সাম্প্রতিক পোস্ট

জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবেলায় বেশি করে বৃক্ষরোপণ করতে হবে

ঢাকা থেকে সুদীপ্তা কর্মকার
বারসিক’র উদ্যোগে সম্প্রতি ‘জলবায়ু সঙ্কট মোকাবিলায় নগর কৃষিচর্চা এবং টিকে থাকার কৌশল’ শীর্ষক এক প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ঢাকার হাজারীবাগের হাজী আব্দুল আউয়াল বেসরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত প্রশিক্ষণ কর্মশালায় ২০জন নারী পুরুষ অংশগ্রহণ করেন। প্রশিক্ষণে প্রশিক্ষক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন বারসিক’র সমন্বয়ক জাহাঙ্গীর আলম ও কর্মসূচী কর্মকর্তা সুদিপ্তা কর্মকার। এছাড়া প্রশিক্ষণে অংশ নেন কমিউনিটি ফেসিলিটেটর পূজা মন্ডল ও রুনা আক্তার।

পরিচয় পর্বের মধ্য দিয়ে কর্মশালার শুরু হয়। কর্মশালায় আবহওয়া এবং জলবায়ু কি এবং জলবায়ু পরিবর্তন বলতে কি বোঝায় এই বিষয় নিয়ে জাহাঙ্গীর আলম আলোচনা করেন। জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে গ্রামে কি ধরনের সমস্যা হয় সে বিষয়ে উপস্থিত সদস্যরা বলেন, ‘আগের তুলনায় গরম অনেক বেড়ে গিয়েছে, ঠিক সময়ে বৃষ্টি হচ্ছে না আবার যখন বৃষ্টি হচ্ছে তখন অনেক বেশি হচ্ছে। ফলে বন্যার সৃষ্টি হচ্ছে। এতে করে ফসল উৎপাদনে সমস্যা বা উৎপাদিত ফসল নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। মানুষ কাজ হারাচ্ছে।’ প্রশিক্ষক জাহাঙ্গীর আলম বলেন, ‘জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে প্রাকৃতিক দুর্যোগ তথা বন্যা , নদীভাঙন, ঝড় ইত্যাদি বেড়ে যাচ্ছে। মানুষ ঘরবাড়ি হারিয়ে নিঃস্ব হয়ে নগরে চলে আসছে। শহরেও জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে অনেক সমস্যার তৈরি হচ্ছে। অত্যাধিক গরম, অতিবৃিষ্টতে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি ইত্যাদি। ফলে নি¤œআয়ের মানুষেরা খুব মানবেতর জীবনযাপন করছেন।’


অন্যদিকে সুদিপ্তা কর্মকার বলেন, ‘জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবেলায় বৃক্ষরোপণের কোন বিকল্প নেই। বেশি করে গাছ লাগালে গাছ থেকে বের হওয়া অক্সিজেন সেই এলাকার তাপমাত্রা কমাতে সাহায্য করে। তাই দেখা যায়, শহর থেকে গ্রামের তাপমাত্রা কম। তাই নগরকৃষির গুরুত্ব অপরিসীম। শহরে যেহেতু গাছ লাগানোর জন্য খোলা জায়গা পাওয়া যায়না তাই বাসার ছাদের উপরে, বারান্দায়, জানালার সামনে অথবা ঘরের সামনে অল্প জায়গায় টবে গাছ লাগানোর ব্যবস্থা করতে হবে। সবজি গাছ যে ধরনের গাছ লতানো হয়, মাচায় বা চালের উপরে উঠিয়ে দেয়া যায় সে ধরনের গাছ লাগালে ভালো হয়।’ তিনি আরও বলেন, ‘প্রথমত ঘরটি ঠান্ডা থাকে এবং পুষ্টির চাহিদা পূরণ হয়। এভাবে কৃষিকাজ করলে দেখা যায় বছরে একটি পরিবারের সবজির চাহিদা অনেককাংশে পূরণ হয় এবং অর্থনৈতিক সাশ্রয় হয়ে থাকে। করোনার সময়ে অনেকেই বাসায় লাগানো সবজি গাছ থেকে তার দৈনন্দিন পুষ্টির চাহিদা পূরণ করেছেন।’
উল্লেখ্য, বাংলাদেশ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আমাদের অব্যবহৃত প্রতি ইঞ্চি জায়গায় গাছ লাগাতে হবে। বারসিক নগরকৃষি সম্প্রসারনের জন্য শহরের নি¤œআয়ের মানুষদের মাঝে সবজি বীজ বিতরণ করে আসছে। সম্প্রতি ১০টি পরিবারকে ১০টি সবজি চারা গাছ এবং গাছ লাগানোর প্রয়োজনীয় উপকরণ যেমন মাটি, মাচা বানানোর বাঁশ, জৈব সার ইত্যাদি প্রদান করেছে। বারসিক চায় শহরের প্রতিটি ঘরে ঘরে গাছ লাগাতে মানুষ উৎসাহিত হোক ।

happy wheels 2

Comments

%d bloggers like this: