সাম্প্রতিক পোস্ট

পিছিয়ে পড়া মানুষের জীবনমান উন্নয়নে কাজ করতে চাই

মানিকগঞ্জ থেকে মো. নজরুল ইসলাম

‘নারী পুরুষে বৈষম্য হ্রাস করি, নারীবান্ধব সমাজ গড়ি’ এই স্লোগানকে সামনে রেখে বারসিক ও মানিকগঞ্জ কিশোরী উন্নয়ন সংস্থার যৌথ উদ্যোগে আজ (৫ আগস্ট) ‘নারীর টেকসই ক্ষমতায়নে সরকারি সেবার ভূমিকা’ শীর্ষক এক অনলাইন সংলাপ ও মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

অনলাইন সভায় কিশোরী উন্নয়ন সংস্থার সভাপতি দূর্গা রাণী মন্ডলের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন মানিকগঞ্জ জেলা মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর এর উপ পরিচালক নাসরীন সুলতানা, সিংগাইর উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা রওশন আরা, মানিকগঞ্জ সদর উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা লাভলী খানম, বারসিক আঞ্চলিক সমন্বয়কারী বিমল রায় প্রমুখ।

আলোচনায় প্রধান অতিথি নাসরীন সুলতানা বলেন, ‘আমরা মাতৃত্বকালীন ভাতা, সেলাই, ব্লক বাটিক প্রশিক্ষণ ছাড়াও কিশোরী ক্লাবের নিবন্ধন, তাদের শিক্ষা সংস্কৃতির উন্নয়নে কাজ করে থাকি। আমরা বাল্য বিয়ে, নারী নির্যাতন, যৌতুক, যৌন হয়রানি, বিবাহ বিচ্ছেদ, পরকিয়াসহ সামাজিক সহিংসতা প্রতিরোধে মাসে একবার ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে বিচার শালিস ছাড়াও আইনগত সহায়তা দিয়ে থাকি। প্রত্যেক উপজেলায় বিভিন্ন ট্রেডে ভাতাসহ সারাবছর প্রশিক্ষণ চলমান আছে।’

সমাজসেবা অফিসার লাভলী খানম বলেন, ‘সমাজসেবা অধিদপ্তর ৫০ এর অধিক বিষয়ের সেবা নিয়ে কাজ করে। বয়স্ক, বিধবা, প্রতিবন্ধী, মুক্তিযুদ্ধা ভাতা ছাড়াও প্রান্তিক পর্যায়ের পিছিয়ে মানুষের মধ্যে থেকে বড় ধরনের শারীরিক ব্যাধী যেমন- লিভার সিরোসিস, যক্ষা, মূত্র পাথরীসহ বিভিন্ন রোগের ক্ষেত্রে পঞ্চাশ হাজার থেকে এক লক্ষ টাকা পর্যন্ত সহায়তা প্রদান করা হয়। এছাড়াও নারী নির্যাতন ও আইনগত সহায়তায় আমরা কাজ করে থাকি। এনজিওরা আমাদের সহযোগী। বারসিক আমাদের খুবই কাছের। আমরা সরকারি বেসরকারি যৌথভাবে পিছিয়ে পড়া মানুষের জীবন মান উন্নয়নে কাজ করতে চাই।

happy wheels 2

Comments

%d bloggers like this: