সাম্প্রতিক পোস্ট

খেলাধুলা মনে শক্তি ও সাহস সঞ্চার করে

হরিরামপুর, মানিকগঞ্জ থেকে মুকতার হোসেন
হরিরামপুর চরে কিশোরীদের নিয়ে সম্প্রতি খেলাধূলার আয়োজন করে হরিহরদিয়া যুবক টিম ও জয়পুর আদর্শ কিন্ডার গার্ডেন। খেলাধুলায় অংশগ্রহণকারীদের উৎসাহ উদ্দিপনা ও পুরস্কার দিয়ে সহযোগিতা করে বারসিক হরিরামপুর রিসোর্স সেন্টার। খেলাধুলায় অংশগ্রহন করেন জয়পুর, হরিহরদিয়া, নতুনহাট, সেলিমপুর গ্রামের ৫০জন কিশোরী ও নারী, যাদের বয়স ১২-১৫ বছরের মধ্যে। চরাঞ্চলে কিশোরী নারীদের খেলাধুলা ও বিনোদনের সুযোগ সুবিধা কম। স্কুল পর্যায়ে শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করলেও মূল ভূমিতে বসবাসকারী কিশোরী নারীদের চেয়ে চরাঞ্চলের নারীরা খেলাধূলা ও বিনোদন পর্যায়ে অনেক পিছিয়ে আছে। কিশোরী বয়সে মেয়েদের বিভিন্ন ধরনের শারীরিক সমস্যা ও ভিন্ন চিন্তা ভাবনার জন্ম নেয়। লেখাপড়ার পাশাপাশি খেলাধুলায় অংশগ্রহণের মাধ্যমে তাদের মনের দুর্বলতা ও দুচিন্তাকে দুর করে।


নারীর অধিকার ও সমতায়নে খেলার আয়োজন করা হয়। ছেলের পাশাপাশি কিশোরীদের ফুটবল খেলা, দৌড় প্রতিযোতিা, দড়ি খেলা অংশগ্রহণ করে কিশোরিগণ উৎসাহিত বোধ করে। ছেলেদের ফুটবল খেলা ও দৌড় প্রতিযোগিতা খেলা অনুষ্ঠিত হয়। লেছড়াগঞ্জ ইউনিয়নের জয়পুর আদর্শ কিন্ডার গার্টেন এর সভাপতি আব্দুর রাজ্জাক বলেন, ‘চরাঞ্চলে খেলাধুলার তেমন নির্ধারিত মাঠ নাই। নদী ভাঙ্গনের কারণে অনেক বিদ্যালয়ের স্থান পরিবর্তন হওয়ায় খেলার মাঠের কোন নির্দ্দিষ্ট জায়গা নাই। চরের পতিত জমিতে ফাকা জায়গায় খেলাধুলা করে থাকে। তার মধ্যে ছেলেরা খেলাধুলা করলেও মেয়েদের খেলাধুলার সুযোগ কম থাকে।’ তিনি আরও বলেন, ‘সমাজে নারীদের পিছিয়ে রাখতে চাই না। তারা যেন ছেলেদের মতো লেখাপড়া, খেলাধূলা, গান বাজনা আচার অনুষ্ঠান সকল জায়গা অংশগ্রহণ করতে পারে সেই কারণে চরের নারীদের নিয়ে খেলা ধুলার অয়োজন করা হয়। তাছাড়া খেলাধুলা মন-মানসিকতা ভালো রাখে এবং দেহ ও মনে শক্তি সঞ্চার করে।’


খেলা শুরু হওয়ার আগে আলোচনা সভা করা হয়। আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন সমাজ সেবক আব্দুর রাজ্জাক, শিক্ষক রাসেল, খাদিজা এবং বারসিক কর্মকর্তা সত্যরঞ্জন সাহা ও মুকতার হোসেন। আলোচনায় তারা বলেন, ‘লেখা পড়ার পাশাপাশি কিশোরিদের খেলা-ধুলার মাধ্যমে শরীর ও স্বাস্থ্য ভালো রাখা ও মনে উৎসাহ উদ্দীপনা সৃষ্টিতে সহায়ক হবে। লেখাপড়ার পাশাপাশি তারা খেলাধূলার মাধ্যমে তাদের সঠিক পথে এগিয়ে যেতে পারে। চরাঞ্চলে কিশোরিগণ যেন বিভিন্ন জায়গায় খেলাধুলায় অংশগ্রহণ করতে পারে, সে উদ্দিপনা সৃষ্টি হয়।’


তারা জানান, পুরুষের পাশাপাশি নারীরা সমানভাবে এগিয়ে যেতে দৃঢ় প্রতিজ্ঞ। চরের কিশোরীদের পিছিয়ে দেখার সময় নাই, ছেলেদের সাথে সমতালে এগিয়ে যেতে চান। চরাঞ্চলে যেন বাল্য বিবাহ রোধে ও নারীর প্রতি বৈষম্য রোধে কিশোরিদের খেলা-ধুলায় উদ্যোগ সৃষ্টি হয়। ঘরে বাইরে নারীকে যেন সমান মর্যাদা দেওয়া হয়।


বারসিক হরিরামপুর চরাঞ্চলে নারীদের সমান অধিকার প্রতিষ্ঠায় বিভিন্ন ধরনের কার্যক্রম বাস্তবায়ন করে যাচ্ছে। স্কুল পর্যায়ে নারী বৈষম্য প্রতিরোধ বিষয়ে আলোচনা সভা, গ্রাম পর্যায়ে কিশোরী নারীদের বয়োঃসন্ধিকাল বিষয়ে সচেতনতামূলক আলোচনা সভা করা, মাতৃস্বাস্থ্য সেবা, দুর্যোগে সময় নারী ও শিশুদের অগ্রাধিকার সচেতনতা সৃষ্টি হয়। তাছাড়াও চরাঞ্চলে জনসচেতনা তৈরিতে নারী দিবস পালন, চরে গর্ভবর্তী ও প্রসূতি মায়ের সেবা প্রদানের জন্য ধাত্রীমাতাদের প্রশিক্ষণ, জেন্ডার সমতা বিষয়ে বিষয়ে প্রশিক্ষণ কর্মশালা, নারী প্রতি বৈষম্য প্রতিরোধ, বাল্য বিয়ে প্রতিরোধে প্রচারণামূলক ক্যাম্পইন এবং বিলবোর্ড প্রদানের মাধ্যমে জন সচেতনতামূলক কার্যক্রম চলমান রয়েছে।

happy wheels 2

Comments

%d bloggers like this: