সাম্প্রতিক পোস্ট

বড়গাছি ইউনিয়নের শ্রেষ্ঠ সন্তানগণ

বরেন্দ্র অঞ্চল থেকে শহিদুল ইসলাম

সম্প্রতি রাজশাহীর পবা উপজেলার বড়গাছি ইউনিয়নে বিএডিসি সাব সেন্টার হল রুমে যৌথপরিবার ও প্রবীণ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হযেছে। ‘যৌথ পরিবার সমুন্নত হলে প্রবীণের সুখ শান্তি নিশ্চিত হবে’ শিরোনামে উক্ত সমাবেশে বড়গাছি ইউনিয়নের প্রায় শতাধিক প্রবীণ ও তাদের পরিবারের সদস্যগণ অংশগ্রহণ করেন। বেসরকারি উন্নয়ন গবেষণা প্রতিষ্ঠান বারসিক, বড়গাছি কৃষক ঐক্য এবং পবা লোকসাহিত্য ও সংস্কৃতি পরিষদের যৌথ আযোজনে উক্ত সমাবেশে বক্তারা বলেন, ‘দিনে দিনে যৌথ পরিবার কমে যাবার কারণে প্রবীণরা নানা সমস্যায় পড়ে যাচ্ছে। তারা একাকীত্ববোধ করছে। ছেলে বিয়ে করে একা হবার কারণে প্রবীণ পিতামাতাকে ছেড়ে আলাদা পরিবার গড়ে তোলে। এর ফলে প্রবীণদের নানা সমস্যায় পড়তে হচ্ছে।

IMG_2513

সমাবেশে জাতীয় কৃষি পদকপ্রাপ্ত চাষী রহিমুদ্দিন সরকারের সভাপতিত্বে বারসিকের মাঠ পর্যবেক্ষণ প্রতিবেদন উপস্থাপন করা হয়। প্রতিবেদনে বলা হয়, ‘আধুনিক সমাজ বিবর্তনের কারণে মানুষের জীবনযাত্রা পরিবর্তন হয়েছে, যার ফলে যৌথ পরিবার ভেঙে একক পরিবারের সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। কিন্তু এর ফলে পরিবারে প্রবীণরা নানা সমস্যা পড়ে যাচ্ছে। আবার দেখা যায়, যৌথ পরিবার কমে আসছে এবং মানুষজন গ্রাম ছেড়ে শহরে বা দেশের বাইরে চলে যাচ্ছেন। এই পরিস্থিতিতে অনেক মা-বাবাই অরক্ষিত হয়ে পড়ছেন। অরক্ষিত এই প্রবীণদের সেবা দেয়ার জন্য যে নতুন নতুন ব্যবস্থা প্রয়োজন তা গড়ে উঠছে না। প্রবীণরা মানসিক প্রশান্তিসহ আরো মৌলিক অধিকার থেকেও বঞ্চিত হচ্ছেন।’ প্রতিবেদনে আরো বলা হয়, ‘প্রবীণদেরকে দেখভাল করা আমাদের প্রত্যেকের দায়িত্ব।’ সমাবেশে আলোচনা পর্বে পবা লোকসাহিত্য ও সংস্কৃতি পরিষদের আহবায়ক রায়হান জুয়েল বলেন, ‘নানা সমস্যার মধ্যেও আমাদের আন্তরিকতা ও মানবতা থাকলে কোন পরিবারেই প্রবীণ ব্যক্তি কষ্ট পেতে পারেন না। প্রয়োজন মানবিক আন্তরিকতা।’ তিনি আরো বলেন, ‘এখনো অনেক পরিবার, সন্তান আছে তারা নিজের পরিবারের প্রবীণদের সকল চাহিদা পূরণ করছেন, সুস্থ সুন্দর রাখতে প্রবীণদের সহায়তা করছেন।’

IMG_2446

বারসিকের আঞ্চলিক সমন্বয়কারী শহিদুল ইসলাম বলেন, ‘এই সমাজ, দেশের উন্নয়নে প্রবীণদের অবদান নানা খানে, তারাই আমাদের পথ প্রদর্শক। তাদের সম্মান শ্রদ্ধা এবং সুখে শান্তিতে রাখা আমাদের প্রত্যেকের দায়িত্ব।’

সমাবেশের আলোচনা পর্ব শেষে বড়গাছি ইউনিয়নের মধ্যে নিজের পরিবারের প্রবীণ পিতা মাতার সুখ, শান্তি ও সকল চাহিদা পূরণে বিশেষ ভূমিকা থাকায় বারসিক’র পক্ষ থেকে শ্রেষ্ঠ সন্তানদের শ্রদ্ধা ও কৃতজ্ঞতাস্বরূপ শ্রেষ্ঠ সম্মাননা তুলে দেয়া হয়। নিজের পরিবারে প্রবীণ পিতা মাতার সুখ শান্তি ও সকল চাহিদা পূরণে বিশেষ অবদান রাখায় শ্রেষ্ঠ সন্তানের সম্মাননা পান বড়গাছি ইউনিয়নের মালপাড়ার মো. বাবুল মিয়া, হাটপাড়ার মো. মোস্তাক আলী, পশ্চিম পাড়ার মো. নাসির উদ্দিন। নিজের পরিবারে সকলে একসাথে শান্তিপূর্ণভাবে থেকে নবীন ও প্রবীণের আন্তঃসম্পর্ক উন্নয়নে ভূমিকা রাখায় শ্রেষ্ঠ প্রবীণ সম্মাননা পান মাধবপুর গ্রামের আব্দুল জব্বার মিয়া, মো. হুজুর আলী, মো. সিদ্দিকুর রহমান। নিজে প্রবীণ হয়েও এলাকার অন্যান্য প্রবীণদের নিয়ে প্রবীণ চত্ত্বরের জায়গা, একত্রিত ও সচেতনতার ব্যবস্থা করাসহ এলাকার প্রবীণদের একত্রিত করায় বিশেষ অবদান রাখায় শ্রেষ্ঠ প্রবীণ বন্ধু সম্মাননা পান চাষী রহিমুদ্দিন সরকার এবং প্রবীণদের উপযোগী চিত্তবিনোদন এবং প্রবীণবান্ধব সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের নিয়মিত আয়োজনে বিশেষ অবদান রাখায় পবা লোকসাহিত্য ও সংস্কৃতি পরিষদকে প্রবীণবান্ধব সংস্কৃতিক সম্মাননা তুলে দেয়া হয়। মোট ৪টি ক্যাটাগড়িতে ৮ ব্যক্তি ও একটি প্রতিষ্ঠানকে বারসিক সম্মানা তুলে দেয়া হয়।

IMG_2537
অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন পবা লোকসাহিত্য ও সংস্কৃতি পরিষদের আহবায়ক রায়হান জুয়েল। এ সময় উপস্থিত ছিলেন বারসিকের কর্মকর্তাসহ এলাকার জনসংগঠনের নেতৃত্ববৃন্দ।

happy wheels 2

Comments

%d bloggers like this: