সাম্প্রতিক পোস্ট

পরিবেশ রক্ষায় হাওর যুবকদের গল্প

নেত্রকোনা থেকে মো. অহিদুর রহমান

হাওরের প্রাকৃতিক পরিবেশ রক্ষায় নেত্রকোনা জেলার মদন উপজেলার মদন ও গোবিন্দশ্রী ইউনিয়নের ধান নদী হাওর যুব সংগঠন ও উচিতপুর সমাজকল্যাণ যুব সংগঠন গত তিনবছর ধরে উচিতপুর, গোবিন্দশ্রী ও গুচ্ছগ্রামের মানুষের সাথে পরিবেশ রক্ষা, নদী রক্ষা, দুর্যোগ মোকাবেলা, বীজঘর স্থাপন, সাইনবোর্ড দিয়ে সচেতনতা তৈরি, তালবীজ রোপণ এবং প্রাণবৈচিত্র্য সংরক্ষণে কাজ করে যাচ্ছে।

২০২০ সালে উচিতপুর এলাকার সৌন্দর্য্য বৃদ্ধি, পরিবেশ রক্ষা ও দুর্যোগ মোকাবেলার জন্য মদন আব্দুল আজিজ খান সরকারি কলেজ প্রাঙ্গণ থেকে উচিতপুর ট্রলার ঘাট পর্যন্ত বিরল প্রজাতির কৃষ্ণচ‚ড়া, শিমুল, পলাশ, কাঞ্চন, কাঠবাদাম, জারুল ও বেলি ফুল গাছ লাগানো হয়েছিল সেই গাছগুলো আজ বড় হয়েছে। গ্রামের প্রতিটি পরিবারে যুবকদের উদ্যোগে ১০টি করে গাছ লাগানো হয়েছিল। বেরিবাঁধে ৩০০টি হিজল করচ গাছের চারা রোপণ করা হয়।

হাওরের মাঝে গুচ্ছ গ্রামের চার পাশে সবুজ বেস্টনী তৈরির জন্য ৫০০টি হিজল ও করচ এবং ৩০০০ মূর্তা বেতের চারা, বিন্নাচুবা এবং ঢুলকলমি রোপণ করে একটি বেষ্টুনী গড়ে তোলা হয়। তাছাড়া নিম, আম, জাম, কাঁঠাল, নারকেল গাছের চারা রোপণ করেন সে গাছ আজ গুচ্ছ গ্রামকে একটি সবুজ গ্রামে পরিণত করেছে।

এছাড়া যুবদের উদ্যোগে কুলিয়াটি ও উচিতপুর গ্রামে দুটি হাওর নার্সারি গড়ে তুলেছে যুবক মিজানুর রহমান ও দিনা আক্তার। সেই নার্সারিতে পানি সহনশীল গাছের চারাগুলো উৎপাদন করা হচ্ছে। ট্রলারঘাট, হাওর, নদীর পাড়, বাজারে ও জনসমাগম এলাকায় হাওরে কৃষি, পরিবেশ ও প্রাণবৈচিত্র্য সংরক্ষণে ৪০টি সচেতনতামুলক সাইনবোর্ড দিয়ে প্রকৃতির প্রতি ভালোবাসা মানুষকে সচেতন করেছে। হাওরে অঞ্চলে ২০০টি তালের চারা রোপণ করেছে দুর্যোগ মোকাবেলা করার জন্য।

তাদের এসব কাজ এ অঞ্চলের মানুষের কাছে প্রশংসিত হয়েছে। তাদের উদ্যোগ একটু একটু করে দৃশ্যমান হচ্ছে। গুচ্ছগ্রামের মানুষের কাছে যুবদের সহযোগিতা অনেক আশা জাগায়।

happy wheels 2

Comments

%d bloggers like this: