সাম্প্রতিক পোস্ট

যুবরাই পারবে টেকসই সামাজিক উন্নয়ন করতে

মানিকগঞ্জ থেকে মো. নজরুল ইসলাম

বিশ্ব যুব দিবসের প্রতিপাদ্য “Transforming Food Systems: Youth Innovation for Human and Planetary Health”. খাদ্য ব্যবস্থার রূপান্তর ও তরুণ সমাজের ভূমিকা বিষয়ক প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে বারসিক ও ইয়ুথ গ্রীন ক্লাবের যৌথ আয়োজনে আজ ৯ আগস্ট অনলাইন যুব সংলাপ ও মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

ইয়ুথ গ্রীন ক্লাবের জেলা সভাপতি মিজানুর রহমান হৃদয় এর সভাপতিত্বে ও সাংস্কৃতিক কর্মী শাকিল আহমেদ সনেট এর সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন মানিকগঞ্জ জেলা যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর এর উপপরিচালক অলকা প্রভা দে, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঘিওর উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান কাজী মাহেলা। স্বাগত বক্তব্য রাখেন বারসিক আঞ্চলিক সমন্বয়কারী বিমল রায়, ধারণাপত্র পাঠ করেন হরিরামপুর পদ্মাপাড়ের পাঠশালার সভাপতি মীর নাদিম।

প্রধান অতিথির আলোচনার আলোকে সাংগঠনিকভাবে সংহতি বক্তব্য রাখেন শহীদ রফিক যুব সেচ্ছাসেবক টিম এর সভাপতি আশীষ চন্দ্র সরকার, নিরাভরণ থিয়েটার এর সাধারণ সম্পাদক সাইফ সুজন,লেখক বিনয় কর্মকার,কৃষক গবেষক ফোরাম এর মাসুদ বিশ্বাস,কনকলতা কিশোরী ক্লাবের সভাপতি তানিয়া আক্তার, অঙ্কুর কিশোরী ক্লাবের সভাপতি দুর্গা রানী মন্ডল, আলোর পথ থেকে মাইকেল আকাশ, দিশারি সংগঠন থেকে হাসান শিকদার, হরিরামপুর যুব সেচ্ছাসেবক টিম থেকে লিমা আক্তার,ইয়ুথ এন্ডিং হাঙ্গার থেকে আব্দুস সালাম, বলধারা সমাজ কল্যাণ উন্নয়ন সংঘ থেকে মো. শামিম হোসেন প্রমুখ।

প্রধান অতিথি তার যুব উন্নয়নের সেবামূলক বিশাল কার্যক্রম যুবদের মাঝে তুলে ধরেন। হাঁস, মুরগি গবাদি পশুর প্রশিক্ষণ, সেলাই,কম্পিউটারসহ শতাধিক আয়মুলক কাজের বার্তা দিয়ে সবাইকে অনুপ্রাণিত করেন। বক্তারা আগামী ১২ আগষ্ট ২০২১ বিশ্ব যুব দিবস উদযাপন উপলক্ষে মানিকগঞ্জের প্রেক্ষিতে কিছু প্রস্তাবনামুলক বক্তৃতা তুলে ধরেন। প্রস্তাবনা হলো: গবেষণার মাধ্যমে যুবকদের সঠিক পরিসংখ্যান ও তালিকা করতে হবে, যুব সংশ্লিষ্ট পুরাতন ক্লাব/ সমিতি / সংগঠনগুলোকে তালিকা হালনাগাদ করতে হবে, নতুন সংগঠনগুলোর জন্য নিবন্ধন নীতিমালা সহজ করতে হবে। যুবকদের সেচ্ছাসেবী হিসেবে গড়ে তুলতে সামাজিক দায়বদ্ধতার আলোকে সাংগঠনিক কর্মশালা বৃদ্ধি ও জোরদার করতে হবে, কর্মমুখী ও বৃত্তিমূলক প্রশিক্ষণগুলোতে সংগঠনকে প্রাধান্য দিতে হবে। যুব সংগঠনগুলোকে বাৎসরিক অনুদানের ব্যবস্থা করতে হবে। যেমন- ক্রিকেট, ফুটবল, ভলিভলসহ খেলাধুলা সামগ্রী দিতে হবে। যুবকদের স্ব কর্মসংস্থান জোরদার করতে তাদেরকে কৃষিমুখী করতে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নিতে হবে। যুবকদেরকে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় তথা অসাম্প্রদায়িক চেতনার মান উন্নয়ন করতে পাঠচক্র, বই পড়াসহ সাংস্কৃতিক চর্চায় বেগবান করতে প্রয়োজনীয় উপকরণ সহায়তা করতে হবে ইত্যাদি।

happy wheels 2

Comments

%d bloggers like this: