সাম্প্রতিক পোস্ট

‘ভাবিনি যে আমি আমার নাম লিখতে পারবো

‘ভাবিনি যে আমি আমার নাম লিখতে পারবো

রাজশাহী থেকে উত্তম কুমার

আন্তর্জাতিক সাক্ষরতা দিবস উপলক্ষে মোহর স্বপ্ন আশা আলো সংগঠন ও বারসিকের যৌথ উদ্যোগে মোহর গ্ৰামে অগ্রগতি মূল্যায়নের পরিকল্পনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। উক্ত সভায় তালন্দ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ নাজিমউদ্দিন বাবু ও ৭,৮,৯ নম্বর ওয়ার্ডের মহিলা মেম্বার মোছাম্মদ মেরিনা বিবি এবং আট নাম্বার ওয়ার্ডের আওয়ামী লীগের সভাপতি মোঃ সৈয়দ আলী(৬৫) উপস্থিত ছিলেন।

সভায় স্বপ্ন আশার আলো সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মোঃ সবজুল ইসলাম(৩৩) কিভাবে তারা সাক্ষরতা শেখানো ,প্রকল্পটি কিভাবে নেন ও বাস্তবায়ন করে সে সম্পর্কে সুন্দরভাবে উপস্থাপনা করেন। স্বপ্ন আসার আলো সংগঠনের সভাপতি মোঃ আলমগীর হোসেন(৩৫) বারসিক এর কাজের ধরন বারসিকের ভীষণ ও মিশন সম্পর্কে উপস্থাপনা করেন।

সভায় ৫নং তালান্দ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান  মোঃ নাজিম উদ্দিন বাবু বলেন, ‘নিঃসন্দেহে মোহর গ্রামের এটি একটি বড় পাওয়া । নিরক্ষরমুক্ত গ্রাম ঘোষণা করা হয়েছে। তানোর থানার মতো রাজশাহী জেলায় মনে হয় এরকম আর একটিও গ্রাম নেই। ধন্যবাদ জানাই স্বপ্ন আশার আলো সংগঠন ও বারসিককে।’ তিনি প্রতিশ্রুতি দেন  কাউন্সিলের পক্ষ থেকে স্বপ্ন আশার আলো সংগঠনের এরকম ভালো উদ্যোগে সব সময় পাশে থাকবে। লতি মন হেমরম (৬৭) বলেন, ‘জীবনে কখনো কোনদিন ভাবিনি যে আমি আমার নাম লিখতে পারবো। এটি একমাত্র সম্ভব হয়েছে স্বপ্ন আশার আলো সংগঠনের কারণে। কোথাও স্বাক্ষর করার প্রয়োজন হলে বলি না আর যে আমি স্বাক্ষর করতে পারি না।’ মোছাম্মদ রুজিনা বেগম (৫৪) বলেন, ‘সংসারের নানা ধরনের ছোটখাটো হিসেব থাকে। মুরগি বিক্রি, ডিম বিক্রি, হাস বিক্রি, এগুলো করতে মানুষের সহযোগিতা নিতে হতো। এখন এগুলো আমি নিজেই করতে পারি।’

happy wheels 2

Comments

%d bloggers like this: