সাম্প্রতিক পোস্ট

শীতের রাতে কম্বল নিয়ে হাজির ঘিওরের ইউএনও মৌসুমী সরকার

আব্দুর রাজ্জাক, ঘিওর(মানিকগঞ্জ)প্রতিনিধি।।

শীতের রাত। হীম শীতলবাতাসে জুবুথুবু প্রাণ। ঘড়ির কাঁটায় তখন রাত ৯টা পেরিয়ে গেছে। ঘিওরের মাইলাঘী আবাসন প্রকল্পে বসবাস প্রায় অর্ধশত দরিদ্র পরিবারের। শীত নিবারণে যাদের কষ্টের সীমা নেই। এরই মধ্যে ঘুমিয়ে পড়েছেন সারাদিন খেটে খাওয়া মানুষগুলো। হঠাৎ আচমকা একজন দরজায় কড়া নাড়িয়ে বললেন ইউএনও স্যার আপনাদের জন্য কম্বল নিয়ে এসেছেন। নিজ হাতে দরিদ্র শীতার্তদের কম্বল দিয়ে জড়িয়ে ধরলেন পরম মমতায়। শীতের রাতে কম্বল পেয়ে অনেক খুশি এখানকার বসিন্দারা।

প্রত্যন্ত এলাকায় গিয়ে অর্ধশত পরিবারের মাঝে কম্বল বিতরণ করেন ঘিওর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মৌসুমী সরকার রাখী। ঘিওর ইউনিয়নের মাইলাঘী আবাসন প্রকল্পে বসবাসকারী ৩৪টি অসহায় পরিবারের সদস্যদের মাঝে কম্বল বিতরণের সময় ঘিওর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান অহিদুল ইসলাম টুটুল, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর আলম ও সংরক্ষিত মহিলা ইউপি সদস্য নিলুফার ইয়াসমিন সহ অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন।

Ghior, Manikgonj

আবাসনের বাসিন্দা রোকেয়া বেগম(৪২) ও নজু মিয়া(৫৮) কম্বল পাওয়ার পর বলেন, ‘শীতের কষ্ট থাকলেও সারাদিন কাজ করে সম্ভব হয় না উপজেলায় বা কোন জায়গায় যাওয়া। এই শীতের রাতে ইউএনও স্যার আমাদের শীত নির্বারণের জন্য কম্বল নিয়ে এসেছেন তাতে আমরা অনেক খুশি হয়েছি।’

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মৌসুমী সরকার রাখী বলেন, ‘একজন শীতার্ত মানুষকে খুঁজে পেতে হলে রাতের কোন বিকল্প নেই, তাই রাতেই কম্বল বিতরণের কাজগুলো করার চেষ্টা করছি। দিনে গেলে অফিসে সেবা নিতে আসা লোকজন তাদের প্রাপ্য সেবা থেকে বঞ্চিত হতো। তাছাড়াও আবাসনের এই মানুষগুলো উপজেলায় গেলে তাদের মূল্যবান সময় নষ্ট হতো তাই অগ্রাধিকার ভিত্তিতে তাদের পাশে এসে কম্বল বিতরণ করা হয়েছে।’

 

happy wheels 2

Comments

%d bloggers like this: