সাম্প্রতিক পোস্ট

প্রকৃতিভিত্তিক উন্নয়নের উদ্যোগ নিচ্ছেন নির্বাচিত প্রতিনিধিগণ

রাজশাহী থেকে উত্তম ‍কুমার

বারসিক’র উদ্যোগে গতকাল তালান্দ ইউনিয়নে নয়টি ইউনিয়ন নির্বাচিত সদস্য, স্ট্যান্ডিং কমিটি, ও ইউনিয়নের সাংগঠনিক কিছু নেতৃবৃন্দকে নিয়ে ‘টেকসই উন্নয়নের জন্য প্রকৃতিভিত্তিক সমাধান শীর্ষক মত বিনিময় ও সংলাপের আয়োজন করা হয়েঠছ।

উক্ত সংলাপে প্রধান অতিথি হিসেবে ছিলেন তালান্দিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ নাজিম উদ্দিন বাবু (৬২)। প্রকৃতিভিত্তিক সমাধান টেকসই উন্নয়ন ও বারসিক এর কাজ বিষয়ে উপস্থাপনা করেন রাজশাহী বারসিক সমন্বয়কারী মোঃ শহিদুল ইসলাম ও অমৃত সরকার।

তালান্দ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ নাজিম উদ্দিন বাবু বলেন, ‘এরকম অনেক এনজিও সঙ্গে আমরা কাজ করি আমাদের মাসিক মিটিংও হয়‌‌। কিন্তু এ ধরনের টেকসই উন্নয়ন নিয়ে আমরা কখনো আগে এভাবে ভাবিনি।’ চেয়ারম্যান দশ বছর আগের খাবার গুণগতমান ও আজকের খাবার গুণগত মান সম্পর্কে আলোচনা করে বলেন, ‘বাজারকৃত যে সবজি যাবতীয় পুণ্য ক্রয় করে খাওয়া হয়। তার মধ্যে কিছু না কিছু ভেজাল আছে। নিজে বাড়িতে উৎপাদন করে যতটুকু খাবার খাওয়া যায়। সেটি খাঁটি খাবার।

উপস্থাপনায় বারসিক’র সমন্বয়কারী মোঃ শহিদুল ইসলাম বলেন, ‘প্রকৃতির ভারসাম্য বজায় রেখে যে উন্নয়ন হয় তাকে টিকসয় উন্নয়ন বলে। আমরা বাণিজ্যিকভাবে না হলেও বাড়ির প্রয়োজনীয় নিরাপদ সবজি উৎপাদন করতে পারি ।’ মোহর স্বপ্ন আসার আলো সংগঠনের সভাপতি মোঃ আলমগীর হোসেন (৩৯), টেকসই উন্নয়নের জন্য যেগুলো কর্ম করে যেমন, ভার্মি কম্পোস্ট, নিরাপদ সবজি উৎপাদন পদ্ধতি, ইত্যাদি বিষয়ে তার সংক্ষিপ্ত উপস্থাপনা করেন। সেলামপুর নারীর সংগঠনের সভাপতি মোসো: সুমি আক্তার (৩৫) নারীরা কিভাবে টেকসই উন্নয়নের জন্য ভূমিকা রাখেন তা নিয়ে আলোচনা করেন।

happy wheels 2

Comments

%d bloggers like this: