সাম্প্রতিক পোস্ট

সবাই রক্তের গ্রুপ জানবো, মৃত্যু ঝুঁকি কমাবো

মানিকগঞ্জ থেকে সুবীর কুমার সরকার এবং ঋতু রবি দাস
‘স্বাস্থ্যসেবার মানোন্নয়নে চাই সমতা, জবাবদিহিতা ও অংশগ্রহণ’ এই উদ্দেশ্যকে সামনে রেখে গতকাল তেরশ্রী ডিগ্রি কলেজের মিলনায়তনে ৭৪ জন এর রক্তের গ্রুপ নির্ণয় করা হয়। উপজেলা স্বাস্থ্য অধিকার যুব ফোরাম এর আয়োজনে এবং হেলথ ওয়াচ এবং বারসিক এর সহযোগিতায় হেলথ ক্যাম্পটি করা হয়।


প্রধান অতিধি হিসেবে বক্তব্য রাখেন পয়লা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হারুন অর রশিদ। তিনি বলেন, আমি অনেক বেশি আনন্দিত যে আজকের শিক্ষার্থীরা এই ক্যাম্প এর আয়োজন করেছে। এর সাথে বারসিক‘কে’ ধন্যবাদ তারা গ্রামাঞ্চলে এই ধরনের প্রোগ্রাম করেছে। এই রক্তের গ্রুপ পরীক্ষা করতে গেলে মানুষের কত ভোগান্তি হতো, আর তোমাদের সুবিধার কথা ভেবেই বারসিক এই আয়োজন করেছে।’ তিনি আরও বলেন, অতীতের তুলনায় বাংলাদেশ স্বাস্থ্যখাতে অনেক উন্নতি করেছে। প্রধানমন্ত্রীর নিরলস প্রচেষ্টায় বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে। আমার মনে হয় শিক্ষার্থীরা অন্যান্য জনগণের চাইতে সচেতন। তাই বারসিক এর কাছে অনুরোধ এই ধরনের প্রোগ্রাম জনবহুল স্থানে করার।


বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন তেরশ্রী ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ নুরুুল ইসলাম। তিনি বলেন, আজ আমি সত্যিই অনেক আনন্দিত যে আমার শিক্ষার্থীরা মানুষ হয়েছে। তারা মানব সেবার জন্য নিজেকে নিয়োজিত করেছে। ঘিওর উপজেলা স্বাস্থ্য অধিকার ফোরামের সাধারণ সম্পাদক মোঃ দেলোয়ার খান বলেন, একটা রেজিস্টার খাতায় সদস্যদের নামের তালিকা ও রক্তের গ্রুপ উল্লেখ থাকবে যাতে কারো রক্তের প্রয়োজন হলে সহজে রক্তের গ্রুপ জানা যায়।


পয়লা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এর রক্তের গ্রুপ পরীক্ষা করে গ্রুপিং শুরু হয়। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন মো. মনোয়ার হোসেন, মানিকগঞ্জ জেলা স্বাস্থ্য অধিকার ফোরাম। অনূষ্ঠানে অরো উপস্থিত ছিলেন বারসিক সহযোগী কর্মসূচি কর্মকর্তা সুবীর কুমার সরকার ও কমিউনিটি ফেসিলিটেটর ঋতু রবিদাস। রক্তের গ্রুপ পরীক্ষা করেন নার্স জ্যোতি রবিদাস।

happy wheels 2

Comments

%d bloggers like this: