সাম্প্রতিক পোস্ট

রাজশাহীতে পর্দা উঠলো ৮ম ঋত্বিক চলচ্চিত্র উৎসবের

রাজশাহী থেকে মো. শামীউল আলীম শাওন

জমকালো অনুষ্ঠানের মাধ্যমে রাজশাহীতে পর্দা উঠলো ‘৮ম ঋত্বিক সম্মাননা পদক ও চলচ্চিত্র উৎসব-২০১৯’র। ‘আর্ট মানে আমার কাছে যুদ্ধ’ এ স্লোগানে আয়োজিত হয়েছে এবারের চার দিনব্যাপী উৎসব। আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন বাঙালি চলচ্চিত্রকার ঋত্বিক কুমার ঘটকের ৯৪তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে ৮ম বারের মত এই উৎসবের আয়োজন করা হয়েছে। রাজশাহীর ঋত্বিক ঘটক ফিল্ম সোসাইটি এ উৎসবের আয়োজন করেছে। গত পরশু বিকেলে নগরীর মিয়াপাড়াস্থ ঋত্বিকের পিতৃভিটায় (রাজশাহী হোমিওপ্যাথিক মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল) এ উৎসবের উদ্বোধন করা হয়েছে।

IMG_3559

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে চলচ্চিত্রে বিশেষ অবদান রাখায় ভারতের কোলকাতাস্থ সত্যজিৎ রায় ফিল্ম অ্যান্ড টেলিভিশন ইন্সটিটিউটের প্রফেসর ও চলচ্চিত্র নির্মাতা শ্যামল কর্মকার, শিক্ষক, সংগঠক ও চলচ্চিত্র নির্মাতা জাহিদুর রহিম অঞ্জন, চলচ্চিত্র নির্মাতা আকরাম খান এবং গবেষক ও নাট্যব্যক্তিত্ব কাজী সাইদ হোসেন দুলালকে ঋত্বিক সম্মাননা পদক প্রদান করা হয়েছে।

বিগত ২০১১ সাল থেকে চলচ্চিত্রের বিভিন্ন ক্ষেত্রে অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে ‘ঋত্বিক সম্মাননা পদক’ প্রদান করা হচ্ছে। ২০১১ সাল থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত দেশ-বিদেশের প্রায় ২৬ জনেরও বেশি বিশিষ্ট ব্যক্তিকে ঋত্বিক সম্মাননা পদক প্রদান করা হয়েছে। ঋত্বিক ঘটক ফিল্ম সোসাইটি রাজশাহীর পক্ষ থেকে এই সম্মাননা পদক প্রদান করা হয়।

IMG_3669

রাজশাহীস্থ ভারতীয় সহকারী হাই কমিশনার সঞ্জীব কুমার ভাটি, কবি ও শিক্ষাবিদ অধ্যাপক রুহুল আমিন প্রামাণিক, লেখক ও শিক্ষাবিদ ড. তসিকুল ইসলাম রাজা এবং রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় চলচ্চিত্র সংসদের সভাপতি ড. সাজ্জাদ বকুল সম্মানিত অতিথি হিসেবে ‘৮ম ঋত্বিক সম্মাননা পদক ও চলচ্চিত্র উৎসব-২০১৯’র উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ঋত্বিক ঘটক ফিল্ম সোসাইটির সভাপতি ডা. এফএমএ জাহিদ। স্বাগত বক্তব্য দেন, ঋত্বিক ঘটক ফিল্ম সোসাইটির উৎসব পরিচালক, চলচ্চিত্র নির্মাতা আহসান কবীর লিটন ও ঋত্বিক ঘটক ফিল্ম সোসাইটির সাধারণ সম্পাদক নাট্যব্যক্তিত্ব মাহমুদ হোসেন মাসুদ।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের শুরুতেই সঙ্গীতশিল্পী রাকিবুল হাসান রবিনের সঙ্গীতায়জনে ‘১৯৪৭ সালের বঙ্গভঙ্গের প্রেক্ষাপট’ অবলম্বে বিশেষ নৃত্য পরিবেশন করেন রাজশাহীর নৃত্য শিল্পীগোষ্ঠী ধ্রুপদালোকের নৃত্যশিল্পীরা।

IMG_3513

চার দিনব্যাপী উৎসবের অংশ হিসেবে আজ মঙ্গলবার থেকে নগরীর শাহমখুদম কলেজ শিক্ষক মিলনায়তনে উত্তরবঙ্গের চলচ্চিত্র শিল্পের প্রতিনিধিদের অংশগ্রহণে ‘বাংলাদেশের চলচ্চিত্র সংসদ আন্দোলনের ভবিষ্যৎ রূপরেখা’ শীর্ষক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

এদিকে আগামী ৫-৭ নভেম্বর প্রতিদিন সন্ধ্যা ৬টা হতে রাত ৮টা পর্যন্ত পদ্মানদীর তীরবর্তী নগরীর পাঠানপাড়াস্থ লালন শাহ্ মুক্তমঞ্চ প্রাঙ্গনে দেশ-বিদেশের জনপ্রিয় চলচ্চিত্র প্রদর্শিত হবে।

happy wheels 2

Comments

%d bloggers like this: