সাম্প্রতিক পোস্ট

প্রতিবন্ধী ব্যক্তি ফারুক সমাজে শিক্ষার আলো ছড়াতে চান

নেত্রকোনা থেকে নুরুল হক

ময়মনসিংহ জেলার তারাকান্দা উপজেলার ভিন্নভাবে সক্ষম যুবক ফারুক। তার দুটি পা নেই। শারীরিকভাবে সক্ষমতা কম। নানান সীমাবদ্ধতা থাকার পনও ফারুক উচ্চ শিক্ষা উচ্চ গ্রহণ করেছেন। ময়মনসিংহের আনন্দমোহন বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ থেকে রাষ্ট্রবিজ্ঞানে এম এ পাশ করেন।

IMG_20180709_143357
তিনি জন্মের পর ভালোই ছিলেন। কিন্তু ধীরে পঙ্গুত্ব বরণ করেন। গরিব পিতামাতার সন্তান ফারুকের পরিবারে আয় রোজগার করার কেউ নেই। তিনি নিজেই আয় রোজগারের নেন। অন্যদিকে শারীরিকভাবে সমস্যা থাকার পরও তিনি নিজে মানবতার একটি উজ্জল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। নিজ চেষ্টায় বাড়িতে গড়ে তোলেন একটি প্রতিবন্ধী শিশু শিক্ষা কেন্দ্র। ৪৫জন শিক্ষার্থী নিয়ে এই অটিজম বিদ্যালয়টি পরিচালনা করছেন তিনি ৬ বছর ধরে।
এই প্রসঙ্গে ফারুক বলেন, ‘আমি শারীরিকভাবে অক্ষম কিন্তু মানসিকভাবে আমার অনেক ইচ্ছে। আমি সকল শিশুকে শিক্ষার আলো দিতে চাই।’

ফারুক হুইল চেয়ারে বসে চলাফেরা করেন। স্কুলে যান। দরজা খোলেন, ক্লাশ নেন, বাজারে যান। সাংসারিক অনেক কাজ তিনি হুইল চেয়ারে বসে করে থাকেন। ভিন্নভাবে সক্ষম ব্যক্তিদের উন্নয়নে তিনি সমাজের বিত্তবানদেরকে সহযোগিতা করার আহ্বান জানান। আমরা শারীরিকভাবে সক্ষম হওয়ার অনেক সময় অন্যের জন্য কোনকিছু করার চিন্তা করিনি। সত্যিই ফারুক যা পারেন আমরা তা পারিনা।

happy wheels 2

Comments

%d bloggers like this: