সাম্প্রতিক পোস্ট

সবজি চাষ করে সন্তানের লেখাপড়া করান সুজিতা রিছিল

কলমাকান্দা নেত্রকোনা থেকে আলপনা নাফাক

কলমাকান্দা উপজেলার বামনগাও গ্রামে বাস করেন সুজিতা রিছিল নামের একজন বিধবা নারী। ৪ জন ছেলেমেয়ে নিয়ে তাঁর সংসার। তিনজন ঢাকায় বিভিন্ন কোম্পানিতে কাজ করছে। ছোট ছেলেটা অষ্টম শ্রেণীতে লেখাপড়া করছে।

69213588_939194026421842_3705641570456829952_n

ছেলেদের পড়ালেখার খরচসহ সংসারের যাবতীয় খরচ মেটানোর জন্য সুজিতা রিছিল তাঁর বাড়ির আঙ্গিনায় সারাবছর বিভিন্ন ধরনের শাকসব্জিচাষ করেন। তাঁর বাড়ির আঙ্গিনার বাইরে এ বছর তিনি ৪ শতাংশ জমিতে কচু চাষ করেছেন। কচু চাষের তেমন কষ্ট করতে হয় না বলে তিনি মনে করেন। কচু চাষ করে তিনি কচুরপাতা, লতা, ও কচু বিক্রি করে এ বছর প্রায় ৫ হাজার টাকা আয় করেছেন। আরও কিছু কচু এখনো বিক্রি করা যাবে বলে তিনি জানান।
তিনি বাড়িতে থেকেই সব্জি বিক্রি করেন। বাজারে না গেলেও চলে তাঁর। এভাবে তিনি সারাবছর শাকসব্জি বিক্রি করে যে টাকায় আয় করেন সেটা দিয়ে তিনি ছেলের লেখাপড়ার খরচ ও সংসারের খরচ চালান। তিনি বলেন, ‘জমি অনাবাদি না রেখে শাকসব্জি করলে ভালো আয় করা যায়। ছেলে মেয়েদের টাকার জন্য অপেক্ষা করতে হয় না।’

শাকসব্জি চাষ করে সুজিতা রিছিল তাঁর নিজের ও সংসারের জন্য আয়ের একটা উৎস তৈরি করলো। ফলে এখন যে তাঁর প্রয়োজন মত খরচ করতে পারছেন। তিনি জৈব সার ব্যবহার করে সব্জি করেন বলে তার উৎপাদন খরচ তেমন হয় না। শুধু শ্রমটাই দিতে হয়। এভাবে জৈব পদ্ধতিতে শাকসবজি চাষ করে সুজিতা রিছিল তাঁর ও নিজের সংসারের জন্য একটা ব্যবস্থা করতে পেরেছেন। তাঁর এ কাজ দেখে অন্য নারীরাও অনুপ্রাণিত হবেন বলে তিনি বিশ্বাস করেন।
সুজিতা দেখিয়ে দিয়েছেন যে, ইচ্ছা থাকলে মানুষ কোন না কোনভাবে নিজের একটা পথ নিজেরাই তৈরি করতে পারেন।

happy wheels 2

Comments

%d bloggers like this: