সাম্প্রতিক পোস্ট

করোনা যোদ্ধা বৃক্ষপ্রেমিক ও মানবদরদী আ. হামিদ

নেত্রকোনা থেকে অহিদুর রহমান

মানবজাতিকে টিকিয়ে রেখেছে এই প্রকৃতি। প্রযুক্তি আর বিজ্ঞান যখন অসহায় হয়- তখন প্রকৃতি ও মানুষের লোকায়ত জ্ঞান, ভাবনা এবং অভিজ্ঞতাই রক্ষা করেছে এই জাতিকে। নেত্রকোনা শহরে পরিবেশ রক্ষা, মানবসেবা, ঔষধিগাছ বিতরণ ও রক্ষায় যে প্রবীণ নাগরিক কাজ করে যাচ্ছেন সেই মানুষটিকে করোনা প্রতিরোধ ও সচেতনতা তৈরীতে বারসিকের পক্ষ থেকে ফ্যাস্টুন, ব্যানার ও হ্যান্ডমাইক প্রদান করা হয়। যার ফলে তিনি মানুষকে সচেতনতায় গুরুত্বপুর্ণ ভুমিকা রাখছেন। সকাল থেকে সন্ধ্যে পর্যন্ত নিজেকে নিরাপদ রেখে স্বাস্থ্যবিধি ও সরকারী নির্দেশনা মেনে কাজ করে যাচ্ছেন। তিনি রিক্সাচালক, অটোচালক, ভ্যানচালক, রিক্সা, অটো ও ভ্যানের হ্যান্ডেল হ্যান্ড স্যানিটাইজার দিয়ে পরিস্কার করে দিচ্ছেন। তিনি সরকারী স্বেচ্ছাসেবকের পরিচয়পত্র নিয়ে নেত্রকোনার সকল উপজেলায় সচেতনতামুলক প্রচারাভিয়ান চালিয়েছেন। মসজিদের সামনে পানি সাবান রেখে মুসল্লিদেরকে হাত ধৌত করতে কাজ করছেন। তিনি নেত্রকোনা শহরের মোড়ে সাউন্ড বক্স লাগিয়ে প্রচার চালাচ্ছেন।

নিন্ম আয়ের মানুষের খাদ্য সহায়তার জন্য তিনি গড়ে তুলেছেন জরুরি খাদ্য সহায়তা ফান্ড। প্রতিদিনই অভুক্ত ৫ জন মানুষের ঘরে খাদ্য পৌঁছে দিয়ে আসেন। জরুরি খাদ্য সহায়তা ফান্ড থেকে প্রতিদিন ৫০ জন মানুষের বাসায়, ঘরে, রাস্তায় ভিটামিন সি এর অভাব পুরণের জন্য তেতুল, লেবু, হরতকি, প্রভৃতি বিনামুল্যে বিতরণ করে যাচ্ছেন। তিনি বলেন, “প্রাকৃতিক খাদ্যই মানুষের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে দিবে।” আ. হামিদ কবিরাজ দীর্ঘ ৩৫ বছর ধরে নেত্রকোনা শহরে, আশেপাশের উপজেলায় দুর্যোগের সময় মানুষের সেবা ও সহযোগিতা করে যাচ্ছেন বিনা পারিশ্রমিকে। তিনি ঘুর্ণিঝড়, বিদ্যুৎ বিভ্রাট, ডেঙ্গুপরিস্থিতি, নিরাপদ সড়কের দাবী, মানবিক দেয়াল তৈরীতে প্রচার ও সহযোগিতা করে যাচ্ছেন নিস্বার্থভাবে। আমরা আব্দুল হামিদ কবিরাজের মতো ধনী মানুষেরা এগিয়ে এলে যেকোন প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবেলা করা সম্ভব হবে।

happy wheels 2

Comments

%d bloggers like this: