সাম্প্রতিক পোস্ট

উন্মুক্ত জলাধার সংরক্ষণ করি, ভূগর্ভস্থ পানি সম্পদ রক্ষা করি

উন্মুক্ত জলাধার সংরক্ষণ করি, ভূগর্ভস্থ পানি সম্পদ রক্ষা করি

মানিকগঞ্জ থেকে রাশেদা আক্তার

গতকাল ২২ মার্চ বিশ্ব পানি দিবস। ‘ভূগর্ভস্থ পানি: অদৃশ্য সম্পদ, দৃশ্যমান প্রভাব’-এ প্রতিবাদ্য বিষয়কে সামনে রেখে স্যাক কার্যালয়, মানিকগঞ্জে বারসিক ও ধলেশ্বরী নদী বাঁচাও আন্দোলন কমিটি যৌথ আয়োজনে ধলেশ্বরী নদীসহ মানিকগঞ্জের সকল নদী দখল, দূষণমুক্ত ও সংরক্ষণ করে ব্যবহার উপযোগি করার দাবিতে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।


ধলেশ্বরী নদী বাঁচাও আন্দোলন কমিটির আহবায়ক এ্যাড: আজাহারুল ইসলাম আরজু এর সভাতিত্বে মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা শংকর ঘোষ, বীর মুক্তিযোদ্ধা শহীদুল ইসলাম ফারুক, বিশিষ্ট পরিবেশ বাদী সংগঠক এ্যাড: দীপক কুমার ঘোষ, ধলেশ্বরী নদী বাঁচাও আন্দোলন কমিটির যুগ্ম আহবায়ক ও ডেইলি স্টার মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি জাহাঙ্গীর আলম বিশ্বাস, সাবিস (সাংস্কৃতিক বিপ্লবী সংঘ) মানিকগঞ্জ এর সদস্য কামাল হোসেন কমল, বারসিক এর প্রোগ্রাম অফিসার রাশেদা আক্তারসহ অনেকেই।


আলোচনায় বিশিষ্ট পরিবেশবাদী সংগঠক এ্যাড: দীপক কুমার ঘোষ বলেন, ‘আমরা এর আগে মানিকগঞ্জ শহরের রিজার্ভ ট্র্যাঙ্ক পুকুর, সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের পুকুর ও সরকারি দেবেন্দ্র কলেজের পুকুর সংরক্ষণ ও ব্যবহার উপযোগি করার দাবিতে জেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের সাথে যোগাযোগ করেছিলাম। তিনি উদ্যোগ নিয়েছিলেন। কিন্তু যেভাবে উদ্যোগ নেওয়ার কথা ছিল সেভাবে উদ্যোগ না নেওয়ায় পুকুরটি আবার আগের মত অবস্থা হয়েছে। বিভিন্ন বাসাবাড়ির বর্জ্যও পুকুরে ফেলা হচ্ছে। এই পুকুর সংরক্ষণ ও ব্যবহার উপযোগি করার জন্য এখনই উদ্যোগ গ্রহণ করার জন্য আজ আমরা আবার স্মারকলিপি প্রদান করবো। আমরা চাই অতিসত্ত্বর এই পুকুর সংরক্ষণ করে ব্যবহার উপযোগি করার উদ্যোগ গ্রহণ করা হোক।”


ধলেশ্বরী নদী বাঁচাও আন্দোলন কমিটির আহবায়ক (সভাপতি) তার বক্তব্যে বলেন, ‘আমরা ধলেশ^রী নদী খননের জন্য আন্দোলন করেছি। সরকার ধলেশ^রী নদী খনন করেছে। সরকার নদীবান্ধব। মানিকগঞ্জ শহরের ভেতর অনেক পুকুর আছে যেগুলো ব্যবহার করা যায় না। এই সব পুকুরগুলো সংরক্ষণ করে ব্যবহারের উপযোগী করার জন্য যথাযথ কর্তৃপক্ষের সাথে বসতে হবে। তাদের সাথে আলোচনা করতে হবে। নদী, খাল-বিল, পুকুর, জলাশয় রক্ষায় উদ্যোগ নিতে হবে। যাতে মানুষ এর পানি ব্যবহার করতে পারে। তাহলে ভূগর্ভস্থ পানির চাপ অনেক কমবে।’
মতবিনিময় সভা শেষে মানিকগঞ্জ শহরের জেলা পরিষদের আওতাধীন রিজার্ভ ট্র্যাঙ্ক পুকুরের দূষণ ও অব্যবস্থাপনা রোধ করে সংরক্ষণ এবং ব্যবহার উপযোগি করার দাবিতে জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করা হয়। সেই সাথে মানিকগঞ্জ পৌরসভার বিভিন্ন পুকুর, জলাধার সংরক্ষণ ও ব্যবহার উপযোগি এবং আগামী বাজেটে বরাদ্দ রাখা, নিরাপদ পানি সরবরাহের ব্যবস্থা করার দাবিতে ও মানিকগঞ্জ পৌর মেয়র বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করা হয়। মেয়রের পক্ষে স্মারকলিপি গ্রহণ করেন পৌর সচিব বজলুর রহমান।


এর আগে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বারসিক’র আঞ্চলিক সমন্বয়কারী বিমল চন্দ্র রায় বলেন, ‘বারসিক প্রতিবছর গুরুত্বসহকারে বিশ্ব পানি দিবস পালন করে থাকে। মানিকগঞ্জ জেলার অন্যতম প্রধান নদী ধলেশ্বরী খননের দাবিতে ধলেশ্বরী নদী বাঁচাও আন্দোলন কমিটি গঠনের মধ্য দিয়ে কাজ শুরু করে।’


মতবিনিময় সভায় দিবসের প্রেক্ষাপট তুলে ধরে ধারণাপত্র পাঠ করেন বারসিক’র প্রোগ্রাম অফিসার রাশেদা আক্তার।

happy wheels 2

Comments

%d bloggers like this: