সাম্প্রতিক পোস্ট

প্রাণীসম্পদ আমাগো সম্পদ

সিংগাইর মানিকগঞ্জ থেকে বিউটি সরকার

সম্প্রতি সিংগাইর উপজেলার বায়রা ইউনিয়নের গাড়াদিয়া কৃষক সংগঠনের উদ্যোগে বারসিক’র সহযোগিতায় প্রাণীসম্পদের রোগ নিরাময় ও স্বাস্থ্য সুরক্ষা বিষয়ক প্রশিক্ষণের আয়োজন করা হয়েছে। উক্ত প্রশিক্ষণে গাড়াদিয়া কৃষক সংগঠনের সদস্যরা এবং গাড়াদিয়া গ্রামের ছাত্রীরা অংশগ্রহণ করেন।

প্রশিক্ষণে প্রশিক্ষক হিসাবে দায়িত্বপালন করেন বারসিক মানিকগঞ্জের কর্মসূচি কর্মকর্তা মো. মাসুদুর রহমান। প্রশিক্ষণে মো. মাসুদুর রহমান হাসঁ, মুরগি ও গবাদিপশুর বিভিন্ন রোগ ও এব প্রতিরোধ সর্ম্পকে অংশগ্রহণকারীদের ধারণা প্রদান করেন। প্রথমে মুরগির রোগ ও নিরাময় সর্ম্পকে ধারণা দিতে গিয়ে তিনি বলেন, ‘মুরগির ৩টি রোগ যেমন-রানীখেত, বসন্ত ও কলেরা। রানীখেতের জন্য রেনামাইসিন ট্যাবলেট গুড়া করে খাওয়ানো, পটাশ ভাতের সাথে মিশিয়ে খাওয়া এবং ভ্যাকসিন দিতে হয়।’ ছাগলের রোগ সর্ম্পকে মাসুদুর রহমান বলেন, ‘ছাগলের পি.পি.আর রোগ হলে জাইমোবেট স্যালাইন খাওয়াতে হবে।’


তিনি গরুর তরকা, ক্ষুরা এবং গলাফোলা রোগের সর্ম্পকে ধারণা প্রদান করেন এবং এর নিরাময় সর্ম্পকে ও ধারণা প্রদান করেন। তিনি তরকা রোগের জন্য ইনডেক্স ট্যাবলেট এবং ভিটামিন এ্যানোরা ট্যাবলেট প্রতিদিন একটা করে এক মাস খাওয়ানো এবং ক্ষুরারোগ হলে তারপিন তেল দিয়ে ধুয়ে ক্ষত স্থানে নেবানল ঔষধ দেওয়ার পরামর্শ দেন। এছাড়া গলাফোলা হলে টিউবয়েলের পানি গরম করে খাওয়ানোর পরামর্শ প্রদান করেন।

প্রশিক্ষণে বারসিক’র কর্মসূচি কর্মকর্তা শিমুল বিশ^াস বলেন, ‘বন্যা পরবর্তীতে গরুর বিভিন্ন রোগ হতে পারে। তাই পদক্ষেপ নিতে হবে তাহলে ঝুঁকি কম থাকবে।’ এছাড়া মাঠ থেকে ঘাস কেটে রৌদ্রে শুকিয়ে গরুকে খাওয়ানোর পরামর্শ দেন তিনি। তাছাড়া করোনাজনিত সমস্যা মোকাবেলায় স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করার উপর গুরুত্ব আরোপ করেন। প্রশিক্ষণে অনুভূতি প্রকাশ করতে গিয়ে কৃষাণী মনোয়ারা বেগম বলেন, ‘হাঁস, মুরগি, গরু ও ছাগল আমাগো সম্পদ। এ সম্পদকে আমরা সবাই মিলে যতœ ও লালন পালন করবো।’

happy wheels 2

Comments

%d bloggers like this: