সাম্প্রতিক পোস্ট

ইয়াসমিনের নারিকেল তেল

হরিরামপুর মানিকগঞ্জ থেকে সত্যরঞ্জন সাহা

গ্রাম বাংলার নারীরা অনাধিকাল থেকেই চুলের যত্নে নারিকেল তেল ব্যবহার করে আসছেন। কথায় আছে, নারিকেল তেলে মাথা ঠান্ডা রাখে, চুলের সৌন্দর্য্য বৃদ্ধি করে। চুল ঝকঝকে রাখায় নারিকেল তেল অত্যন্ত গুরুত্বপূণ ভুমিকা রাখে। নারীদের পাশাপাশি ছেলেরাও মাথায় নারিকেল তেল ব্যবহার করে থাকেন। তবে নারীদের চুল লম্বা রাখায় বেশি পরিমাণে নারিকেল তেল ব্যবহার করেন।

বাজারের নারিকেল তেল দীর্ঘদিন সংরক্ষণ করার জন্য বিভিন্ন ধরনের মেডিসিন ব্যবহার করা হয়। ফলে নারিকেল তেলের মান হ্রাস পায়। বাজারে ভালো মানের নারিকেল তেল পাওয়া গেলেও, মেডিসিন ছাড়া নারিকেল তেল পাওয়া যায় না। এইসব নারিকেল তেল দীর্ঘদিন মাথায় দিলে, চুল পড়ার সম্ভাবনা থাকে। মানিকগঞ্জের হরিরামপুর উপজেলার কৃষাণি ইয়াসমিন বেগম (৩৬) দীর্ঘদিন থেকেই নারিকেল তেল তৈরির কৌশল শিখেছেন। তিনি বলেন, “আমার শ্বাশুরী মৃত. তাহেরুনেচ্ছা বেগমের নিকট থেকে নারিকেল তেল তৈরির করা শিখি। আমার শ্বাশুরী নারিকেল দিয়ে তেল তৈরি করতেন। এই নারিকেল তেল মাথায় ব্যবহার করতেন। আবার বরণ ধান দিয়ে তৈরি করা মুড়ির মধ্যে নারিকেল দিয়ে মাখিয়ে পরিবারের সবাই মিলে খাইতাম। এখন আমাদের এলাকায় বরন ধান নেই, গ্রামের নারীরা মুড়িও খুব কম ভাজে।”

IMG_20180118_110014

ইয়াসমিনের মতে, নারিকেল তেল তৈরিতে গাছের পাকা নারিকেল ঘড়ে কমপক্ষে এক মাস রাখতে হবে। নারিকেলের ছোবা আলাদা করে নিতে হবে। নারিকেলের ছোবা জ্বালানি হিসাবে ব্যবহার ও বাজারে বিক্রি করা যায়। নারিকেলের ছোবা আলাদা করা হলে নারিকেলের গুড পাওয়া যায়। নারিকেলের গুড ভেঙে কুরানি দিয়ে নারিকেল সংগ্রহ করে নিতে হবে। এক কেজি কুরানিকৃত নারিকেলের সাথে আনুমানিক এক কেজি পানি মিশিয়ে নিতে হবে। এইবার নারিকেল হাতে চিবিয়ে দুধ আলাদা করে নিতে হবে। আবার নারিকেলের দুধ আলাদা করার পর, যে নারিকেলের ছাবা থাকে তা গুড় দিয়ে নারিকেলের নাড়– তৈরি করা যায়। ছাকনি দিয়ে ছেকে নারিকেলের দুধ পরিষ্কার করে নিতে হবে। পরিষ্কার কৃত দুধ হাড়িতে রেখে আগুন দিয়ে জ্বাল দিতে হবে ও নাড়তে হবে। আগুন দিয়ে জ্বালাতে জ্বালাতে পানি শেষ হয়ে যাবে, তেলের অংশ থেকে যাবে। প্রয়োজনে তেল সংগ্রহ করার সময় ছাকনি ছেকে নিতে হবে। তেল কাচের বোতলে রাখলে ২ বছরেও নষ্ট হবে না। সম্পূর্ণ প্রকৃতিগতভাবে তৈরি করা সুগন্ধি এই নারিকেল তেল মাথায় ব্যবহার ও খাওয়া যায়। এই নারিকেল তেল ব্যবহারে মাথা ঠান্ডা থাকে, চুল পড়েনা।

তিনি বলেন, “আমাদের পরিবারের সকল সদস্য আমার তৈরি করা নারিকেল তেল মাথায় ব্যবহার করে। আমাদের আত্মীয়স্বজনকে উপহার হিসাবে নারিকেল তেল দেই। আমরা কখনো বাজার থেকে নারিকেল তেল ক্রয় করি না। সম্পূর্ণ প্রকৃতিগতভাবে তৈরি করা সুগন্ধি এই নারিকেল তেল মাথায় ব্যবহারের ফলে মাথা ঠান্ডা রাখে, চুল পড়ে না, চুল সঠিকভাবে বাড়ে।”

happy wheels 2

Comments

%d bloggers like this: