সাম্প্রতিক পোস্ট

পাঠ্যপুস্তকে সড়কে নিরাপদ চলাচল বিষয় অন্তর্ভুক্তির দাবি

নিজস্ব প্রতিনিধি,বরেন্দ্র অঞ্চল

“মানুষসহ সকল প্রাণের নিরাপত্তার নিশ্চিত হোক” প্রত্যয়ে গতকাল দুপুর ১২ ঘটিকায় রাজশাহীর পবা উপজেলার দর্শনপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ে নিরাপদ সড়ক ও যোগাযোগ বিষয়ে সচেতনতামূলক আলোচনা এবং মতবিনিময় অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত আলোচনায় প্রতিষ্ঠানটির প্রায় ২৫০ জন শিক্ষার্থীসহ সকল শিক্ষকগণ অংশগ্রহণ করেন। বেসরকারি উন্নয়ন গবেষণা প্রতিষ্ঠান বারসিক এবং স্কুলটির যৌথ উদ্যোগে উক্ত অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

BARCIK-Raj-5

সচেতনতামূলক আলোচনায় ছাত্রগণ নিরাপদ সড়ক নিশ্চিতে যাত্রী হিসেবে নিজেদের দায়িত্ব ও ভূমিকাগুলো তুলে ধরেন। একইসাথে ছাত্র শিক্ষগণসহ আগামীতে জীবন ও প্রাণের হানি ঠেকাতে এবং প্রজন্মের মধ্যে এই জ্ঞান এবং অভিজ্ঞতা ছড়িয়ে দিতে পাঠ্যপুস্তকে সড়কে নিরাপদ চলাচল বিষয়ে অন্তর্ভুক্তির দাবি জানান। সচেতনতামূলক আলোচনায় দশম শ্রেণীর ছাত্রী আমেনা খাতুন সরকারের প্রদেয় লিফলেট অনুযায়ী নিরাপদ সড়ক নিশ্চিতকরণে যাত্রী ও পথচারী হিসেবে নিজেদের দাযিত্বগুলো তুলে ধরেন সকলের মধ্যে।

যাত্রী হিসেবে আমাদের দায়িত্বগুলো হলো
১. চলন্ত গাড়িতে হাত, মাথা বা শরীরের কোন অংশ জানালা দিয়ে বের না করা ।
২. নির্ধারিত স্টপেজে গাড়িতে উঠানামা করা। চলন্ত গাড়িতে উঠানামা না করা।
৩. নির্ধারিত স্টপেজ ছাড়া অন্যকোন স্থানে গাড়ীর জন্যে অপেক্ষা না করা।
৪. পরিবহনে ধুমপান না করা।
৫.  চলন্ত গাড়িতে গেটে ঝুলে না থাকা
৬. চালককে দ্রুত গাড়ি চালাতে প্ররোচিত না করা; দ্রুত চলাচলে তাকে বারণ করা
৭. চালককে মোবাইল ফোনে কথা বলা থেকে বিরত থাকার অনুরোধ করা
৮. বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন ব্যক্তি, প্রবীণ, নারী, শিশু এবং অসুস্থ ব্যক্তিদের যানবহনে আসনের অগ্রাধিকার প্রদান করা; প্রয়োজনে নিজের আসনটি তাকে ছেড়ে দেয়া।
৯.  অনুমোদনহীন যানবহনে যেমন ইজিবাইক, ইঞ্জিন রিকসা, নছিমন, করিমন, ভটভটি ইত্যাদি আরোহণ না করা
১০. গাড়ি থেকে কফ, থুথু বা কোন কিছু বাইওে ছুঁড়ে না ফেলা
১১. ধারণ ক্ষমতার অতিরিক্ত যাত্রী হয়ে গাড়িতে না ওঠা
১২. বাসে/ট্রেনে অপরিচিত কারো কাছ থেকে কোনো কিছু না খাওযা
১৩. অনির্ধারিত মাইক্রোবাসে বা অন্য যানবাহনে শেয়ারে আরোহণ না করা
১৪. রাস্তায় মানুষ ছাড়া কোন প্রাণী দেখলে তার নিজস্ব পারাপারে যেতে সহায়তা করা; প্রাণীটিকে হত্যা না করা

BARCIK-Raj-2

পথচারী হিসেবে আমার দায়িত্ব
১. ট্রাফিক সিগন্যাল যথাযথভাবে মেনে চলা
২. রাস্তা পারাপারের সময় ডানে-বামে ভালোভাবে লক্ষ্য করে জেব্রা ক্রসিং/ফুট-ওভারব্রিজ/আন্ডারপাস দিয়ে রাস্তা পার হওয়া
৩. রাস্তায় চলার সময় বা পারাপারে মোবাইল ফোন ও হেডফোন ব্যবহার না করা
৪. ফুটপাথ দিয়ে চলাচল করা। ফুটপথ না থাকলে রাস্তার ডান পাশ দিয়ে হাঁটা
৫. রাস্তা অমনোযোগী না হওয়া। দ্রুতবেগে বা দৌড়ে রাস্তা পার না হওয়া
৬. লালবাতি জ্বলন্ত অবস্থায় রেলক্রসিং পার না হওয়া
৭. দুই যানবহনের মধ্যে দিয়ে পার না হওয়া; প্রয়োজনে কর্তব্যরত ট্রাফিক পুলিশের সাহায্য গ্রহণ করা
৮. অভিভাবক ও শিক্ষক হিসেবে আমার দায়িত্ব
৯. নিজ সন্তান ও শিক্ষার্থীদের ট্রাফিক আইন, ট্রাফিক সাইন ও রোড সাইন সম্পর্কে প্রাথমিক জ্ঞান প্রদান করা।
১০. প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের নিয়ে নিযমিত ট্রাফিক সচেতনতামূলক কর্মসূচি গ্রহণ করা
১১. “নিজের নিরাপত্তাসহ সকল প্রাণের নিরাপত্তা জরুরি” বিষয়টি ভালোভাবে ছাত্রদের বুঝিয়ে দেয়া।

BARCIK-Raj-1

আলোচনা ও মতবিনিময় সভাটি দর্শনপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক শেখ আঃ বারি’র সঞ্চালনায় নিরাপদ সড়ক ও সকল প্রাণের নিরাপত্তা বিধানে সচেতনতামূলক বক্তব্য দেন প্রধান শিক্ষক মো. শামসুল হক, বারসিক এর আঞ্চলিক সমন্বয়কারী শহিদুল ইসলাম, সহকারী শিক্ষক আকাশ আলীসহ প্রমুখ ব্যক্তিবর্গ। প্রধান শিক্ষক বলেন, “আমরা অচিরেই আগামী শিক্ষা বর্ষে নিরাপদ সড়ক এবং নিরাপদ চলাচল বিষয় পাঠ্যপুস্তকে অন্তর্ভুক্তির দাবি জানাচ্ছি। তিনি আরো বলেন, ‘একসময় ছোটকালে আমরা সড়কে নিরাপদ চলাচল বিষয়ে পাঠ্যপুস্তকে লেখাপড়া শিখতাম, কিন্তু সময়ের কারণে এখন কেন যেন সেই গুরুত্বপূর্ণ বিষয়টি কোন ক্লাসেই অন্তর্ভুক্ত নেই।

happy wheels 2

Comments

%d bloggers like this: