সাম্প্রতিক পোস্ট

পরিচ্ছন্ন পরিবেশ সম্ভব সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টায়

ঢাকা থেকে ফেরদৌস আহমেদ উজ্জল
ইউএস এইড এবং এফসিডিও এর অর্থায়নে এবং কাউন্টার পার্ট ইন্টারন্যাশনাল এর কারিগরি সহযোগিতায় ‘ঢাকাকলিং’ কনসোর্টিয়াম প্রকল্পের আওতায় পালিত হলো কমিউনিটি পরিচ্ছন্নতা অভিযান। আজ ২৮ অক্টোবর ঢাকার বালুরমাঠ হাজারীবাগ এলাকায় পরিচ্ছন্নতা অভিযান, প্রতীকী র‌্যালি, ক্যাম্পেইন, পোস্টারিং, হাতের ছাপে পরিচ্ছন্নতার অঙ্গীকার ও আলোচনা সভার মধ্য দিয়ে দিবসটি উদযাপিত হয়।


বারসিকের উদ্যোগে এই কর্মসূচিতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পরিবেশ অধিদপ্তরের সাবেক অতিরিক্ত মহাপরিচালক ও পরিবেশ বাঁচাও আন্দোলন (পবা)’র সাধারণ সম্পাদক প্রকৌশলী মো: আব্দুস সোবহান, বিশেষ অতিথি বারসিকের পরিচালক পাভেল পার্থ, বিশিষ্ট সমাজ সেবক হাজী মো: কালাম শেখ, উপস্থিত ছিলেন বারসিক’র প্রজেক্ট ম্যানেজার ফেরদৌস আহমেদ, ঢাকা কলিং এর মনিটরিং ও ডকুমেন্টশন অফিসার ফারহা হাদিয়া প্রমূখ। এছাড়াও আরও উপস্থিত ছিলেন বস্তিবাসী নেতা হোসনে আরা বেগম রাফেজা, হারুণ অর রশিদ, নাজমা বেগম, আসমা আক্তার, ইব্রাহীম রানা, আমীর আলী, ইয়ুথ লিডার বৈশাখী প্রমূখ।
আজ সকাল দশটায় বালুর মাঠের সামনে থেকে পরিচ্ছন্নতা অভিযান শুরু করেন র‌্যালিতে অংশগ্রহণকারী শতাধিক মানুষ। এসময় তারা বালুর মাঠ থেকে শাহজাহান মার্কেট পর্যন্ত রাস্তার দুই ধারে পরিচ্ছন্নতার কাজে হাত লাগান এবং কমিউনিটির মানুষদের সঠিক জায়গায় বর্জ্য ফেলার জন্য আহবান জানান। ইয়ুথ লিডারটা এসময় কমিউনিটিতে পরিচ্ছন্নতা বিভিন্ন শ্লোগান সম্বলিত পোষ্টার লাগিয়ে ক্যাম্পেইনে অংশগ্রহণ করেন। এসময় স্থানীয় পরিচ্ছন্নতা কর্মীরাও সংহতি জানিয়ে পরিচ্ছন্নতা কাজে অংশগ্রহণ করেন।


সিবিও নেতা আমীর হোসেনের সভাপতিত্বে ও ইয়ুথ লিডার বৈশাখীর সঞ্চালনায় বøক কারখানায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রকৌশলী মো: আব্দুস সোবহান বলেন, ‘আমরা আজকের এই অভিযান পরিচালনা এজন্যই করলাম যাতে আমরা নিজেরা সচেতন হই এবং অন্যদের সচেতন করি। আমাদের শক্তি অনেক, ছোট ছোট উদ্যোগ নিয়ে আমরা একটা সুস্থ পরিবেশ সৃষ্টি করতে পারি, আমরা আমাদের শহর ও দেশকে দূষণমুক্ত করতে পারি। কোন বর্জ্যই এখন আর বর্জ্য নয়, বর্জ্য হলো সম্পদ কিন্তু এই সম্পদ সম্পর্কে সঠিক ধারণা থাকতে হবে।’


পাভেল পার্থ বলেন, ‘আমরা আজকে র‌্যালি করলাম আর সাদা কাপড়ে হাতের ছাপ দিয়ে সংহতি জানালাম একটি সুস্থ সুন্দর পরিবেশের জন্য। সঠিক বর্জ্য ব্যবস্থাপনাই পারে আমাদের আরো স্বাবলম্বী করতে। বস্তির সকলকে আরও সচেতন হতে হবে পরিবেশের প্রশ্নে।’


হোসনে আরা বেগম রাফেজা বলেন, ‘আমরা সর্বদাই চেষ্টা করছি বস্তিবাসীদের সচেতন করতে। সিটি কর্পোরেশনের দায়িত্বপ্রাপ্ত ব্যক্তি ও স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলরদের আরও সক্রিয়ভাবে কমিউনিটির মানুষদের পাশে দাঁড়ানো দরকার।’
আলোচনা সভা থেকে বক্তারা আরও বলেন, বস্তিবাসীরা নানা ধরনের সংকটের মধ্যে দিনাতিপাত করেন আর বর্জ্য সংক্রান্ত সমস্যা হলো তার মধ্যে অন্যতম। আমাদের একটি সঠিক বর্জ্য ব্যবস্থাপনা নীতি দরকার যেখানে সকলের জন্য বর্জ্য ব্যবস্থাপনাটা সঠিক করা যায়। সকাল ১০ থেকে থেকে বেলা ১২.৩০ পর্যন্ত এই কর্মসূচিতে কয়েকশত মানুষ নানানভাবে যুক্ত হয়ে কর্মসূচিকে উৎসাহ প্রদান করেন। এসময় দোকানদার, হকার, বস্তিবাসী, তরুণ, যুব এই কর্মসূচির সাথে সংহতি জানান ও পরিচ্ছন্নতা অভিযানে অংশগ্রহণ করেন।

happy wheels 2

Comments

%d bloggers like this: