সাম্প্রতিক পোস্ট

করোনায় হৃদয় কেন্দুয়া যুব সংগঠনের উদ্যোগ

নেত্রকোনা থেকে রুখসানা রুমী

যুব সমাজই আগামী দিনের ভবিষ্যত। এ দেশ, দেশের শিক্ষা ও বৈচিত্র্যময় সংস্কৃতিকে ধারণ ও লালন করে সমৃদ্ধশালী করে তুলবে আমাদের যুব প্রজন্ম। তারই ধারাবাহিকতায় হৃদয় কেন্দুয়া যুব সংগঠন নামের সংগঠনটির সদস্যরা সবাই মিলে করোনার পরিস্থিতি মোকাবেলায় গত ২ মাসে ৫০ হাজার টাকা সংগ্রহ করে এলাকার অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন।

তাদের সংগৃহীত টাকা দিয়ে নেত্রকোনার আশুজিয়া ইউনিয়নের ১০টি গ্রামে ৫০০ পরিবারের অসহায় মানুষ, প্রবীণ, প্রতিবন্ধী, রিক্সাচালক, ভ্যানচালক, অটোচালক ও দিনমুজরী করে এমন মানুষের হাতে ৫ কেজি চাল, এক কেজি ডাল, এক লিটার তেল, ৩ কেজি আলু এবং এক কেজি পেঁয়াজ ত্রাণ হিসেবে তুলে দিয়েছেন। যুবকরা বাড়ি বাড়ি গিয়ে এসব খাদ্যসামগ্রী মানুষের কাছে পৌছে দিয়েছে। এছাড়া তারা ২০০টি পরিবারের ৪০০ জন মানুষকে সাবান ও মাস্ক সহযোগিতা করেছে।

অন্যদিকে ঈদ উৎসবে এই যুবকরাই ২০০টি পরিবারে চিনি, সেমাই, সাবান বিতরণ করেছেন। দরিদ্র শিশুদের মধ্যে তারা নতুন পোশাক তুলে দিয়েছেন। যুব সংগঠনের এই সদস্যরা আশুজিয়া বাজার, পাড়াদূর্গাপুর, বসুরবাজার, রেন্টিতলাবাজার, আমতলা বাজার স্থানান্তরে বিশেষ ভূমিকা পালন করেছে। বাজারে সবাই মাস্ক পড়া, বাইরে গেলে মাস্ক পড়া নিশ্চিত করেছে। তারা শুধুমাত্র ত্রাণ দিয়েই ক্ষান্ত হয়নি বরং নানান জনসচেতনতামূলক প্রচার-প্রচারণা ও আলোচনা আয়োজন করেছে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে। তারা মসজিদে ও বাজারে জীবানুনাশক স্প্রে করেছে, সবাইকে হ্যান্ড স্যানিটাজার দিয়ে সহযোগিতা করেছে। তাদের এই উদ্যোগগুলো এলাকায় ব্যাপক সাড়া ফেলেছে।

উল্লেখ যে, নেত্রকোনা জেলার কেন্দুয়া উপজেলার আশুজিয়া ইউনিয়ন ও বলাইশিমুল ইউনিয়নের ৩০টি গ্রামের ২জন করে যুবক মিলে গড়ে তুলে ‘হৃদয় কেন্দুয়া যুব সংগঠন’ যার সদস্য সংখ্যা প্রায় ৬০ জন। এ সংগঠনের সদস্যরা বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকুরি করছে, কেউবা সেনাবাহিনীতে, কেউবা পুলিশে কেউবা স্কুলেও কাজ করছেন। তারা জানান, এই সংগঠন করার উদ্দেশ্য হচ্ছে, নিজ গ্রাম, জেলা ও দেশকে জানা, শিক্ষা ও নিজস্ব সংস্কৃতিকে জানা এবং নিজেকে জানার জন্য। এছাড়া দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ করে যুব সমাজকে মাদকমুক্ত রাখা, বাল্যবিয়েমুক্ত, নারীনির্যাতন বন্ধে কাজ করা এবং নির্মল সাংস্কৃতিক চর্চার পরিবেশ তৈরি করার জন্য।

happy wheels 2

Comments

%d bloggers like this: