সাম্প্রতিক পোস্ট

জনীন্দ্র নকরেকের লেবু বাগান

কলমাকান্দা নেত্রকোনা থেকে মুন্না রংদী

কলমাকান্দ্ াউপজেলার লেঙ্গুরা ইউনিয়নের তারানগর গ্রামের কৃষক জনিন্দ্র নকরেক। বারসিক’র উদ্যোগে ২০১৩ সালে সিলেটে অভিজ্ঞতা বিনিময় সফরে গিয়ে তিনি সেখানকার লেবু চাষ দেখে উদ্বুদ্ধ হয়ে তিনি নিজ উদ্যোগে ৩০টি চারা নিয়ে আসেন নিজ বাড়িতে লেবুর বাগান করার জন্য।

69748773_676047689544025_1830448420842635264_n
যে জমিতে তিনি সব্জি চাষ করতেন এর চারপাশে তিনি রোপণ করেন ৩০টি লেবুর চারা। কিন্তু সব চারা জীবিত হয়নি। কয়েকটি মারা যাওয়ার পর যে কয়টি চারা বেঁচে গিয়ে ছিল। বেঁচে যাওয়া চারাগুলো তিনি যত্ন করেন এবং সে চারাগুলো দ্রুত বৃদ্ধি লাভ করে। এভাবে এ চারাগুলো থেকে এখন তিনি ফল সংগ্রহ করতে পারেন এবং নতুন চারা তৈরি করেন আরও বেশি করে লেবু চাষ করার জন্য।

70235150_476271632954058_287438959707947008_n
তিন বছর যাবৎ তিনি লেবু বিক্রি করছেন। কিন্তু এ বছর তার লেবু গাছে অনেক লেবু ধরেছে। এ বছর এ পর্যন্ত তিনি ৬ হাজার টাকার লেবু বিক্রি করেছেন। এছাড়া তার গাছে আর যেগুলো লেবু রয়েছে সেগুলোও বিক্রি করে আরো ৩ হাজার টাকা আয় করতে পারবেন বলে তিনি জানান। প্রতি হালি লেবু তিনি বিক্রি করেন ৪০ টাকা দরে। এই প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘লেবু চাষে বেশি লাভ। কারণ লেবুতে সার-বিষ দিয়ে হয় না। আর সারাবছর ফল বিক্রি করা যায়।’

জনীন্দ্র শুধু লেবু নয়; তিনি জৈব পদ্ধতিতে বস্তায় সব্জি চাষ করেও সফল হয়েছেন। বস্তায় তিনি বারোমাসি বেগুন, মরিচ, লাউ, শিম ইত্যাদি চাষ করেন। ফলে তাকে সারাবছর মরিচ কিনতে হয় না। তিনি বলেন, ‘বস্তা সব্জি চাষ করলে বর্ষা মৌসুমেও মরিচ গাছ ভালো থাকে। কোন পোকাড় আক্রমণ হয় না।’

happy wheels 2

Comments

%d bloggers like this: