সাম্প্রতিক পোস্ট

জেন্ডার সাম্যতা ও বহুত্ববাদি সমাজ বিনির্মাণে যুব সমাজসহ সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে

মানিকগঞ্জ থেকে মো. নজরুল ইসলাম

মানিকগঞ্জ সিংগাইর অঞ্চল রাজধানীর অতি নিকটবর্তী হলেও এই অঞ্চলের অধিকাংশ মানুষ এখনো প্রবেশ করতে পারেনি উন্নয়নের মূলধারায়। চুইয়েপড়া উন্নয়নের ছোয়ায় প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর সংখ্যা সামান্য হ্রাস পেলেও সামাজিক সমস্যা তথা নারীর উপর ঘরে-বাইরে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন, যৌন হয়রানি, বাল্য বিবাহ, মাদক, প্রযুক্তি আসক্তি, যৌতুক প্রথা, পরকীয়ার মত জটিল সমস্যা আরো বৃদ্ধি পাচ্ছে। এই সমস্যাগুলোর সাথে সরাসরি জড়িত রয়েছে যুব সমাজের একটি অংশ। অন্যদিকে সমস্যাগুলো সমাধানে সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের পাশাপাশি যুব সমাজের একটি অংশও জড়িত রয়েছে।

IMG_20180621_110851
বেসরকারি উন্নয়ন গবেষণা প্রতিষ্ঠান বারসিক দীর্ঘদিন ধরে এই অঞ্চলের প্রান্তিক মানুষের মান উন্নয়ন, স্থায়িত্বশীল কৃষি ব্যবস্থা বির্নিমাণ, লোকায়ত সাংস্কৃতিক চর্চা ও জেন্ডার সাম্যতা নিশ্চিতের লক্ষ্যে কাজ করে আসছে। বারসিক বিশ্বাস করে সমাজে যদি সাংস্কৃতিক চর্চা বিরাজিত হয় এবং বহুত্ববাদি সমাজের বৈশিষ্ঠগুলো চর্চা করা হয় তাহলে নারীর বিরুদ্ধে সহিংসত্গুলো এত ব্যপক হারে সংগঠিত হত না। তাই নারী বান্ধব সমাজের জন্য গণতান্ত্রিক বহুত্ববাদি সাংস্কৃতিক চর্চা ও উন্নয়ন প্রকল্পের মাধ্যমে নারী, পুরুষ,তরুণ প্রজন্ম এবং সমাজের বিভিন্ন শ্রেণীর মানুষের সমন্বয়ে একটি সক্রিয় পরিবর্তন এজেন্ট তৈরি করা হবে। এই প্রেসার গ্রুপের প্রধান অনুঘটকের ভূমিকা পালন করবে উদ্যমী যুব শক্তি। তারা সমাজে গণতান্ত্রিক সাংস্কৃতিক চর্চা বিরাজ করানোর জন্য নিরলসভাবে কাজ করবে। আমরা বিশ্বাস করি যুব সমাজই পারে তাদের প্রচেষ্ঠার মাধ্যমে সমাজে নারীর ক্ষমতায়ন প্রতিষ্ঠা করতে।

IMG_20180917_165219
ইতিমধ্যে বারসিক একটি প্রকল্পের মাধ্যমে সিংগাইর অঞ্চলের সিংগাইর পৌরসভার ও বায়রা ইউনিয়নের ১৬টি গ্রাম, ১টি সরকারি কলেজ, ৫টি উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও ১৩টি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ৩টি ক্লাব, ২টি সামাজিক সংগঠন, ২টি সাংস্কৃতিক সংগঠন ও নামস্বর্বস্ব কয়েকটি নারী সংঠনের সাথে প্রাথমিকভাবে সম্পর্ক স্থাপন করেছে। বারসিক গুরুত্ব দিয়েছে যুব ও কিশোরী সংগঠনগুলোকে শক্তিশালী করতে যাতে তারা জেন্ডার সমতা ও বহুত্ববাদী সমাচ নির্মাণে সহায়কের ভূমিকা রাখতে পারে। তারই ধারাবাহিকতায় গত এপ্রিল থেকে অক্টোবর মাস পর্যন্ত বারসিক সিংগাইরে জেন্ডার, বৈচিত্র্য আন্তঃনির্ভরশীলতা ও বহুত্ববাদি সমাজ নিয়ে কর্মশালা, সভা, আলোচনা, প্রচার-প্রচারণা আয়োজন করেছে যুবশক্তিকে সম্পৃক্ত করে। এছাড়া বারসিক ভিন্ন ভিন্ন প্রেসার গ্রুপের সাথেও অভিন্ন বিষয়ে আলোচনা করে আসছে।

প্রচার-প্রচারণার ধারাবাহিকতায় গত ৩০ অক্টোবর সিংগাইর উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে সংলাপ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সিংগাইর উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আনোয়ারা খাতুন, সিংগাইর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রাহেলা রহমত উল্লাহ, জাতীয় মহিলা সংস্থার সিংগাইর উপজেলা চেয়ারম্যান অধ্যাপক শাহীন আক্তার, উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা বিলকিস নাহার, উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা শামছুন্নাহার বেগম, খেলাঘর আসর জেলা সভাপতি অধ্যাপক জগদীশ চন্দ্র মালো। তাঁরা বারসিক’র এই প্রচার-প্রচারণা তথা জেন্ডার সমতা ও বহুত্ববাদী সমাজ বিনির্মাণের ক্ষেত্রে তাদের স্ব স্ব অবস্থান থেকে সমর্থন ও সহযোগিতা করার আশ্বাস দেন।

IMG_20180808_153121
জেন্ডার সমতা ও বহুত্বাবাদী সমাজ নির্মাণে শুধুমাত্র বারসিক বা যুবশক্তি সক্রিয় হলে চলবে না। সমাজের সব স্তরের মানুষকেই এ বিষয়ে সচেতন হতে হবে। তরুণরা এক্ষেত্রে অগ্রণী ভূমিকা পালন করবে তবে তাদেরকে পেছন থেকে অভিভাবক, শিক্ষক, প্রশাসনের প্রশাসকসহ অন্যান্য পেশা ও শ্রেণীর মানুষকে সমর্থন করে যেতে হবে। জেন্ডার সমতা ও বহুত্ববাদী সমাজ বিনির্মাণের কাজে সক্রিয় থেকে তরুণরা সমাজে বাল্য বিয়ে, যৌতুক, নারী নির্যাতনসহ নানান সমস্যা সমাধানে ভূমিকা রাখবে। এতে করে সমাজ থেকে একদিন না একদিন বাল্য বিয়ে, যৌতুক, নারী নির্যাতনসহ অন্যান্য সমস্যা হ্রাস পাবে বলে আমরা মনে করি।

happy wheels 2

Comments

%d bloggers like this: