সাম্প্রতিক পোস্ট

ইউপি স্ট্যান্ডিং কমিটিতে নারীর অংশগ্রহণ বৃদ্ধি করবে নারীর ক্ষমতায়ন

মানিকগঞ্জ থেকে রাশেদা আক্তার

‘ইউনিয়ন কমিটিতে নারীর অংশগ্রহণ, বৃদ্ধি করবে নারীর ক্ষমতায়ন’-এ স্লোগানকে সামনে রেখে মানিকগঞ্জ সদর উপজেলার জাগীর ইউনিয়ন পরিষদ মিলনায়তনে বারসিক’র উদ্যোগে সম্প্রতি ইউনিয়ন নারী ও শিশু স্ট্যান্ডিং কমিটির সাথে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় চেয়ারম্যানসহ সংরক্ষিত নারী সদস্য ও মেম্বারগণ উপস্থিত ছিলেন।

সভায় ইউপি চেয়ারম্যান মো. জাকির হোসেন বলেন, ‘বারসিক অনেক কাজ করে থাকে। পরিবেশ, নদী রক্ষায় বারসিক অনেক কাজ করে। বারসিক’র অনেক কাজের সাথে যুক্ত থাকি। ইউনিয়ন নারী ও শিশু কমিটির সভাপতি হচ্ছে ডালিয়া আক্তার। তিনি এবার নতুন। আমরা আশা করছি ভালো কাজ করেেত পারবেন।’ তিনি আরও বলেন, ‘আমি মনে করি একজন নির্বাচিত জনপ্রতিনিধির কাজ হলো মানুষের সাথে মিশে কাজ করা। মানুষ যদি তাকে নাই চিনলো তবে সে কেমন প্রতিনিধি হলো। আমরাও জনগণের সেবা করতে চাই। সবাই মিলে একসাথে কাজ করতে চাই।’

ইউপি সচিব মো: নাজিম উদ্দিন বলেন, ‘প্রতিটি ইউনিয়ন পরিষদেই স্ট্যান্ডিং কমিটি থাকে। আমাদের ইউনিয়নে ১৩টি কমিটি রয়েছে। যাকে সদস্য হিসেবে অন্তর্ভূক্ত করতে হবে তার নাম ঠিকানা মোবাইল নাম্বারসহ জমা দিতে হবে ইউপিতে।’ সংরক্ষিত নারী সদস্য শিউলী আক্তার বলেন, ‘বারসিক বিভিন্ন ধরণের কাজ করে থাকে গ্রাম পর্যায়। আমি বারসিক’র পিঠা উৎসব, খাবার রান্না প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেছি। কাজগুলো আমার ভালো লাগে। কমিটিতে নারীরা যুক্ত হলে কাজের সমন্বয় হবে। এটি ভালো হবে।’ সংরক্ষিত নারী সদস্য ডালিয়া আক্তার বলেন, ‘আমি ধলেশ^রী নারী সংগঠনের একজন সদস্য। এবার নির্বাচনে জয়লাভ করেছি।’

বারসিক’র প্রোগ্রাম অফিসার রাশেদা আক্তার বলেন, ‘বারসিক প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর সাথে সংগঠন তৈরির মাধ্যমে তাদের নিজস্ব উদ্যোগে নিজ নিজ অধিকার রক্ষায় সহযোগিতা করে যাচ্ছে। জাগীর ইউনিয়নের জাগির মেঘশিমুল, দিয়ারা ভবানীপুর, চরমত্ত গ্রামে নারী সংগঠন রয়েছে। এই সংগঠনগুলো বাল্যবিয়ে রোধ, নারী নির্যাতন বন্ধসহ নারীর সমঅধিকার প্রতিষ্ঠায় কাজ করে যাচ্ছে। প্রতিটি ইউনিয়ন পরিষদে ১৩টি স্ট্যান্ডিং কমিটি রয়েছে, কোনো কোনো জায়গায় ১৪টিও রয়েছে। এই ইউনিয়ন পরিষদের নারী ও শিশু, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা এবং লিগ্যাল এইড কমিটিতে নারী সংগঠনের সদস্যদের অন্তর্ভূক্ত করার উদ্দেশ্যে আজ এই মতবিনিময় সভার আয়োজন করা হয়েছে।’

উল্লেখ্য এর আগে আলোচনার শুরুতেই বারসিক’র কার্যক্রম ও মতবিনিময় সভার লক্ষ্য উদ্দেশ্য তুলে ধরে বারসিক’র আঞ্চলিক সমন্বয়কারী বিমল রায় বলেন, ‘মানুষ ও প্রাণ-প্রকৃতির অধিকার রক্ষায় বারসিক দীর্ঘদিন ধরে মানিকগঞ্জ জেলায় কাজ করে যাচ্ছে। প্রতিটি ইউনিয়ন পরিষদে কম্পিউটার চালনায় দক্ষ করে তোলার জন্য বারসিক সর্বপ্রথম ইউনিয়ন পরিষদের সচিবদের কম্পিউটার প্রশিক্ষণ প্রদান করেছে। আজ প্রতিটি ইউনিয়ন পরিষদ ডিজিটাল করেছে সরকার। কোন উদ্যোগই বৃথা যায় না। আমরা বিভিন্ন ধরণের কাজ করে থাকি সেই কাজগুলো ইউনিয়ন পরিষদের সাথে সমন্বয় করা। সবাই মিলে প্রাণ-প্রকৃতি, মানুষের অধিকার রক্ষায় কাজ করতে চাই।’

প্রতিটি জনসংগঠন তাদের নিজস্ব ব্যবন্থাপনায় কাজগুলো করে থাকে তাই আমরা মনে করছি ইউনিয়ন পরিষদের সাথে কাজগুলো সমন্বয় করতে পারলে জনসংগঠনের কাজগুলো আরো দৃশ্যমান হবে। সেই সাথে ইউনিয়ন কমিটিতে নারীর অন্তর্ভূক্তি নারীর ক্ষমতায়ন বৃদ্ধিতে সহায়ক হবে।

happy wheels 2

Comments

%d bloggers like this: