সাম্প্রতিক পোস্ট

অধিকার অর্জনে দরকার একটি শক্তিশালী সংহতি মঞ্চ

সিংগাইর মানিকগঞ্জ থেকে শাহীনুর রহমান
সামাজিক অসংগতি, নানামূখী বৈষম্য নিরসন ও কৃষকের অধিকার আদায়ে শক্তিশালী সংহতি মঞ্চ নির্মাণে সিংগাইর উপজেলার বলধারা ইউনিয়নের কাস্তা বারোওয়ারি কৃষক কৃষাণি সংগঠনে সম্প্রতি সামাজিক সমাবেশীকরণ ও সংহতি মঞ্চের মাধ্যমে ক্ষমতায়ন বিষয়ক প্রশিক্ষণের আয়োজন করেছে বারসিক।
অভিজ্ঞ কৃষক ফনিন্দ্র সরকারের সভাপতিত্বে প্রশিক্ষণে সহায়ক হিসেবে প্রশিক্ষণ পরিচালনা করেন কর্মসূচি সমন্বয়ক শিমুল বিশ^াস, কর্মসূচি কর্মকর্তা শাহীনুর রহমান। প্রশিক্ষণে সহ-সহায়ক হিসেবে থাকেন বারসিক সিংগাইর রির্সোস সেন্টারে আয়োজিত সামাজিক সমাবেশন ও সংহতি মঞ্চেরে মাধ্যমে ক্ষমতায় প্রশিক্ষণে অংশগ্রহণকারী কৃষক প্রতিনিধি আব্দুল হালিম ও কৃষাণি লিপিকা সরকার এবং পর্যবেক্ষক হিসেবে থাকেন বারসিক আঞ্চলিক সমন্বয়কারি বিমল রায়। অনুষ্ঠানে সংগঠনের ২০ জন নারী পুরুষ অংশগগ্রহণ করেন।


দিনব্যাপি প্রশিক্ষণের মূল বিষয় ছিল কনফ্লিক ট্রি ও আ্যক্টরস ম্যাপিং। সহায়ক শিমূল বিশ^াস অংশগ্রহণকারীদের নিকট থেকে আলোচনা মাধ্যমে জলবায়ু পরিবর্তন, রাসায়নিক সার বিষের ব্যবহার, স্থানীয় বীজের সংকট, প্রযুক্তির অপব্যবহার, নদীনালা ভরাট, সরকারি সেবা বরাদ্দের ঘাটতি, প্রাণী সম্পদের রোগ বৃদ্ধি, সামাজিক নিরাপত্তা, খাস জায়গা দখল অপরিকল্পিত উন্নয়ন, স্থানীয় বীজের সমস্যা, বাল্য বিবাহ, নারী নির্যাতন, পারিবারিক অসেচতনতা নৈতিক শিক্ষার অভাব, বণ্টন ব্যবস্থায় অনিয়ম, বৃক্ষ নিধন, সরকারি মনিটরিং, মাদক, মাটির উর্বরতা, ইটের ভাটা বৃদ্ধি ইত্যাদি প্রধান সমস্যা চিহ্নিত করেন। সমস্যাগুলো চিহ্নিত করে ব্রাউন পেপারে একটি গাছ অংকন করে মূল, কান্ড, শাখা তিনটি ভাগে ভাগ করে জনগোষ্ঠীর সমস্যাগুলোকে বিশ্লেষণ করেন। সমস্যাগুলো চিহ্নিত করে সমস্যার কারণ ও জনগোষ্ঠীর জীবনে সসম্যার প্রভাব কি তা নিরুপন করা হয়। এছাড়া সমস্যা সমাধানে সমাধানে ও জনগোষ্ঠীর জীবন জীবিকার উন্নয়নে কোন কোন আ্যক্টরসগুলো ভূমিকা রাখতে পারে চিহ্নিত করা হয়।
চিহ্নিত আ্যক্টরসগুলোর মধ্যে ছিল উপজেলা নির্বাহী অফিসার, উপজেলা চেয়ারম্যন, ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মেম্বার, ইমাম, কাজি, প্রধান শিক্ষক, বাজার কমিটি, ব্যবসায়ী, উপজেলা কৃষি অফিস, ভূমি অফিস, প্রাণীসম্পদ অফিস, কমিউনিটি ক্লিনিক, জাতীয় মহিলা সংস্থা, গ্রামীণ মাতবর, সমাজপতি, যুব সমাজ, কৃষক যুব উন্নয়ন। পরবর্তীতে আ্যক্টরসগুলো ব্রাউন পেপারে চিহ্নিত করে আ্যক্টরসদের ক্ষমতায়ন ও জনগোষ্ঠীর সাথে তাদের সম্পর্কের মাত্রা বিশ্লেষণ করা হয়।


প্রশিক্ষণ মূল্যায়নে স্বপন কুমার রায় বলেন, ‘নিজেদের উন্নয়নে সমস্যা চিহ্নিত করা জরুরি। সমস্যা চিহ্নিত করতে পারলে সমাধান সহজ হয়। সমস্যার আলোকেই আমাদের কর্মপরিকল্পনা নির্ধারণ করতে হবে। আজেেকর প্রশিক্ষণ থেকেই আমাদের আগামির কর্মপরিকল্পনা তৈরি হবে।’ লিপিকা সরকার বলেন, ‘প্রশিক্ষণের মাধ্যমে জানতে পারলাম সমস্যা সমাধানে সরকারি বেসরকারি প্রতিষ্ঠান ও নাগরিক সমাজের মানুষ আলাদা আলাদা ভূমিকা পালন করে। আমাদের সমস্যা সমাধানে সকলের সাথে সম্পর্ক ও যোগাযোগের মাত্রা বৃদ্ধি করতে হবে।’ সভাপতির বক্তব্যে ফনিন্দ্র সরকার বলেন, ‘আমাদের সংগঠনের মূল কাজ হচ্ছে অধিকার অর্জন। আর অধিকার অর্জনে সাংগঠনিক শক্তি বৃদ্ধি করতে হবে। সমামনা ব্যক্তি, প্রতিষ্ঠান সংগঠনের মাধ্যমে একটি শক্তিশালী সংহতি মঞ্চ তৈরি করতে হবে। কারণ অধিকার অর্জনে দরকার একটি শক্তিশালী সংহতি মঞ্চ।’

happy wheels 2

Comments

%d bloggers like this: