সাম্প্রতিক পোস্ট

আদিবাসী জাতিসমূহের দেশান্তর ও প্রতিরোধের সংগ্রাম

কলমাকান্দা, নেত্রকোণা থেকে  অপর্ণা ঘগ্রা:
“আদিবাসী জাতিসমূহের দেশান্তর ও প্রতিরোধের সংগ্রাম” এই প্রতিপাদ্য বিষয়কে সামনে রেখে কলমাকান্দা উপজেলায় ৯আগষ্ট ২০১৮ বিশ্ব আদিবাসী দিবস উদ্যাপন করা হয় কলমাকান্দা অডিটরিয়াম কাম মাল্টিপারপাশ হলরুমে। জাতীয় পতাকা উত্তলোন, জাতীয় স্গংীত পরিবেশন, র‌্যালী, আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে দিবসটি উদ্যাপিত হয়েছে। অনুষ্ঠানের শুভ উদ্বোধন করেন ছবি বিশ্বাস, মাননীয় জাতীয় সংসদ সদস্য, নেত্রকোণা-১, (দূর্গাপুর-কলমাকান্দা নির্বানী এলাকা)। দিবসটি উদ্যাপনে ট্রাইবাল ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েসন, বাংলাদেশ গারো ছাত্র সংগঠন, গারো স্টুডেন্ট ইউনিয়ন, বাংলাদেশ হাজং ছাত্র সংগঠন, বারসিক, ওয়ার্ল্ডভিশন, ডিএসকে, পারি ডেভলপমেন্ট ট্রাস্ট, পপি সীড্স সংস্থাসমূহ সহযোগিতা প্রদান করে।

IMG_20180809_164139আর প্রতিশ্রুতি নয় বাস্তবায়ন চাই বলে আহবায়ক, উদ্যাপন কমিটি ও ক্রীড়া সম্পাদক, ট্রাইবাল ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশন কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য পিউস এল মানখিন কলমাকান্দা উপজেলার আদিবাসীদের দাবীর বিষয় তুলে ধরেন। দাবীগুলো হচ্ছে আদিবাসী এলাকায় বিদ্যূৎ ও রাস্তাঘাটের সুব্যবস্থা করতে হবে, উপজেলায় আদিবাসীদের জন্য সাংস্কৃতিক কেন্দ্র স্থাপন করতে হবে, সমতলের আদিবাসীদের জন্য পার্বত্য চট্টগ্রামের বাজেটের দিগুণ বাজেট বরাদ্ধ রাখতে হবে, আদিবাসীদের সাংবিধানিক স্বীকৃতি দিতে হবে। দাবিগুলো যেন মাননীয় সংসদ সদস্য সংসদে উত্থাপন করেন তার জন্যও মাননীয় সংসদ সদস্যকে বিশেষ অনুরোধ জানান।

আদিবাসীদের রয়েছে নিজস্ব স্বতন্ত্র কৃষ্টি, সংস্কৃতি ও বৈশিষ্ট্য। এগুলো বাংলাদেশের সংস্কৃতিকে সমৃদ্ধ করেছে। এখানে রয়েছে সকল রকম মানুষের সহাবস্থান, সকল প্রকার মানুষের মিথস্ক্রিয়া এবং চমৎকার পরস্পর বোঝাপড়ার যে ঐতিহ্য সেটাই আমাদের অন্যতম অহংকার। তিনি আরো বলেন, পিছিয়ে আছি এই মনোভাব নিয়ে থাকা যাবেনা। সামগ্রিক উন্নয়ন থেকে আদিবাসীরা যেন পিছিয়ে না যায় তাই প্রত্যেকটি জাতিগোষ্ঠী নিজেদেরকে শিক্ষা, দীক্ষায় কিভাবে সমুন্নত রাখা যায়, সবার সাথে তাল মিলিয়ে কিভাবে চলা যায় সেই প্রচেষ্টা চালাতে হবে। নৃতাত্বিক জাতিগোষ্ঠীগণ স্থান, কাল, পাত্রভেদে যে যেখানে অবস্থান করুক না কেন নিজেদের জাতিসত্বার উন্নয়নের জন্য সকলকে এগিয়ে আসতে হবে। আর এগিয়ে যাওয়ার জন্য প্রয়োজন সঠিক জায়গা চিহ্নিত করন এবং সেই অনুসারে কার্যক্রম করার জন্য সংস্লিষ্ট উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষন করা। তার জন্য আমরা আছি, সরকার আছে।

IMG_20180809_154125অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথির বক্তব্যে ছবি বিশ্বাস, মাননীয় জাতীয় সংসদ সদস্য, নেত্রকোণা-১ (দূর্গাপুর, কলমাকান্দা নির্বাচনী এলাকা) বলেন সাংবিধানিকভাবে আদিবাসীদের স্বীকৃতির বিষয়টি এখন সর্বাধিক আলোচিত বিষয়। আদিবাসী দিবস আগে ঢাকায় উদ্যাপন করা হতো। আজ তা সারাদেশে পালন করা হচ্ছে। এর প্রয়োজনীয়তা আছে বলেই পালন করা হচ্ছে। এই দিবসে তাদের দু:খ, কষ্ট, দাবী ও অধিকারের বিষয় তুলে ধরা হয়। আজও অনেক কিছু অন্ধকারে রয়ে গেছে। তবে এই অন্ধকার একদিন দূর হয়ে আলোর দেখা মিলবে, আদিবাসীরা স্বীকৃতি পাবে। এক্ষেত্রে অনেক সমস্যা থাকবে। সমস্যাগুলো নিয়েই এগিয়ে যেতে হবে আদিবাসীদের উন্নয়নের জন্য। কলমাকান্দায় আদিবাসীদের সাংস্কৃতিক কেন্দ্র ও হোস্টেল করার জায়গা রয়েছে। সবার সহযোগীতায় তা অতি শীঘ্র গড়ে তোলা হবে।

এছাড়াও অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন মো: সুলতান গিয়াস উদ্দিন-কমান্ডার, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, কলমাকান্দা, আনোয়ার হোসেন আজাদ-সাধারন সম্পাদক, উপজেলা আওয়ামীলীগ, কলমাকান্দা, ফলরুল ইসলাম ফিরোজ-সাধারণ সম্পাদক, উপজেলা প্রেস ক্লাব, তরুন কান্তি জাম্বিল-বীর মুক্তিযোদ্ধা কল্যান সমতির সভাপতি, মার্শেল রেমা-স্থানীয় আদিবাসী নেতা, সমল মানখিন-নাজিরপুর ওয়ার্ল্ডভিশন, খগেন্দ্র হাজং-আদিবাসী গবেষক।

happy wheels 2

Comments

%d bloggers like this: