সাম্প্রতিক পোস্ট

বন্ধু তুমি ভালো থেকো

মানিকগঞ্জ থেকে এম আর লিটন

বন্ধুত্বের ভালোবাসা ও বন্ধন অমোঘ । সত্যিকারের বন্ধু তার বন্ধুর জন্য জীবনটা উৎসর্গ করতে দ্বিধা বোধ করে না । বন্ধু সুখে-দুঃখে বা আপদে-বিপদে পাশে থাকে, অনেকে বলে বিপদবে বন্ধু চেনা যায় । বন্ধু যদি অনেক দূরে থাকে এর পরেও তার প্রতি ভালোবাসা একটুকু কমে যায় না । সে প্রর্থনা করে বন্ধু তুমি ভালো থেকো ।

প্রকৃত বন্ধুর হৃদয়ের গভীরতা অনেক বিশাল, যেখানে সাম্প্রদায়িকতা নেই, শ্রোণি বৈষম্য নেই, সাদা কালো বলে কোন বর্ণ নেই, যেখানে সবাই মানুষ, সবাই আসতে পারে । বন্ধুত্বে রাগ অভিমান থাকে, যা বন্ধুত্বকে অর্থবহ করে তুলে ।

বন্ধু দিবস ১কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর বন্ধুত্ব ও ভালোবাসা সম্পর্কে বলেছেন “বন্ধুত্ব আটপৌরে, ভালোবাসা পোশাকী । বন্ধুত্বের আটপৌরে কাপড়ের দুই-এক জায়গায় ছেঁড়া থাকিলেও চলে, ঈষৎ ময়লা হইলেও হানি নাই, হাঁটুর নীচে না র্পৌছিলেও পরিতে বারণ নাই । গায়ে দিয়া আরাম পাইলেই হইল । কিন্তু ভালোবাসার পোশাক একটু ছেঁড়া থাকিবে না, ময়লা হইবে না, পরিপাটি হইবে । নাড়াচাড়া টানাছেঁড়া তোলাপাড় সয়, কিন্তু ভালোবাসা তাহা সয় না ।”

অর্থ বা সম্পদের বিনিময়ে ভালো বন্ধু পাওয়া যায় না । আমরা জানি একজন ভালো বন্ধুর জন্য জীবনটাকে ধন্য মনে হয়। আবার একজন খারাপ বন্ধুর জন্য জীবনে চরম মূল্য দিতে হয় । আজকাল বিভিন্নভাবে বন্ধু-বান্ধব সাথে পরিচয় হয় স্কুল-কলজ, খেলার মাঠ, কর্মক্ষেত্র, মোবাইল, ফোন এবং ফেসবুক ইত্যাদি ।

এই বন্ধুত্বের বন্ধন আরও দৃঢ়, নিত্যনতুন ভালো বন্ধু তৈরি এবং বন্ধুত্বের আহ্বানকে সবার কাছে উন্মুক্ত করার উদ্দেশ্য নিয়ে সম্প্রতি “শুভ হোক বন্ধু দিবস! বন্ধুত্ব অটুট থাকুক !” স্লোগানকে ধারণ করে সামাজিক সংগঠন উত্তরণ পালন করেছে “বিশ্ব বন্ধুত্ব দিবস। এই উপলক্ষে এটি “আড্ডা” আয়োজন করা হয়। উত্তরণের সভাপতি বিমল রায় এর সভাপতিত্বে এ আড্ডায় আলোচনা করেন বিশিষ্ট সাংস্কৃতি ব্যক্তিত্ব এ্যাড. দীপক কুমার ঘোষ, অধ্যাপক উর্মিলা রায়, শিক্ষিকা লক্ষী চ্যাটার্জী, ডাঃ পংকজ মজুমদার, সমাজ সেবক ইকবাল খান, গবেষক বাহাউদ্দিন বাহার, সমাজ সেবক মো. রাজা, গবেষক মো. নজরুল ইসলাম ও শুকুফে ইসলাম প্রমুখ । উক্ত আড্ডায় কবিতা আবৃত্তি ও গান পরিবেশিত হয় । আড্ডায় আলোচকগণ মানুষে মানুষে, প্রাণ ও প্রকৃতির সাথে বন্ধুত্ব তৈরি এবং অটুট রাখার আহ্বান জানান। বন্ধুত্ব যদি অটুট থাকে তাহলে মানুষসহ অন্যান্য প্রাণ ও প্রকৃতির মধ্যে সহিংসতা কমে যাবে, সম্প্রীতি ও সৌহার্দ্য সম্পর্ক তৈরি হবে বলে তারা মনে করেন।

জানা যায়, প্রতিবছর আগস্ট মাসের প্রথম রবিবার সারাবিশ্ব বন্ধু দিবস পালন করা হয় । ১৯৩৫ সালে যুক্তরাষ্ট্রে সরকার বাহিনী এক ব্যাক্তিকে হত্যা করে । দিনটি ছিল আগস্ট মাসের প্রথম শনিবার । তার প্রতিবাদে পরের দিন নিহত ব্যক্তির এক বন্ধু আত্মহত্যা করেন । তারপর থেকে যুক্তরাষ্ট্রে সর্বপ্রথম বন্ধু দিবস পালন করা হয়। ১৯৯৭ সালে জাতিসংঘ বিশ্বময় বন্ধুত্বকে আলাদা অবস্থানে নিয়ে যায় । ২৭ এপ্রিল ২০১১ সালে জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে ঘোষিত হয় ৩০ জুলাই অফিসিয়ালি আন্তর্জাতিক বন্ধুত্ব দিবস । তবে ভারতসহ অনেক দেশ আগস্ট মাসের প্রথম রবিবারকে ‘বন্ধুত্ব দিবস’ হিসেবে মর্যাদা দেয়। এরপর থেকে আগস্ট মাসের প্রথম রবিবারটি বন্ধু দিবস হিসেবে পালিত হয়ে আসছে।

happy wheels 2
%d bloggers like this: