সাম্প্রতিক পোস্ট

উন্নত দেশ গড়তে যুব সমাজের ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ

সাতক্ষীরা হতে পার্থ সারথী পাল

বারসিক শ্যামনগর রিসোর্স সেন্টারের সহযোগিতায় বিশ্ব যুব দিবস-২০২১ উপলক্ষে গতকাল একটি অনলাইন আলোচনা সভার আয়োজন করে শ্যামনগরের যুব সংগঠন সিডিও এবং সুন্দরবন স্টুডেন্টস সলিডারিটি (এসএসএসটি)। আলোচনার মূল প্রতিপাদ্য বিষয় ছিলো “খাদ্য ব্যবস্থার রূপান্তর ও যুব সমাজের সক্রিয় ভূমিকা। আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন শ্যামনগর উপজেলার যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা আজিজুল রহমান। অনলাইন সভায় যুব সেচ্ছাসেবী সংগঠন সিডিও, সুন্দরবন স্টুডেন্ট সলিডারিটি টিম, আমরা বন্ধু ফাউন্ডেশন এর প্রতিনিধী এবং বারসিকের বিভিন্ন স্তরের কর্মী সহ প্রায় ৩৫ জন অংশগ্রহণ করেন।

বারসিক এ কর্মরত যুব সংগঠক ফজলুল হকের সঞ্চালনায় বারসিক আঞ্চলিক সমন্বয়কারী পার্থ সারথী পালের স্বাগত বক্তব্যর মাধ্যমে আলোচনা অনুষ্ঠান শুরু হয়।  খাদ্য দিবস-২০২১ এর জন্য বারসিক এর মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বারসিক কর্মী এবং যুব নারী রুবিনা পারভীন।

প্রধান অতিথি উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা তার আলোচনায় বলেন, উন্নত দেশ গড়তে যুব সমাজের ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ বর্তমানে জাতীয় পর্য়ায়ে যুব সমাজের মতামতকে প্রাধান্য দেয়া হচ্ছে। যুবদের ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র উদ্যোগ নিয়ে বড় উদ্যোক্তা হিসাবে গড়ে উঠতে হবে।’

আলোচনায় অংশ নিয়ে অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারীরা মূলত খাদ্য উৎপাদন থেকে শুরু করে পরিবেশন এর নানা পর্যায়ে যুবরা নিজেদের কিভাবে দেখতে চায়, এখানে সে কি ভূমিকা পালন করতে চায় বা করছে, কাজ করতে গিয়ে যুবরা কি কি সমস্যার মুখোমুখি হয়, এসব সমস্যা কাটাতে তাদের প্রস্তাবগুলো কি কি, খাদ্য ব্যবস্থায় যুবরা নিজেদের যুক্ত করতে না চাওয়ার কারণ এবং নিরাপদ খাদ্যব্যবস্থা শক্তিশালীকরলে তরুণদের নিজস্ব অভিনব সৃজনশীল এলাকা উপযোগী পরামর্শ কি হতে পারে সে বিষয়ে আলোচনা করেন।

আলোচনা সভায় যুবরা যেসব দাবি এবং মতামত তুলে ধরেছেন তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো: উদ্যোগী যুবদের এলাকাউপযোগী বিভিন্ন বিষয়ে  উপযুক্ত  প্রশিক্ষন প্রদান করতে হবে, প্রশিক্ষণ পরবর্তী সরকারি  প্রনোদনা এবং  সহজ শর্তে ব্যাংক ঋনের ব্যাবস্থা করা দরকার, নিরাপদ খাদ্য বাজারজাতকরণের ব্যাবস্থা গড়ে তুলতে যুবদের সহযোগিতা করা, নিরাপদ/ভেজালমুক্ত বাজার গড়তে সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষের আন্তরিকতার সাথে কাজ করা, অর্গানিক বা নিরাপদ কৃষি পন্য ক্রয় বিক্রয় কেন্দ্র গড়ে তোলা, কৃষি পণে্যর উপযুক্ত বাজার মূল্য নির্ধারণ করা, উপজেলা অফিসে যুব/ কৃষি/ খাদ্য বিভাগে যুব প্রতিনিধি রাখা এবং কৃষি উৎপাদন ব্যাবস্থায় জৈব সার ও কীটনাশকের ব্যাবহার বৃদ্ধিতে পদক্ষেপ নেয়া ইত্যাদি।

happy wheels 2

Comments

%d bloggers like this: