সাম্প্রতিক পোস্ট

সুবিধাবঞ্চিত মানুষের পাশে রাজশাহীর তরুণরা

রাজশাহী থেকে তহুরা খাতুন লিলি
‘হেল্প পিপল’ তরুণ সংগঠনের উদ্যোগে সম্প্রতি করোনাকালীন এই সময়ে দরিদ্র ও প্রান্তিক মানুষের একবেলা খাওয়ার ব্যবস্থা আয়োজন করা হয়। এই উদ্যোগের ফলে এলাকার দরিদ্র মানুষগুলো এক বেলা হলেও পেটপুড়ে খেতে পারেন এতেই তরুণরা তৃপ্তি পান। রাজশাহীর তরুণরা তাদের এই উদ্যোগকে ‘দুই টাকার হোটেল’ ব্যানারে নামমাত্র দামে ( দুই টাকা) এসব মানুষকে খাওয়ানোর উদ্যোগ নেন।


এর আগে গত ৪ অক্টোবর এই ‘দুই টাকার হোটেল’ এর ব্যানারে তরুণরা এসব দরিদ্র মানুষকে প্রথমবারের মতো আাপ্যায়ন করেছিলো হয়েছিল। প্রথমবারের অনুপ্রেরণা থেকে গত ৭ নভেম্বর রাজশাহী রেল ষ্টেশনে তারা দ্বিতীয় আপ্যায়ন আয়োজন করেছে। এই দ্বিতীয় আপ্যায়নে ২০৯ জন দরিদ্র নারী, পুরুষ ও শিশুকে নামমাত্র দামে বিরিয়ানী খাওয়ান এই তরুণরা। তাদের সংগঠন ‘হেল্প পিপল’ এর মাধ্যমে এই তরুণরা সামনের দিনগুলোতেও এ ধরনের আয়োজন করবে বলে জানান।


এই প্রসঙ্গে সংগঠনের সভাপতি আল রসিদ রাহী বলেন, ‘দুই টাকা নেবার উদ্দেশ্য ছিলো এটাই যেন দাতা ও গ্রহীতার মাঝে সর্ম্পকটা সমান থাকে। তারা সুবিধাবঞ্চিত মানুষ হতে পারেন তাই বলে আমরা তাদের আত্মসম্মাননটা অমর্যাদা করতে পারি না। এটি দুঃস্থ মানুষের জন্য আয়োজন করা। আগামীতে দুই টাকার হোটেলটি প্রতি সপ্তাহে একবার করে করার ইচ্ছা আছে।’


উল্লেখ্য, ‘হেল্প পিপল’ রাজশাহী শহরের একটি সামাজিক সংগঠন, যার প্রধান উদ্দেশ্য তরুণদের ভালো কাজের চর্চার অভ্যাস গড়ে তোলা। সুবিধা বঞ্চিতদের সেবার মাধ্যমে মানবিক সমাজ গঠন করা। তাই তো দেখা গেছে, সমাজের বিভিন্ন পর্যায়ের মানুষের কষ্টে ছুটে গেছে হেল্প পিপল এর সদস্যরা। এই সংগঠনের প্রধান কার্যক্রমের মধ্যে রয়েছে ১. সুবিধা বঞ্চিত দরিদ্র রোগীদের চিকিৎসা সহায়তা ও প্রয়োজনে রক্ত দান করা ২.পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় বৃক্ষ রোপণ করা ৩. অসহায় ও দুর্যোগ কবলিতদের ত্রাণ সহযোগিতা করা। সুবিধাবঞ্চিত মানুষের সেবা করার জন্য এই সংগঠনের সদস্যরা নিজেদের মধ্যে চাঁদা তুলেন এবং বিত্তবান মানুষের কাছ থেকে বিভিন্ন ধরনের সহযোগিতা দেওয়ার আহ্বান জানান।

happy wheels 2

Comments

%d bloggers like this: