সাম্প্রতিক পোস্ট

কর্মশক্তি মানুষকে স্বনির্ভর ও দায়িত্বশীল করে

মানিকগঞ্জ থেকে আছিয়া আক্তার ও মো. নজরুল ইসলাম

‘নারী পুরুষর বৈষম্য রোধ করি,নারীবান্ধব সমাজ গড়ি’-এই স্লোগানকে সামনে রেখে বারসিক মানিকগঞ্জ জেলার সিংগাইর অঞ্চলসহ জেলার বিভিন্ন স্থানে সমাজে পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীকে উন্নয়নের মূলধারায় ও সচেতন শ্রেণীকে আরো দায়িত্ববান ভূমিকা পালনের লক্ষ্যে নারীবান্ধব গণতান্ত্রিক সমাজের জন্য বহুত্ববাদী সাংস্কৃতিক মানুষ বিনির্মাণে কাজ করছে নিরলসভাবে।

IMG_20191117_151852
তারই ধারাবাহিকতায় গতকাল এই সংগঠনের উদ্যোগে মানিকগঞ্জ সিংগাইর অঞ্চলে বাইমাইল মোল্লাপাড়ায় নাসরিন বেগমের বাড়িতে বাল্য বিয়ে, নারী নির্যাতন রোধে এবং নারীর ক্ষমতায়নের লক্ষ্যে সরকারি ও বেসরকারি সেবা পাওয়ার উপায় শীর্ষক সংলাপ ও মতবিনিময় অনুষ্ঠিত হয়েছে।

IMG_20191117_154418
সংলাপ ও মতবিনিময় সভায় নারী নেত্রী ও উন্নয়নকর্মী জাহানারা বেগমের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বায়রা ইউনিয়ন পরিষদের প্যানেল চেয়াম্যান ও নারীনেত্রী নাসরিন বেগম। অনুষ্ঠানে আরও বক্ত্য রাখেন কৃষক নেতা আখতারুজ্জামান, বাইমাইল নারী উন্নয়ন সমবায় সমিতির সম্পাদক বাসন্তি রাণী দাস, তানিয়া আক্তার প্রমুখ।

IMG_20191117_155200
আলোচনায় বক্তারা বলেন, ‘আমাদের দেশের সাধারণ মানুষ শুধু দরিদ্রসীমার মধ্যে নয় বরং এখনো তার জীবন ও সমাজ সম্পর্কে তার অধিকার ও চাহিদা সম্পর্কে শতভাগ সচেতন নয় এবং সচেতনতার অনেক নিম্নসীমায় আমরা বসবাস করছি। বিশেষ করে প্রান্তিক মানুষ নারী সমাজকে উন্নয়ণের মূলধারায় প্রবেশাধিকারে জন্য সরকারি ও বেসরকারিভাবে বিভিন্ন সেবা ও সামাজিক নিরাপত্তা বেস্টনীর মধ্যে আগলে রাখার চেষ্ঠা করছে।’

বক্তারা আরও বলেন, ‘আমরা শুধু বয়স্ক ভাতা, বিধরা ভাতা, মাতৃত্বকালীন ভাতা নিয়েই মাতামাতি করছি এবং বাইরেও স্বাস্থ্যগত সেবা, বিদেশে যাওয়া ও আসা বিষয়, ব্যাংকিং সেবাসহ অসংখ্য সেবা দিয়ে থাকে সরকার ও বেসরকারি সংগঠন আমাদের যতটুক প্রয়োজন সেইটুক গ্রহণ করব। অন্যের হক নষ্ট করব না কেউ করলে আমরা সাংগঠনিকভাবে মোকাবেলা করব। তবেই আমরা স্বনির্ভর ও দায়িত্ব নিয়ে সমাজে অবদান রাখতে পারব।’

happy wheels 2

Comments

%d bloggers like this: