সাম্প্রতিক পোস্ট

নতুন যুগের ঊষার আলো ঐ তো দেখা যায়: নেত্রকোনা ডিবেট এসোসিয়েশন

নেত্রকোনা থেকে ফরিদুর রেজা খান এবং আওলাদ হোসেন রনি

‘জ্ঞান যেখানে সীমাবদ্ধ, বুদ্ধি সেখানে আড়ষ্ট, মুক্তি সেখানে অসম্ভব’ বুদ্ধির মুক্তি আন্দোলনের কর্মীরা এই স্লোগানকে সামনে রেখে ভারতবর্ষে আলোড়ন তুলেছিলেন। জ্ঞানের এই সীমাবদ্ধতাকে দূর করতে হলে যুক্তিই প্রধান হাতিয়ার। আর এই যুক্তিকে অবলম্বন করেই কালে কালে সমাজের অগ্রসর মানুষ সমাজ পরিবর্তনের পথকে সুগম করেছেন। প্রাচীন দার্শনিক সক্রেটিস যে পদ্ধতিতে শিক্ষা প্রদান করতেন তাকে হাল আমলের শিক্ষাবিদরাও এই যুক্তিবাদী পদ্ধতি বলেই অভিহিত করছেন। দুনিয়া কাঁপানো দার্শনিক মার্কস-এঙ্গেলস ও কিন্তু এই ‘দ্বান্দিক বস্তুবাদ’ এর উপরেই জোর দিয়েছেন। এখানেই শুধু নয় ভারতীয় প্রাচীন ন্যায়শাস্ত্রও কিন্তু একথাই বলে। এতো উদাহারণ দেয়ার একটাই কারণ আর তা হলো- যুক্তি। যুক্তির কাছে পরাস্ত মানুষ সত্যিকার অর্থেই পরাস্ত। আর যুক্তির মধ্য দিয়ে যে বিদ্যা আজ সারা পৃথিবীতে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে তার নাম- বিতর্ক। আমাদের কাছে সুদূর এবং অদূর অতীতের এমন অনেক উদাহারণ রয়েছে। তাই একটি সজীব, প্রাণবন্ত, প্রগতিশীল সমাজ বিনির্মাণে ‘বিতর্ক’ বিদ্যার গুরুত্ব বলা বাহুল্য। বিতর্কের মধ্য দিয়ে মানুষ যেমন নিজের যুক্তি উপস্থাপনের সুযোগ পায় তেমনি সুযোগ পায় অন্যের যুক্তি খন্ডনেরও। যে কারণে অন্যের প্রতি সহানুভূতিশীল, পরমত সহিষ্ণু, সংবেদনশীল সমাজ গঠনে শিক্ষার্থীদের মধ্যে ‘বিতর্ক’ বিদ্যার প্রসার জরুরি।

37590461_2072181973030792_6404581873753784320_n
এই জরুরতাকে উপলব্ধি করেই নেত্রকোনার কয়েকজন তরুণ, শিক্ষাবিদ, সংগঠক একত্রিত হয়েছেন ‘বিতর্ক বিদ্যার’ প্রসারে। তাঁরা একত্রিত হয়ে গড়ে তুলেছেন ‘নেত্রকোনা ডিবেট এসোসিয়েশন’। উদ্দেশ্য নেত্রকোনার প্রকৃতি-পরিবেশকে আমলে নিয়ে সারা নেত্রকোনায় শুদ্ধ বিতর্কের প্রসার ঘটানো। সে লক্ষ্যে নেত্রকোনা ডিবেটিং ক্লাব, নেত্রকোনা ডিবেট একাডেমিও গড়ে তুলছেন তাঁরা। আশা করা যাচ্ছে- এই সংগঠনের আত্মপ্রকাশের মধ্য দিয়ে সারা বাংলাদেশে একটি ব্যতিক্রম দৃষ্টান্ত স্থাপন হতে পারে।

37602582_2072181893030800_1451885588146814976_n
বাংলাদেশের জাতীয় পর্যায়ের কোন একটি সংগঠনের কোন একজন চেয়ারম্যান ঠাট্টাচ্ছলে বলেছিলেন, ‘নেত্রকোনার মানুষ তো খেয়ে-পড়েই বাঁচে না, বিতর্ক করবে কখন’। হয়তো তাঁর কথাটা সত্য। কিন্তু তা সত্যের একপিঠ মাত্র। সত্যের অন্য পিঠের একটু দেখাতে সমর্থ হয়েছেন- নেত্রকোনা’র নবীন এবং প্রবীণ বিতর্কবোদ্ধারা।
সংগঠনের আত্মপ্রকাশ ঘটবে আগামী আগস্ট মাসে। নেত্রকোনা বিতর্ক উৎসব-২০১৮ আয়োজনের মধ্য দিয়ে। এ আয়োজনে নেত্রকোনার কলেজ-স্কুল এমনকি প্রাইমারি স্কুলের শিক্ষার্থীদের বিতর্ক, প্রতিষ্ঠিত বিতার্কিকদের ‘মডেল’ বিতর্ক এবং বিতর্ক বিষয়ক সেমিনার থাকবে। থাকবে বিতর্ক বিষয়ে আনুষ্ঠানিক প্রশিক্ষণ। দিনব্যাপী এ আয়োজনে বিতর্কের ক্ষেত্রে যুগান্তকারী এক ভুবনে পা দেবে নেত্রকোনা। আয়োজকদের এমনটাই বিশ্বাস।

37604952_2072182033030786_4073183980927582208_n
এ ব্যাপারে নেত্রকোনা ডিবেট একাডেমীর অধ্যক্ষ অধ্যাপক নাজমুল কবীর সরকার বলেন, “আমরা নেত্রকোনায় দীর্ঘদিন যাবৎ একটি বিতর্ক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অভাব বোধ করছিলাম। আমরা যা পারিনি, আমাদের ছেলেমেয়েরা তা করে দেখিয়েছে। ইতিমধ্যেই আমাদের ছেলেমেয়েরা জাতীয় পর্যায়ে ডিবেট করে এসেছে। নেত্রকোনায় শুদ্ধ বিতর্ক শিক্ষার জন্য সত্যিই একটি প্রতিষ্ঠান জরুরি ছিলো। আমার বিশ্বাস এই প্রতিষ্ঠানটি সে অভাব কিছুটা হলেও পূরণ করতে সমর্থ হবে।”

happy wheels 2

Comments

%d bloggers like this: