সাম্প্রতিক পোস্ট

শীতে বিশেষভাবে বয়স্ক ও শিশুদের যত্ন নিতে হবে

রাজশাহী থেকে সুলতানা খাতুন 

বারসিক’র উদ্যোগে সম্প্রতি পবার বিলধর্মপুর গ্রামে রবিশস্য চাষ বিষয়ক তথ্য ও জলবায়ু পরিবর্তন ও শীতকালিন রোগবালাই ও প্রতিকারের উপায় নিয়ে সচেতনতামূলক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় গ্রামের প্রায় ৩০ জন নারী ও পুরুষ অংশগ্রহণ করেন।

আলোচনায় বক্তারা জানান, বরেন্দ্র অঞ্চলে জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে গরমে অধিক গরম ও শীতে খুবই শীত পড়ে বলে জানান। বিগত কয়েক দিন থেকে শীতের প্রভাব বেড়েছে। তাই এ সময়ে সচেতন থাকতে হবে। এ সময়ে খাবার, পোশাক পরিচ্ছেদ,এমনকি কিছু নিয়ম কানুন মেনে চললে অসুস্থ হওয়ার হাত থেকে নিজেদের দূরে রাখা যাবে বলে তারা মনে করেন।

আলোচনায় তারা জানান,শীতের সময় সুস্থ থাকলে হলে প্রতিদিন কিছু পরিমাণ কালিজিরা খাওয়া উচিত। কালিজিরা প্রায় ৩০০ রোগের ঔষধ তৈরিতে ব্যবহার হয়। এছাড়া শীতে ভিটামিন সি জাতীয় খাবারও বেশি করে খাওয়া উচিত বলে তারা মনে করেন। কারণ ভিটামিন সি ঠান্ডা লাগার প্রতিরোধক হিসেবে কাজ করে। অন্যদিকে আদা ও লবঙ্গ দিয়ে চা খেলে শরীর গরম থাকে শীতে কাবু হয় না।

আলোচনায় শিশু ও বয়স্কদের বিশেষভাবে যত্ন নেয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়। সাধারণত ও শীতকালে দেখা যায়, শিশু ও বয়স্করা বেশি অসুস্থ হয়। শীত শিশু ও বয়স্কদের উপর প্রভাব বেশি পড়ে। তাই পরিবার থেকে যদি নারীরা সচেতন হয় তাহলে শিশু ও বয়স্করা ভালো থাকবে বলে তারা মনে করেন।

উল্লেখ্য, রাজশাহী জেলার পবা উপজেলা দর্শন পাড়া ইউনিয়নের একটি গ্রাম বিলধর্মপুর। এই গ্রামে বিগত দেড় বছর ধরে বারসিক বিভিন্ন ধরনের কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে। জনগোষ্ঠীর চাহিদা অনুযায়ী ৩০ জন নারী নিয়ে এখানে একটি বিলধর্মপুর নারী সংগঠন নামে একটি সংগঠন তৈরি করা হয়। সংগঠনের নারীরা বিভিন্ন বিষয় নিয়ে প্রতিমাসে সভা করে থাকে। এ পর্যন্ত এ গ্রামে বীজ মেলা, পরিবেশবান্ধব চুলা, হাঁজল, জৈব বালাইনাশক প্রশিক্ষণ কর্মশালা,করোনামুক্ত গ্রাম, ইস্যুভিত্তিক আরো বিভিন্ন কার্যক্রম বাস্তবায়ন করা হয়েছে।

happy wheels 2

Comments

%d bloggers like this: