সাম্প্রতিক পোস্ট

করোনা থেকে বাঁচতে স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণসহ ভ্যাকসিন গ্রহণের বিকল্প নেই

সিংগাইর মানিকগঞ্জ থেকে বিউটি সরকার, শারমীন আক্তার
বৈশ্বিক মহামারী করোনা থেকে বাঁচতে মাস্ক পরিধান ও স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করার পাশাপাশি ভ্যাকসিন গ্রহণের বিকল্প নেই। কিন্তু বাস্তবতা এটাই যে, গ্রামীণ জনগোষ্ঠির মধ্যে করোনা প্রতিরোধে স্বাস্থ্য অনুসরণ করার প্রবণতা অনেক কম। আবার করোনা মোকাবেলায় সরকার ঘোষিত বিনামূল্যে ভ্যাকসিন প্রদান কার্যক্রমে অংশগ্রহণের এক ধরনের ভয়, অসচেতনতা এবং অনিহা রয়েছে গ্রামীণ জনগোষ্ঠির মধ্যে। তারা মনে করছেন, এটা শহরের মানুষের অসুখ তাদের হবে, গ্রামের মানুষের হবেনা! আবার ভ্যাকসিন প্রদানে নিবন্ধন করাটাকে তারা ঝামেলা মনে করেন। যে কারণে গ্রামের জনগণ শহরের চেয়ে কোভিড -১৯ ভ্যাকসিন গ্রহণে পিছিয়ে আছেন।


এসব অসচেতন জনগোষ্ঠীর স্বাস্থ্য ঝুকির বিষয়টি বিবেচনা করে বায়রা কৃষক সংগঠন ও শহিদ রফিক যুব স্বেচ্ছাসেবক সংগঠনের উদ্যোগে সম্প্রতি বিনামূল্যে ভ্যাকসিন নিবন্ধন এবং মাস্ক বিতরন কার্যক্রমের আয়োজন করা হয়েছে। বারসিক’র সহায়তায় সিংগাইর উপজেলার বায়রা জজবাড়ি এলাকায় সকাল ১০ থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত ভ্যাকসিন নিবন্ধন চলাকালিন সময়ে বায়রা, নয়াবাড়ী, নয়াবাড়ী আর্দশগ্রাম এবং গাড়াদিয়া গ্রামের প্রায় ১৫০ জনের নিবন্ধন সম্পন্ন করা হয়।


কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন নিবন্ধন কার্যক্রমে ছাত্রযুব ও কৃষক সংগঠনের পাশাপাশি বারসিকের পক্ষ থেকে প্রোগ্রাম অফিসার শিমুল বিশ্বাস ও মাঠ সহায়ক শারমীন আক্তার সহযোগিতা করেন।


এ প্রসংগে বায়রা একতা কৃষক সংগঠনের সহ-সভাপতি নাসির উদ্দিন বলেন, ‘গ্রামের মানুষকে করোনার ভ্যাকসিন দিতে নিবন্ধনে উৎসাহিত করার জন্য এ রকম আয়োজন করা খুব প্রয়োজন। বারসিক কে ভ্যাকসিন নিবন্ধনে সহযোগিতা করার ধন্যবাদ জানাই।” নয়াবাড়ী আর্দশগ্রাম কৃষক সংগঠনের সদস্য নাসরিন বেগম বলেন, ‘আমরা গ্রামের মানুষ এতদিন দূরে গিয়ে নিবন্ধন করি নাই এখন কাছে পেয়েছি তাই নিবন্ধন করেছি।’


উল্লেখ্য যে, বারসিক সিংগাইর রির্সোস সেন্টার ৩ মাস যাবৎ সরাসরি প্রায় ৩০০ জনকে ভ্যাকসিন নিবন্ধন করে দিয়েছে।

happy wheels 2

Comments

%d bloggers like this: