সাম্প্রতিক পোস্ট

ছোট ফুল নয়নতারা

ছোট ফুল নয়নতারা

সাতক্ষীরা থেকে এস.এম নাহিদ হাসান

ছোটবেলায় নানা বাড়ির ফুল বাগানে অনেক ফুল ফুটতে দেখতাম। কিন্তু একটি গাছের ফুল সারাবছরই ফুটতো। সে ফুলের নাম নয়নতারা। ছোটবেলা থেকে সাদা ও হালকা বেগুনী নয়নতারা ফুলের সাথে পরিচয়। ফুলগুলো দেখতে অনেক সুন্দর লাগতো। তাই বেছে বেছে এই সুন্দর ফুল দিয়েই খেলতাম। বড় হয়ে বুঝেছি গাছের ফুল গাছেই থাকা উচিত। বুঝতে শেখার পর থেকে গাছের ফুল ছিড়তে ইচ্ছা করে না। বাহারি রঙের ফুলের সৌন্দর্য আসলে উপভোগের বিষয়।

20180420_111317

নয়নতারা সুন্দর সবুজ চকচকে পাতাযুক্ত গুল্ম ধরনের গাছ। গাছটি প্রায় সারাবছরই ফুল দেয়। গাছটি লাগানো যায় সব ঋতুতে। নয়নতারার ফুল বিভিন্ন রঙের হয়ে থাকে। আমাদের এলাকায় সাদা, বেগুনি, গোলাপী নয়নতারা ফুল দেখা যায়। চকচকে সবুজ পাতার গাছে সাদা, বেগুনি,ও গোলাপী ফুল যেকোন মানুষকে আকৃষ্ট করে। অসাধারণ ছোট ফুলটি গন্ধহীন হলেও এই ফুলের পাঁচ পাপড়ির মাঝখানে একটি গাঢ় রঙের ফোঁটা অবাক করে। ফুলগুলো দেখতে অনেক সুন্দর। দেখলে চোখ জুড়িয়ে যায়।

অধিকংশ মানুষ নয়নতারা গাছকে অবহেলা করেন। আমাদের চারপাশে গাছটি নিজে জন্মে ও বড় হয়। অনেকে শখের বসে বাড়িতে এ গাছ লাগান। দেশের বিভিন্ন স্থানে এটি বিভিন্ন নামে পরিচিত। আমাদের সাতক্ষীরাতে গাছটি নয়নতারা নামে পরিচিত। অবশ্য সাতক্ষীরার কিছু এলাকায় পয়সা ফুল নামে পরিচিত। ফুলের পাঁপড়ি পাঁচটি হওয়ায় তকে পয়সা ফুল বলা হয়।

20180429_165759

নয়নতারা গাছ ৬০ থেকে ৮০ সেন্টিমিটার পর্যন্ত লম্বা হয়। নয়নতারার পাতা মসৃণ ও আয়তাকার হয়। পাতা পাঁচ থেকে সাত সেন্টিমিটার পর্যন্ত লম্বা হয়ে থাকে। গাছটির বংশবৃদ্ধি বীজের মাধ্যমে হয়। বীজ অনেক প্রাকৃতিক দুর্যোগ উপেক্ষা করেই নিজেকে টিকিয়ে রাখতে পারে। কলম করেও নয়নতারা লাগানো যায়। গাছটি গরু ছাগলে খায় না। বুনো জংলি এই গাছটি সহজে মরেও না এবং অনাদরে অবহেলায়ও এটি বাঁচতে পারে। গাছটির অনেক ঔষধি গুণ রয়েছে।

কবিরাজ নির্মল সরকার বলেন, “আমাদের চারপাশের যেসব ফুল, ফল গাছ রয়েছে তাতে প্রচুর পরিমাণ ওষুধি গুণ রয়েছে। তেমনি একটি গাছ নয়নতারা। এর ফুল ও গাছের পাতায় অনেক রোগ নিরাময়ের ক্ষমতা রয়েছে। কৃমি রোগের চিকিৎসায়, মেধা বৃদ্ধিতে, মধুমেহ, রক্ত প্রদরে, রক্তচাপ বৃদ্ধিতে, সন্ধিবাত, বহুমূত্রসহ নানা রোগের উপশমের জন্য নয়নতারার ফুল বা পাতা ব্যবহার করা হয়।” এছাড়া বোলতাসহ প্রভৃতির হুলের জ্বালায় বা কীট কামড়ে দ্রুত উপশম পেতে নয়নতারা ফুল বা পাতার রস অনেকে ব্যবহার করেন বলে তিনি জানান। তবে পূর্ব অভিজ্ঞতা ছাড়া ব্যবহার না করাই উত্তম।

20180429_165804

মুক্তকোষ উইকিপিডিয়াতে নয়নতারা ফুলের পরিচয় সম্পর্কে বলা হয়েছে, নয়নতারা একটি উদ্ভিদ, যা তার লালচে গোলাপি পাঁচ পাপড়ির ফুল গুলোর জন্য পরিচিত। এর বৈজ্ঞানিক নাম Catharanthus roseus, এটি Apocynaceae (dogbane, অথবা oleander পরিবার) পরিবারের একটি উদ্ভিদ। বিভিন্ন স্থানে বিভিন্ন নামেও পরিচিত, যেমন Cape periwinkle, Madagascar periwinkle, periwinkle, sadabahar, sadaphuli, sadasuhagi, sadsuhagan ইত্যাদি। এর আরেকটি প্রজাতি হলো Vinca rosea। জানা যায়, এর আদি উৎপত্তিস্থল মাদাগাস্কার। আদিনিবাস মাদাগাস্কার তবে বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান ও আফ্রিকা মহাদেশসহ আরও বেশ কয়েকটি দেশে এর দেখা পাওয়া যায়।

happy wheels 2

Comments

%d bloggers like this: