সাম্প্রতিক পোস্ট

মাটির প্রাণ ভার্মি কম্পোস্ট

রাজশাহী থেকে ব্রজেন্দ্র নাথ
পবা উপজেলার বড়গাছি ইউনিয়নকে সবজি চাষের জন্য রাজশাহীর ‘প্রাণ’ বলা হয়। আর এই সবজি উৎপাদনের প্রাণ হচ্ছে তার মাটি। মাটির স্বাস্থ্য ভালো রাখে ভার্মি কম্পোস্ট। তাই মাটির গুণগতমান ভালো দরকার। এতে করে ফসল উৎপাদনও ভালো হয়। ফসল উৎপাদন বৃদ্ধি ও মাটির স্বাস্থ্যকে ভালো রাখার জন্য ‘বড়গাছি কৃষক ঐক্য সংগঠন’র উদ্যোগে সম্প্রতি ভার্মি কম্পোস্ট উৎপাদনকারী ও ব্যবহারকারী কৃষাণ কৃষাণীদের নিয়ে বড়গাছি বিএডিসি সাব সেন্টারে ‘ভার্মি কম্পোস্ট উৎপাদনকারী ও ব্যবহারকারী কৃষাণ কৃষাণীদের সমস্যাও সম্ভাবনা বিষয় নিয়ে কৃষি কর্মকর্তার সাথে মতবিনিময় অনুষ্ঠিত হয়েছে।


অনুষ্ঠানটিতে উপস্থিত ছিলেন এলাকার ভার্মি কম্পোস্ট উৎপাদনকারী ও ব্যবহারকারী কৃষাণ কৃষাণী ও বড়গাছি কৃষক ঐক্য সংগঠনের সভাপতি এবং চারবার সরকারি কৃষিপদক প্রাপ্ত মো: রহিমুদ্দিন সরকার(১১০) এবং বারসিক রাজশাহী রির্সোস সেন্টারের আঞ্চলিক সমন্বয়কারী মোঃ শহিদুল ইসলাম, উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা মোঃ জালাল উদ্দিন।


আলোচনায় উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা মো. জালাল উদ্দিন বলেন, ‘আমরা এই এলাকার মাটি পরীক্ষা করে দেখেছি। তাতে করে মাটির গুণগতমান ৫%। এই এলাকার জমিগুলোতে এতো বেশি পরিমাণে রাসায়নিক সার ব্যবহার করা হয়েছে তাতে করে মাটির অস্তিত্ব শেষ করে ফেলেছে। বাণিজ্যিকভাবে ভার্মি কম্পোস্ট উৎপাদন ও ব্যবহার বৃদ্ধি করতে হবে মাটির স্বাস্থ্যকে ভালো রাখার জন্য। এই সারের গুণগত মান এবং এর ব্যবহার সম্পর্কে কৃষককে জানাতে হবে এবং ব্যবহারে উদ্বুদ্ধ করতে হবে। ’ কৃষিপদক প্রাপ্ত কৃষক মো: রহিমুদ্দিন সরকার (১১০) বলেন, ‘কৃষকের প্রাণ হচ্ছে মাটি ও বীজ। আর মাটির প্রাণ হচ্ছে ভার্মি কম্পোস্ট। তাই আমরা সকলে নিজ নিজ জায়গা থেকে নিজে ভার্মি কম্পোস্ট ব্যবহার করবো এবং অন্য কৃষকদের ভার্মি কম্পোস্ট ব্যবহারে উদ্বুদ্ধ করে তুলবো। মাটি বাঁচলে আমরা শুধু বাঁচবো না, বাঁচবে সকল প্রাণ।’


বারসিক’র আঞ্চলিক সমন্বয়কারী মোঃ শহিদুল ইসলাম বলেন, ‘ভার্মি কম্পোস্ট বিক্রির জন্য প্রচারণার জায়গা বাড়াতে হবে। অন্যদিকে সরকারি ভার্মি কম্পোস্ট গবেষণাগার থেকে ভার্মি কম্পোস্টের গুণগতমান পরীক্ষা করে রেজাল্ট জানার পর বেশি বেশি প্রচার করলে তা মানুষ বেশি বিশ্বসী হবে এবং এর ব্যবহারের মাত্র বাড়বে।’ অন্যদিকে ভার্মি কম্পোস্ট ব্যবহারকারী মো. তাহসিন বলেন, ‘আমি এই বছর সবজি চাষে ভার্মি কম্পোস্ট ব্যবহার করেছি। তাতে করে আমার সবজিতে পোকার আক্রমণ কম হয়েছে এবং সবজির গুণগতমান ভালো মনে হয়েছে।’

happy wheels 2

Comments

%d bloggers like this: