সাম্প্রতিক পোস্ট

ফণীর তাণ্ডবে বরেন্দ্রে মাটিতে লুটাল পাকা ধান

তানোর (রাজশাহী) থেকে মিজানুর রহমান

ঘূর্ণিঝড় ফণীর প্রভাবে রাজশাহীর তানোর উপজেলাসহ পুরো বরেন্দ্র অঞ্চলে গতকাল (শনিবার) সকাল থেকে কখনো মাঝারি আবার কখনো ভারী বৃষ্টিপাত ও ঝড়ো হাওয়া হয়েছে। তবে এতে তেমন কোনো ক্ষতি না হলেও বৃষ্টি ও দমকা ঝড়ো হাওয়ায় বোরো ধান মাটিতে পড়ে গেছে।

প্রায় এক সপ্তাহের বেশি সময় ধরে চলমান দাবদাহ কিছুটা হলেও প্রশমিত হয়। তবে বৃষ্টির কারণে অনেক এলাকায় বিদ্যুৎ না থাকায় দেখা দিয়েছে নতুন দুর্ভোগ। এরই মধ্যে গত শুক্রবার রাত থেকে শনিবার দুপুর পর্যন্ত উপজেলার বিভিন্ন এলাকা বিদ্যুৎহীন হয়ে পড়েছে। মাঝেমধ্যে বিদ্যুৎ এলেও তার স্থায়িত্ব হয় ১৫ থেকে ২৫ মিনিট। দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার কারণে বিদ্যুৎ লাইন বন্ধ থাকছে বলে বিদ্যুৎ বিভাগ জানায়।

Lonely ripe rice in Tanore land Photo 04.05.2019

তানোর পৌরশহরের চাপড়া এলাকার কৃষক সাইদুর রহমান বলেন, ‘আমার সাড়ে চার বিঘার জমির পাকা ধান মাঠে রয়েছে। এর মধ্যে দুই বিঘা জমির ধান কাটা হয়েছে। ফণীর প্রভাবে বৃষ্টি ও ঝোড়ো বাতাসের কারণে পাকা ধান মাটিতে শুয়ে পড়েছে।’

গোল্লাপাড়া এলাকার কৃষক ওহাব সরদার বলেন, ‘কৃষি বিভাগের সতর্কবার্তা পাওয়ার আট বিঘা জমির ধান কাটা হয়েছে। কিন্তু এখনো ১৪ বিঘা জমিতে পাকা ধান রয়েছে। বাতাস ও বৃষ্টির কারণে কাটা যায়নি। ঘূর্ণিঝড় ফণীর প্রভাবে ঝোড়ো বাতাস ও বৃষ্টির কারণে মাঠের পাকা ধান ক্ষতির আশঙ্কা করছেন কৃষকরা। এ ছাড়া শনিবার সকাল থেকে উপজেলা শহরে মানুষ ও যানবাহনের সংখ্যা কমে গেছে।’

উপজেলা কৃষি অফিসার শফিকুল ইসলাম জানান, ঘূর্ণিঝড় ফণীর প্রভাবে ঝোড়ো বাতাস ও বৃষ্টি হওয়ায় ধান মাটিতে লুটিয়ে পড়লেও ক্ষতি হবে না।

happy wheels 2

Comments

%d bloggers like this: