সাম্প্রতিক পোস্ট

গোদাগাড়িতে রাস্তায় জেব্রা ক্রসিং এর দাবি জানালো সোনাদিঘি স্কুলের শিক্ষার্থীরা

রাজশাহী থেকে মো. জাহিদ আলী

বারসিক আয়োজিত নিরাপদ সড়ক ও যোগাযোগ বিষয়ক সচেতনতামূলক আলোচনায় গতকাল রাস্তায় জেব্রা ক্রসিং করার দাবি জানায় সোনাদিঘী স্কুলের শিক্ষার্থীরা। অংশগ্রহণমূলক আলোচনায় শিক্ষার্থীদের যাত্রী ও পথচারী হিসাবে ট্র্যাফিক সিগনাল কিভাবে মেনে চললে দূর্ঘটনার শিকার থেকে মুক্ত থাকা যায় সে বিষয়ে আলোচনা করেন বারসিক প্রতিনিধি জাহিদ আলী ।

IMG_0340

আলোচনায় নবম শ্রেণীর ছাত্রী তানিয়া খাতুন বলে, “আমাদের স্কুলটির পাশে দিয়ে মহাসড়ক থাকায় দুর্ঘটনার ঝুকি নিয়ে আমরা স্কুলে আসি। স্কুলের সামনে স্পিড ব্রেকার বা জেব্রা ক্রসিং না থাকায় গাড়িগুলো দ্রুত চলাচল করা করে। আমাদের দাবি এ স্কুলের সামনে একটি জেব্রা ক্রসিং দেয়া হোক।” স্কুলের অপর একজন শিক্ষার্থী ইসমত আরা বলে, “মহাসড়কে গাড়িগুলো এত দ্রুত যায় যে প্রায় কুকুর, বিড়াল, ইদুরের মতো প্রাণীগুলো রাস্তায় মরে পড়তে থাকতে দেখা যায়। গাতির গতি সীমিত রাখার কোন সাইনবোর্ড না থাকায় এইখানে দ্রুত বেগে গাড়ি চলাচল করে।”

IMG_0353
সোনাদিঘি স্কুলের প্রধান শিক্ষক মাইনুল ইসলাম জানান, গোদাগাড়ী উপজেলার মহাসড়কে মাটিকাটা ডিগ্রি কলেজের সামনে যেমন ছোট ছোট আকারের স্পিড ব্রেকার দেয়া হয়েছে তেমনটি যদি এই স্কুলের সামনে কর্তৃপক্ষ দেয় তাহলে এইখানে দুর্ঘটনার ঝুঁকি কম থাকবে। শিক্ষার্থীদের রাস্তা পারাপারে সহজ হয়।

IMG_0337
রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলার মাটিকাটা ইউপির সোনাদিঘি উচ্চ বিদ্যালয়, রাজশাহী চাঁপাই নবাবগঞ্জ মহাসড়কের পাশ ঘেঁষে সোনাদিঘি স্কুলের অবস্থান। সোনাদিঘি উচ্চ বিদ্যালয়ের পাশে সোনাদিঘি প্রাথমিক বিদ্যালয়। সোনাদিঘির এই দুটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পড়াশোনা করেন আশেপাশের কয়েক গ্রামের ৫ শতাধিক শিক্ষার্থী। শিক্ষার্থীদের সাথে আলোচনায় জানা যায়, তারা সর্ব্বোচ্চ আড়াই কিলোমিটার দুর থেকে এই স্কুলে পড়তে আসেন। রাস্তা পারাপারে শিক্ষার্থীদের ঝুকি নিয়ে তারা প্রতিদিন স্কুলে আসেন।

happy wheels 2

Comments

%d bloggers like this: