সাম্প্রতিক পোস্ট

প্রবীণ জনগোষ্ঠীদের স্বাস্থ্য সুরক্ষায় এগিয়ে আসি

শ্যামনগর, সাতক্ষীরা থেকে বিশ্বজিৎ মন্ডল

বারসিক’র উদ্যোগে গতকাল বুড়িগোয়ালিনী আশ্রয়ন প্রকল্পে করোনাকালীন সময়ে প্রবীণদের স্বাস্থ্য সুরুক্ষা বিষয়ক মত বিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। মতবিনিময় সভায় ৯নং বুড়িগোয়ালিনী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান, ইউপি সদস্য, বুড়িগোয়ালিনী আশ্রয়ন প্রকল্পের আদিবাসী, জেলে, কাহার পরিবারের প্রবীণ ব্যক্তি, নতুন প্রজন্ম, কৃষক-কৃষাণী ও বারসিক কর্মকর্তারা অংশগ্রহণ করেন।

বারসিক কর্মকর্তা মননজয় মন্ডলের সঞ্চালনায় সভায় বক্তব্য রাখেন, প্রবীণ শিক্ষক নগেন্দ্র নাথ মাঝী, কৌশল্যা মুন্ডা, সুপদ মন্ডল, তপন মন্ডল, বুড়িগোয়ালিনী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বাবু ভবতোস কুমার মন্ডল, ইউপি সদস্য জিএম আব্দুর রইফ ও বারসিক’র এলাকা সমন্বয়কারী পার্থ সারথী পাল।

সভায় বক্তারা জানান যে, বর্তমান সময়ে তারা কঠিন একটা সময় পার করছেন। মহামারী করোনা সারা বিশ্বে বিস্তার ঘটে চলেছে। সারা বিশ্বের মতো বাংলাদেশেও বিস্তার ঘটছে। যার জন্য প্রতিনিয়ত আতঙ্কের মধ্যে দিয়ে দিনপাতিত করতে হচ্ছে। এখানে সবচেয়ে বেশি ঝুঁকির মধ্যে কিন্তু প্রবীণ জনগোষ্ঠি তারা এই সময় যেমন বিভিন্ন বার্ধক্যজনিত সমস্যার মধ্যে থাকেন। বিশেষ করে যারা পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠী তারা সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা থেকে অনেক সময় বঞ্চিত থাকেন। তারা আরও জানান, করোনা মহামারীতে সব কিছু বন্ধ থাকায় তারা যেমন বিভিন্ন সমস্যার মধ্যে পড়েছিলো। তা থেকে আস্তে আস্তে বের হওয়ার চেষ্টা করছে। তাই তাকে সামনে রেখে তার সাথে মোকাবেলা করে টিকে থাকতে হবে। তার জন্য সব রকমের সতর্কতা মেনে চলতে হবে। বেশি বেশি জনসমাবেশে না যাওয়া, বাইরে বের হলে মুখে মাস্ক ব্যবহার করা, প্রতিনিয়ত সাবান দিয়ে হাত ধুতে হবে, ঘরবাড়ি, বাথরুম সব সময় পরিষ্কার রাখতে হবে।

তারা আরো বলেন যে, আমরা যেহেতু উপকূলীয় এলাকায় বাস করি। এখানে প্রতিনিয়ত বিভিন্ন ধরনরে দুর্যোগের সাথে মোকাবেলা করতে হয়। তাই হয়তো বা আমাদের সাহস একটু বেশি। এছাড়াও আমাদের এলাকায় বর্তমান সময় পর্যন্ত করোনা সংক্রমণের মাত্রা খুবি কম। হাতে গোনা কয়েকজন হতে পারে। করোনা দুর্যোগ ও প্রাকৃতিক দুর্যোগ থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য সচেতনতার কোন বিকল্প নেই। সব কিছূর আগে আমাদের খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিৎ করতে হবে। তার জন্য এলাকা সহনশীল চাষাবাদ করতে হবে। লবণের মধ্যে কোন ধান চাষ করা যায় কিনা তার জন্য চেষ্টা করা। সর্বশেষ সরকারি-বেসরকারি যৌথভাবে পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর পাশে থেকে করোনাকালীন সংকট মোকাবেলার উদ্যোগ গ্রহণ করার কথা জানান।

happy wheels 2

Comments

%d bloggers like this: