সাম্প্রতিক পোস্ট

জ্যেষ্ঠ নাগরিক ও শারিরিক প্রতিবন্ধীতা বিষয়ে প্রশিক্ষণ কর্মশালা

জ্যেষ্ঠ নাগরিক ও শারিরিক প্রতিবন্ধীতা বিষয়ে প্রশিক্ষণ কর্মশালা

নেত্রকোনা থেকে গুঞ্জন রেমা
বারসিক রামেশ্বরপুর রিসোর্স সেন্টারে তিনদিন ব্যাপি অর্থাৎ ৭-৯ অক্টোবর ২০১৮ তারিখ পর্যন্ত জ্যেষ্ঠ নাগরিক ও শারিরিক প্রতিবন্ধীতা বিষয়ে প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। প্রশিক্ষণটি পরিচালনা করেন বারসিক এর সমন্বয়কারী সৈয়দ আলী বিশ্বাস। প্রশিক্ষণে বারসিক এর মোট ৪ টি কর্মএলাকা (রাজশাহী, সাতক্ষীরা, মানিকগঞ্জ ও নেত্রকোনা) কর্মীরা অংশ নেন। এছাড়াও যুব সংগঠনের যুব প্রতিনিধিও উপস্থিত ছিলেন।

জ্যেষ্ঠ নাগরিক বিষয়ে প্রশিক্ষক হিসেবে ছিলেন মো. সাইদুর রহমান সাধারণ সম্পাদক, প্রবীণ হিতৈসী সংঘ’ নেত্রকোনা। আর প্রতিবন্ধীতা বিষয়ে প্রশিক্ষক হিসেবে ছিলেন মো: গোলাম মোস্তফা, অধ্যক্ষ রাজুরবাজার কলেজিয়েট স্কুল এন্ড কলেজ নেত্রকোনা ও মিসেস: শিল্পী বিশ্বাস, স্বাবলম্বী উন্নয়ন সমিতি।

20181008_093520প্রশিক্ষণের ১ম দিন: ১মদিন প্রশিক্ষণের শুরুতে প্রশিক্ষণের উদ্দেশ্যাবলী উপস্থাপন করেন বারসিক এর সমন্বয়কারী সৈয়দ আলী বিশ্বাস । এর পর প্রবীণ নীতিমালা ও আইন বিষয়ে আলোচনা করেন নেত্রকোনা প্রবীণ হিতৈসী সংঘ এর সাধারণ সম্পাদক সাইদুর রহমান। ১মদিনের ২য় অধিবেশনে বারসিক এর ৪টি কর্মএলাকার মার্চ থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত প্রবীণ বিষয়ক কর্মপরিকল্পনার সম্পাদিত কর্মসূচীর অগ্রগতি সম্পর্কে উপস্থাপন করা হয়। একে একে মানিকগঞ্জ, সাতক্ষীরা, রাজশাহী ও নেত্রকোনা অঞ্চল তাদের নিজ নিজ কর্মএলাকায় সম্পাদিত কর্মসূচী সমূহ তুলে ধরেন। কর্মসূচী সমূহের বাস্তবায়ন কৌশল বা পদ্ধতি সম্পর্কে সহভাগিতার মাধ্যমে ১ম দিনের অধিবেশন শেষ করা হয়।

প্রশিক্ষণের ২য় দিন: প্রতিবন্ধীতা বিষয়ে প্রথম অধিবেশনে আলোচনা করেন নেত্রকোনার রাজুর বাজার কলিজিয়েটস্কুল এর অধ্যক্ষ গোলাম মোস্তফা। তিনি প্রতিবন্ধী কি? কেন হয়? এবং কিভাবে সেটি মোকাবিলা করা যায়? সে বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেন। তিনি প্রতিবন্ধীতার উপর রাষ্ট্র কর্তৃক যেসব আইন ও নীতিমালা আছে সেটি নিয়েও বিস্তারিত আলোচনা করেন।
দ্বিতীয় অধিবেশনে মিসেস শিল্পী বিশ্বাস প্রতিবন্ধীতা বিষয়ে আলোচনা করেন। সেই সাথে তিনি কিছু থেরাপি করে দেখান। যে থেরাপির মাধ্যমে কিছু কিছু শারিরিক সমস্যা গুলো দূর করা সম্ভব বলে তিনি জানান। এছাড়াও তিনি স্বাবলম্বি উন্নয়ন সমিতির প্রতিবন্ধিতা বিষয়ে যেসব কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে সেটি নিয়েও আংশিক আলোচনা করেন।

প্রশিক্ষণের ৩য় দিন:  প্রশিক্ষণের ৩য় দিনে সৈয়দ আলী বিশ্বাস এর সঞ্চালনায় মার্চ থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত প্রতিবন্ধিতা বিষয়ে যেসব কর্মসূচী বাস্তবায়ন হয়েছে তা উপস্থাপন করা হয়। ৪ কর্মএলাকার বারসিক কর্মী গণ একে একে সম্পদিত কার্যক্রমগুলো উপস্থাপন করেন। তার পর সম্পদিত কর্মসূচী গুলোর বাস্তবায়ন প্রক্রিয়া বিষয়েও আলোচনা করা হয়।

তারপর দুদিন ধরে প্রবীণ ও প্রতিবন্ধিতা বিষয়ে প্রশিক্ষণ গ্রহনের আলোকে প্রতিটি কর্মএলাকার জন্য কর্মপরিকল্পনা করা হয় দলীয় অংশগ্রহণের মাধ্যমে। যেখানে বারসিক এর ৪ কর্মএলাকা ৪টি ও যুবদের জন্যও কর্মপরিকল্পনা তৈরী করা হয়। পরিকল্পনা তৈরীর পর প্রতিটি কর্মএলাকার পরিকল্পনা একে একে উপস্থাপন করা হয়। পরিকল্পনাটি আগামী জুন ২০১৯ সালের মধ্যে বাস্তবায়নের সময় সীমা দেওয়া হয়। পরিশেষে ৩ প্রশিক্ষণটি মূল্যায়নের জন্য একটি ফরম দেওয়া হয়। যা অংশগ্রহনকারী সবাই পূরণ করে মতামত পেশ করেন।

বারসিক নেত্রকোনা রিসোর্স সেন্টার এর এলাকা সময়ন্বয়কারী ওহিদুর রহমান এর সমাপনি বক্তব্যের মাধ্যমে ৩দিনের প্রশিক্ষণ কর্মশালার সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়।

happy wheels 2

Comments

%d bloggers like this: