঁচাও আন্দোলন (পবা) ও বারসিক আয়োজিত পরিচ্ছন্নতা সমাবেশে বক্তারা। গতকাল (২৮ জানুয়ারি) মোহাম্মদপুরের পাইওনিয়ার হাউজিং (সোনামিয়ার টেক) বস্তিতে এ পরিচ্ছন্নতা সমাবেশটি অনুষ্ঠিত হয়। বস্তিবাসী নেতা আসমা বেগমের সভাপতিত্বে সমাবেশে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পরিবেশ আন্দোলনের নেতা পবা’র চেয়ারম্যান আবু নাসের খান, বিশিষ্ট চিকিৎসক ও পরিবেশ আন্দোলন নেতা ডা. লেলিন চৌধুরী, বস্তিবাসী অধিকার সুরক্ষা কমিটির সভাপ্রধান রাফেজা বেগম, বারসিক এর সহযোগী সমন্বয়ক মো: জাহাঙ্গীর আলম, সুদিপ্তা কর্মকার প্রমূখ। সমাবেশটি সঞ্চালনা করেন বারসিক’র সহযোগী প্রকল্প সমন্বয়ক ফেরদৌস আহমেদ উজ্জল।

1 (7)
সমাবেশে আবু নাসের খান বলেন, ‘সুস্থভাবে ও ভালোভাবে বাঁচার জন্য প্রয়োজন পরিকল্পিত জীবন। আপনারা যদি আপনাদের জীবনটা পরিকল্পিতভাবে গড়ে তুলেন, যদি চারপাশ পরিচ্ছন্ন রাখেন, যদি আয় বুঝে ব্যয় করেন, যদি পরিবেশ সচেতন হতে পারেন তবে আপনাদের জীবনটাও ভালো থাকবে।’ তিনি আরো বলেন, ‘নিজেরা সিদ্ধান্ত নিয়ে যদি আপনারা আপনাদের বস্তিতে পরিস্কার ও বাসযোগ্য করতে পারেন, আপনাদের ছেলে মেয়েদের যদি স্কুলে পাঠান তবে সরকারও তার জায়গা থেকে আরো এগিয়ে আসবে।’

2 (3)
ডা. লেলিন চৌধুরী তার বক্তব্যে বলেন, ‘আপনাদের সুস্থ থাকার জন্য সবচেয়ে প্রথম প্রয়োজন নিজেদের পরিস্কার পরিচ্ছন্ন থাকা, পায়খানার পর হাত ধোয়া, গোসল করা, দাঁত পরিস্কার করা এবং আপনাদের চারপাশের ড্রেন ও আবর্জনা পরিস্কার পরিচ্ছন্ন রাখা।’ তিনি আরো বলেন, ‘পানি থেকে সবচেয়ে বেশি রোগ জীবাণু ছড়ায়। তাই নিরাপদ পানি পান করাটা খুবই দরকার। বস্তি এলাকাকে পরিস্কার পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য তরুণ ও যুবরা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারে।’ তিনি সকলকে একত্রিত হয়ে পরিচ্ছন্নতা অভিযান চালানোর জন্য আহবান জানান।

4 (2)
বস্তিবাসী নেত্রী রাফেজা বেগম বলেন, ‘আমরা বস্তিবাসীরা খুব কষ্টে দিনপাত করি। আমরা যদি আমাদের কষ্ট বুঝে থাকি তবে আমাদের নিজেদের সংগঠিত হতে হবে। সংগঠিত শক্তি ছাড়া কেউ কোন দাবি আদায় করতে পারে না।
বারসিক প্রতিনিধি মো. জাহাঙ্গীর আলম বলেন, ‘বস্তিবাসীদের জন্য বারসিক আগামীতেও নানান ধরণের কার্যক্রম হাতে নিতে যাচ্ছে। আর এজন্য প্রয়োজন সকলের সহযোগিতা। বস্তিবাসীদের সহযোগিতা পেলে আমরা তাদের জীবনমান উন্নয়নে সরকারের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সাথে সংযোগ তৈরিতে ভূমিকা রাখতে পারবো।’

উল্লেখ্য পরিচ্ছন্নতা সমাবেশে পরিবেশ রক্ষা ও সুস্থ থাকার উপায় নিয়ে একটি লিফলেট বস্তিবাসীদের মধ্যে বিতরণ করা হয়। প্রায় ১৫০ জন বস্তিবাসী নারী, পুরুষ, বৃদ্ধ, কিশোর কিশোরী , যুবক এই সমাবেশে অংশ গ্রহণ করে। সমাবেশ থেকে বস্তিবাসীরা বস্তিতে একটি ড্রেনেজ ব্যবস্থার প্রস্তাবনা তুলে ধরেন এবং আলোচকরা এ বিষয়টি নিয়ে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের সাথে আলোচনা করার আশ^াস প্রদান করেন।

happy wheels 2

Comments

%d bloggers like this: