সাম্প্রতিক পোস্ট

চাটমোহরে তরুণদের ব্যতিক্রমী প্রশংসনীয় উদ্যোগ

চাটমোহর, পাবনা থেকে ইকবাল কবীর রনজু

আমাদের সমাজের একটা বড় অংশ তরুণ দল। তরুণেরা ঝুঁকি নিতে পারে। এরা উদ্যমী হয়। অসম্ভবকে সম্ভব করতে তারুণ্যের জুড়ি মেলা ভার। চাটমোহরের কিছু সমমনা তরুণ শিশুদের বিনামূল্যে সাঁতার শেখানোর ব্যতিক্রমী প্রশংসনীয় উদ্যোগ গ্রহণ করে সৃষ্টি করছেন নজির ও জনসচেতনতা। তারা প্রশংসিত হচ্ছেন সর্বত্র। এমন উদ্যোগ অধিক এলাকায় নেওয়া হলে পানিতে ডুবে শিশুর অপমৃত্যু অনেক কমবে বলে মনে করে চাটমোহরের তরুণ সমাজ। একের পর এক ছেলে মেয়েকে পানিতে ডুবে মৃত্যুবরণ করতে দেখে চাটমোহরের তরুণেরা ব্যাথিত হয়। তারা ছেলে মেয়েদের বিনামূল্যে সাঁতার শেখাতে আগ্রহী হয়ে ব্যাপক প্রচার প্রচারণা শুরু করে। অনেকে তাদের এহেন কর্মকান্ডের সাথে নিজেদের সম্পৃক্ত করতে আগ্রহ প্রকাশ করে। স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে যোগ দেয় আরো বেশ কিছু তরুণ। অবশেষে গত ৩ সেপ্টেম্বর চাটমোহরে তাদের এ কার্যক্রম শুরু হলো।

swiming pic-2

“জীবনের জন্য সাঁতার” এ শ্লোগানে ফেসবুক গ্রুপ চেতনায় চাটমোহরের উদ্যেগে সোমবার সকাল সাড়ে দশটায় চারদিনব্যাপী বিনা মূল্যে সাঁতার প্রশিক্ষণ শুরু হয়েছে। উপজেলা পরিষদের পুকুরে এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন পাবনা-৩ এলাকার সংসদ সদস্য আলহাজ¦ মো. মকবুল হোসেন এমপি। এসময় চাটমোহর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হাসাদুল ইসলাম হিরা, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সরকার অসীম কুমার, এ এসপি (চাটমোহর সার্কেল) তাপস কুমার পাল, ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. নজরুল ইসলাম, ডা. সবিজুর রহমান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি পাবনা ইউনিটের পৃষ্ঠপোষকতায় এবং চাটমোহর ফায়ার সার্ভিসের সার্বিক সহায়তায় শুরু হওয়া এ প্রশিক্ষণ কার্যক্রম চলবে আগামী ৬ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত।

ফেসবুক গ্রুপ চেতনায় চাটমোহরের এডমিন জেমান আসাদ বলেন, “সাঁতার না জানার কারণে প্রতিবছর হাজার হাজার শিশু পানিতে ডুবে মৃত্যুবরণ করে যা অত্যন্ত বেদনাদায়ক। আমরা এমন অপমৃত্যু রুখতে, শিশুদের সাঁতার সেখাতে, পানি ভীতি কাটাতে এবং জনসচেতনতা তৈরির লক্ষ্যে দ্বিতীয়বারের মতো এ কাজটি করছি। সবাই আমাদের সহযোগিতা করছে।”

swiming pic-1
প্রথমদিন ১০৫ জন শিশু সাঁতার প্রশিক্ষণে অংশ নেয়। গ্রুপের আদর খাঁন, শাহিন আলম, মানিক কুমার দাস, আজিজ, এনামুল হক, শুভ, ফজলে করিম রনি, হাসানুজ্জামান সবুজ, কামরুল হাসান মিন্টু, শরিফ উদ্দিনসহ অনেকে শিশুদের সাঁতার শেখাতে অক্লান্ত পরিশ্রম করছেন। স্থানীয় ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা আমাদের সহায়তা করছেন। জেমান আসাদ আরও বলেন, ‘আমাদের বিশ্বাস পানিতে ডুবে অপমৃত্যুর ঘটনা আমরা রোধ করতে পারবো না তবে কমাতে পারবো। আমাদের এ উদ্যোগ দেখে দেশের বিভিন্ন এলাকার তরুণেরা এমন উদ্যোগ নিলে, অভিভাবকরা সচেতন হয়ে তাদের বাচ্চাকে সাঁতার শেখালে পানিতে ডুবে শিশু মৃত্যু কমবে। আর যদি এমনটা হয় তবে সেখানেই আমাদের স্বার্থকতা।’

উল্লেখ্য, গতবছর ও চেতনায় চাটমোহর শিশুদের সাঁতার বিনামূল্যে সাঁতার প্রশিক্ষণ দিয়েছিল।

happy wheels 2

Comments

%d bloggers like this: