সাম্প্রতিক পোস্ট

প্রবীণদের সন্মান ও শ্রদ্ধা করলে তাদের শরীর ও মন ভালো থাকে

ঘিওর, মানিকগঞ্জ থেকে সুবীর কুমার সরকার
আমাদের দেশে মোট জনসংখ্যার একটি বিরাট অংশ প্রবীণ। প্রবীণরাই এই দেশ সমাজ তথা পরিবারের জন্য একসময় বিরাট অবদান রেখেছেন। বার্ধক্যের স্বাদ সবাইকে গ্রহণ করতে হবে একদিন।


প্রতিবছর আন্তর্জাতিক প্রবীণ দিবস পালিত হয়। এবছরও নানানভাবে এ দিবসটি পালিত হয়েছে। এ দিবস উপলক্ষে প্রবীণদের স্মরণ করতে ঘিওর উপজেলার বানিয়াজুরী ইউনিয়নের বহুজা প্রবীণ সংঘের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত হয়েছে ধূইয়া গান, যার মাধ্যমে প্রবীণদের অতীতের স্মৃতি এবং অবদান স্মরণ করা হয়।


গানের আসরে মো নাসির উদ্দিন(৭৭) বলেন, ‘আমরা কৃষকরা মিলে রাতে রাতে গান চর্চা করতাম। অনেক রাত্রিতে বৈঠকি গান গাইতে হতো। সেই গানগুলো দিন দিন কমে আসছে।’ মো. বাবর আলী (৭৮) বলেন, ‘আমাদের হারিয়ে যাওয়া স্মৃতি বারসিক আমদের মাঝে ফিরিয়ে এনে আমাদের মনের খোরাক ও বিনোদন ফিরিয়ে আনছে। আমদের দেখে আগামী দিনের নতুন প্রজন্ম বাংলার ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনতে সাংস্কৃতির চর্চা বাড়াবে। সাংস্কৃতিক চর্চার মানুষকে সকলে শ্রদ্ধা করতে জানে।’
প্রবীণ ব্যক্তি মো. নয়া মিয়া(৯২) বলেন, ‘আমি এখনো ভালো আছি। পরিবারের সকলকে প্রবীণদের সন্মান ও শ্রদ্ধা করলে প্রবীণদের শরীর ও মন ভালো থাকে।’ আব্দুল বারেক মিয়া (৭০) বলেন, ‘আমরা আজ প্রবীণ দিবসে গানের চর্চা করে তা চালিয়ে যাবো।’

happy wheels 2

Comments

%d bloggers like this: