সাম্প্রতিক পোস্ট

প্রকৃতির ঐকতানে তারুণ্যের স্বপ্নগাঁথা

রাজশাহী থেকে তহুরা খাতুন লিলি
তারুণ্য স্বপ্ন দেখে পরিবেশের মধ্যে, প্রতিটি জীবনের মধ্যে দিয়ে, সকল প্রাণ প্রকৃতির সহাবস্থানের মধ্যে দিয়ে সে জীবন গড়ে তুলবে, বাঁচবে সবাইকে সাথে নিয়ে, একসাথে। সম্প্রতি বিশ^ পরিবশে দিবস ২০২২ উপলক্ষে বরেন্দ্র অঞ্চলের তরুণরা ‘পরিবেশ প্রাণ-প্রকৃতি ও তারুণ্য” শীর্ষক একটি অনলাইন আলোচনা ও মতবিনিময়ের আয়োজন করে।
উন্নয়ন সহযোগী গবেষণা প্রতিষ্ঠান বারসিক এবং এর সহযাত্রী গোটা বাংলাদেশের তরুণ সংগঠনের প্রতিনিধিগণ এতে অংশগ্রহণ করেন। উক্ত মতবিনিময় অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের বরেন্দ্র অঞ্চল ও কোস্টাল বেল্টসহ অন্যান্য অঞ্চলের এর প্রায় ৪৬টি তরুণ সংগঠনের তরুণরা তাঁদের পরিবেশ প্রাণ, প্রকৃতি সুরক্ষায় উদ্যোগ, কার্যক্রম, সফলতা এবং আগামীর স্বপ্নের কথাগুলো জানান।


বারসিক’র গবেষক ও আঞ্চলিক সমন্বয়কারি শহিদুল ইসলামের সঞ্চালনায় এতে বিশেষজ্ঞ এবং মূখ্য আলোচক হিসেবে প্রাণ প্রকৃতি ও আমাদের পরিবেশ বিষয়ে কথা বলেন রাজশাহী বিশ^বিদ্যালয়ের প্রাণীবিদ্যা বিভাগের চেয়ারম্যান ও অধ্যাপক ড. বিধান চন্দ্র দাস। পরিবেশ ও জননেতৃত্বে প্রৃকতির সুরক্ষা বিষয়ে কথা বলেন নৃবিজ্ঞানী ও বারসিক’র পরিচালক সৈয়দ আলী বিশ^াস, বরেন্দ্র অঞ্চলের প্রকৃতি এবং পরিবেশ সুরক্ষায় নানা দিক নিয়ে কথা বলেন সেভ দা ন্যাচার এন্ড লাইভ এর চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান। উক্ত আলোচনা ও মতবিনিময় অনুষ্ঠানের স্বাগত বক্তব্য রাখেন বরেন্দ্র অঞ্চল যুব সংগঠন ফোরামের আহবায়ক মো. রুবেল হোসেন মিন্টু।


আলোচনায় তরুণরা সরকারি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানকে প্রাণ, প্রকৃতি ও পরিবেশ সুরক্ষা বিষয়ক কর্মসূচি গ্রহণের দাবি জানান। একই সাথে তাঁরা পরিবেশ বিধ্বংসী কোন কার্যক্রম যাতে গ্রহণ না করা হয় তার দাবি জানান।


রাজশাহী বিশ^বিদ্যালয়ের প্রাণীবিদ্যা বিভাগের চেয়ারম্যান ও অধ্যাপক ড. বিধান চন্দ্র দাস বলেন, ‘তরুণরা আগের তুলনায় আরো অনেক বেশি পরিবেশবান্ধব এবং তারা এ বিষয়ে কাজ করে। সেক্ষেত্রে আমাদের যে প্রতিষ্ঠানগুলো আছে সেই দিকটি আরো বেশি নজর দিতে হবে। তরুণদের পরিবেশবান্ধব কাজগুলোতে আরো প্রোণোদোনা , উৎসাহ ও শিক্ষা প্রচারে কাজ করতে হবে।


সেভ দা ন্যাচার এন্ড লাইভ এর চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান বলেন, ‘আমাদেরকে আরো সংঘবদ্ধ হয়ে প্রকৃতি বিধ্বংসী কার্যক্রমে বিরুদ্ধে রুখে দাড়াতে হবে।’

happy wheels 2

Comments

%d bloggers like this: