সাম্প্রতিক পোস্ট

ডিজিটাল ট্রাফিক সিগন্যাল স্থাপনের দাবি রাজশাহীর তরুণদের

রাজশাহী থেকে আতিকুর রহমান আতিক

সড়ক দুর্ঘটনারোধ এবং সড়কে শৃঙ্খলা ফেরানো ও নিরাপদ চলাচল নিশ্চিতকরণে অবিলম্বে রাজশাহীসহ দেশব্যাপী সকল সড়কে ডিজিটাল ট্রাফিক সিগন্যাল স্থাপন ও কার্যকর করাসহ ৮ (আট) দফা দাবি জানিয়েছেন রাজশাহীর তরুণরা। রাজশাহীর জেলা প্রশাসক ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আব্দুল জলিলের মাধ্যামে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বরবার আট দফা দাবিতে স্মারকলিপি প্রদান করা হয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার (২২ অক্টোবর) জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবসে বেলা সাড়ে ১২টার দিকে রাজশাহীর অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মুহাম্মদ শরিফুল হকের সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ করে রাজশাহীর তরুণ সংগঠন ইয়্যাস (ইয়ুথ এ্যাকশন ফর সোস্যাল চেঞ্জ) এর সভাপতি শামীউল আলীম ও কোষাধ্যক্ষ আতিকুর রহমান আতিক। সৌজন্য সাক্ষাৎ শেষে ইয়্যাস তরুণদের কাছে থেকে জেলা প্রশাসকের পক্ষে স্মারকলিপি গ্রহণ করেন তিনি। এসময় ইয়্যাসের নারী সদস্য রিনা আক্তার ও উন্নয়ন কর্মী তহুরা খাতুন লিলি উপস্থিত ছিলেন।

স্মারকলিপিতে উল্লেখিত আটটি দাবি হলো: রাজশাহীসহ দেশজুড়ে প্রতিটি সড়কে স্বয়ংক্রিয় ডিজিটাল ট্রাফিক সিগন্যাল স্থাপন করতে হবে। একই সাথে ট্রাফিক ম্যানেজমেন্ট সিস্টেমকে ডিজিটালাইজেশন, সার্বিক ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরা (সিসিটিভি) দ্বারা পর্যবেক্ষণ ও সকল ট্রাফিক পুলিশের কাছে ওয়্যারলেস প্রদান করতে হবে এবং ট্রাফিক বিভাগে দক্ষ লোকবল, ট্রাফিক পুলিশ নিয়োগ বা বরাদ্দ করতে হবে; সড়ক পরিবহন আইন, ২০১৮ দ্রুত কার্যকরভাবে বাস্তবায়ন করার পাশাপাশি পথচারী, যাত্রী ও চালক তথা সর্বসাধারণকে সড়ক নিরাপত্তা আইন সম্পর্কে আরো বেশি অবগত ও সচেতন করতে রাস্তার ধারে দৃশ্যমান স্থানে পর্যাপ্ত নির্দেশিকা প্রদানসহ বেশি কিছু দাবি করা হয়।

সড়ক পরিবহন আইন, ২০১৮ দ্রুত কার্যকরভাবে বাস্তবায়ন করার দাবি জানিয়ে ইয়্যাস (ইয়ুথ এ্যাকশন ফর সোস্যাল চেঞ্জ) কোষাধ্যক্ষ আতিকুর রহমান আতিক বলেন, পথচারী, যাত্রী ও চালক তথা সর্বসাধারণকে সড়ক নিরাপত্তা আইন সম্পর্কে আরো বেশি অবগত ও সচেতন করতে প্রচারণা চালানো উচিৎ। এতে সড়কে দুর্ঘটনা ও যানজট অনেকাংশেই হ্রাস পাবে এবং সড়কের শৃঙ্খলা ঠিক থাকবে।


উল্লেখ্য যে, বিগত ২০১৯ সালের ১১ ফেব্রুয়ারি রোজ সোমবার সকালে রাজশাহী মহানগরীর শহিদ এএইচএম কামারুজ্জামান চত্বরে (রেলগেট) রাজশাহীতে প্রতিটি স্থানে ডিজিটাল ট্রাফিক সিগন্যাল স্থাপনসহ ১৩ (তের) দফা দাবিতে উন্নয়ন গবেষণা প্রতিষ্ঠান বারসিক (বাংলাদেশ রিসোর্স সেন্টার ফর ইডিজিনাস নলেজ) এর সহযোগিতায় ইয়ুথ এ্যাকশন ফর সোস্যাল চেঞ্জ-ইয়্যাস মানববন্ধন কর্মসূচির আয়োজন করেছিল এবং সেইদিনই রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মাননীয় মেয়র, রাজশাহী মহানগর পুলিশের কমিশনার, রাজশাহীর জেলা প্রশাসক বরাবর ১৩ দফা দাবি সম্বলিত পৃথক পৃথক স্মারকলিপি প্রদান করা করেছিল। পরবর্তীতে বিগত ২০১৯ সালের ২৮ নভেম্বর রোজ বৃহস্পতিবার স্বয়ংক্রিয় ডিজিটাল ট্রাফিক সিগন্যাল স্থাপন করাসহ সড়কের অবকাঠামোর মান উন্নয়ন, ট্রাফিক আইন সম্পর্কে সচেতনতা ও সর্তকতা বৃদ্ধি এবং সড়ক পরিবহণ আইন, ২০১৮ দ্রুত বাস্তবায়ন করার দাবিতে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মাননীয় মেয়র, রাজশাহী মহানগর পুলিশের কমিশনার, রাজশাহীর জেলা প্রশাসক বরাবর পৃথক পৃথক স্মারকলিপি প্রদান করে সংগঠনটি। কিন্তু অত্যান্ত দুঃখজনক হলেও সত্য অদ্যবধি রাজশাহীতে ডিজিটাল ট্রাফিক ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম চালু হয়নি।

happy wheels 2

Comments

%d bloggers like this: