সাম্প্রতিক পোস্ট

অচাষকৃত উদ্ভিদগুলোকে অবহেলা না করে সংরক্ষণ করি

মদন, নেত্রকোনা থেকে সুয়েল রানা ও সুমন তালুকদার

গত ১৪ ও ১৯ জানুয়ারি ২০২১ নেত্রকোনা জেলার মদন উপজেলার মদন ইউনিয়নের উচিতপুর ও হাওর অধ্যুষিত গোবিন্দশ্রী ইউনিয়নের গোবিন্দশ্রী গ্রামের কৃষক-কৃষাণী, কিশোর-কিশোরী ও যুবদের উদ্যোগে হাওরাঞ্চলে প্রাকৃতিকভাবে উৎপাদিত অচাষকৃত খাদ্য উদ্ভিদের পৃথক দু’টি মেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে। রাসায়নিক সার ও কীটনাশকমুক্ত উপায়ে হাওরাঞ্চলে প্রাকৃতিকভাবে বেড়ে ওঠা অত্যন্ত পুষ্টি সমৃদ্ধ, সুস্বাদু ও নিরাপদ খাদ্য উদ্ভিদ সম্পর্কে বর্তমান প্রজন্মকে জানানো এবং এসব খাদ্য উদ্ভিদ সংরক্ষণ ও খেতে তাদেরকে উদ্বুদ্ধ করতেই এই মেলার আয়োজন করা হয়। পৃথক দু’টি মেলায় দু’টি ইউনিয়নের প্রায় দুই শতাধিক কৃষক-কৃষাণী, কিশোর-কিশোরী, প্রবীণ ও যুবরা অংশগ্রহণ করে।

১৪ জানুয়ারি ইউনিয়নের চারটি জনসংগঠনের উদ্যোগে উচিতপুর গ্রামের মো. আরব আলী তালুকদারের বাড়ির উঠানে মদন ইউনিয়নের ৬টি গ্রামের (উচিতপুর, দক্ষিণ মদন, শান্তিপাড়া, কুলিয়াটি, আরগিলা, মদন গুচ্ছগ্রাম) ৬০ জন কৃষক-কৃষাণী, কিশোর-কিশোরী, প্রবীণ ও যুবরা অংশগ্রহণ করেন। ৬টি গ্রামের ২০ জন কৃষাণী নিজ নিজ এলাকায় প্রাকৃতিকভাবে উৎপাদিত ও অচাষকৃত বৈচিত্র্যময় খাদ্য উদ্ভিদ নিয়ে ২০টি স্টলে প্রদর্শন করেন। উচিতপুর গ্রামের মেলায় সর্বোচ্চ ৩৪ জাতের অচাষকৃত খাদ্য উদ্ভিদ প্রদর্শিত হয়। উচিতপুর গ্রামের প্রবীণ কৃষক আরব আলী তালুকদার (সাবেক মেম্বার) মেলার উদ্বোধন করেন। মেলা উপলক্ষে আলোচনা সভায় আলোচক হিসেবে অংশগ্রহণ করে বারসিক’র আঞ্চলিক সমন্বয়কারী অহিদুর রহমান, আরব আলী তালকদার (সাবেক মেম্বার), যুব নেতা মো. আব্দুল কাইয়ুম তালুকদার, রহিমা বেগম, কৃষক সিদ্দিকুর রহমান প্রমূখ।


১৯ জানুয়ারি হাওর অধ্যুষিত গোবিন্দশ্রী ইউনিয়নের খালাসীপাড়া গ্রামে অনুষ্ঠিত অচাষকৃত খাদ্য উদ্ভিদের মেলাটি উদ্বোধন করেন এলাকার অত্যন্ত সন্মানিত ব্যক্তি গোবিন্দশ্রী ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ইফতে খাইরুল আলম খান আজাদ চৌধুরী। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ডের মেম্বার সাদেক মিয়া। মেলায় ইউনিয়নের ৯টি গ্রামের (খালাসীপাড়া, মাদ্রাসাপাড়া, ইছাপাড়া, সরকারহাটি, বারইপাড়া, গুচ্ছগ্রাম, বড্ডা, পশ্চিমহাটি, দাসপাড়া) কৃষক-কৃষাণী, কিশোর-কিশোরী, প্রবীণ ও যুবরাসহ প্রায় দেড় শতাধিক লোক অংশগ্রহণ করে। অংশগ্রহণকারীরা গোবিন্দশ্রী হাওরাঞ্চলে প্রাকৃতিকভাবে জন্মানো এবং নিজেদের চাষকৃত সবজি ফসলের ২৪টি স্টল প্রদর্শন করেন। স্টলে সর্বোচ্চ ৪৯টি অচাষকৃত ও চাষকৃত খাদ্য উদ্ভিদ ও সবজি প্রদর্শিত হয়। মেলার সার্বিক দায়িত্ব পালন করে গোবিন্দশ্রী ধান-সদী-হাওর যুব সংগঠন ও তলার হাওর কৃষক সংগঠন।

মেলায় স্টল প্রদর্শনীর পাশাপাশি এক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। তলার হাওর কৃষক সংগঠনের সভাপতি মো. আব্দুল হান্নান এর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে অংশগ্রহণ করেন ইফতে খাইরুল আলম খান আজাদ চৌধুরী। সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মেম্বার সাদেক মিয়া, মিনারা আক্তার, বারসিক’র প্রতিনিধি সুমন তালুকদার, যুব নেতা সালমান হোসেন প্রমূখ। আলোচনা সভা শেষে শ্রেষ্ঠ স্টল নির্বাচন করা হয় এবং শ্রেষ্ঠ স্টল প্রদর্শনের জন্য প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থান অর্জনকারীদের বৈচিত্র্যময় ফলের চারা পুরস্কার প্রদান করা হয়। এছাড়াও সকল স্টল প্রদর্শনকারীদেরকেও ফলদ গাছের ছাড়া দিয়ে পুরস্কৃত করা হয়।

দু’টি ইউনিয়নে পৃথক দু’টি মেলা আয়োজনের ফলে অংশগ্রহণকারী প্রবীণ কৃষক-কৃষণীদের প্রদর্শিত স্টল ও আলোচনা অনুষ্ঠানের মাধ্যমে হাওরাঞ্চলের বর্তমান প্রজন্মের কৃষক-কৃষাণী, কিশোর-কিশোরী, শিশু, ও যুবরা হাওরাঞ্চলের প্রাকৃতিকভাবে উৎপাদিত অচাষকৃত খাদ্য উদ্ভিদের সাথে পরিচিত হতে পেরেছে এবং এসব খাদ্য উদ্ভিদের পুষ্টিগুণ, খাদ্য নিরাপত্তায় ও স্বাস্থ্য সুরক্ষায় এসব উদ্ভিদের গুরুত্ব সম্পর্কে জানতে পেরেছে। অংশগ্রহণকারীরা হাওরাঞ্চলে জন্মানো এসব উদ্ভিদকে অবহেলা না করে এগুলো সংরক্ষণ করে নিয়মিত খাবারের তালিকায় রেখে উদ্ভিজ খাদ্যের জন্য বাজার নির্ভরশীলতা হ্রাসের আগ্রহ প্রকাশ করেছে।

happy wheels 2

Comments

%d bloggers like this: