সাম্প্রতিক পোস্ট

প্রাচীন বৃক্ষ রক্ষা করি

তানোর, রাজশাহী থেকে অমৃত সরকার

‘বড় গাছ নড়ে কম’ এটি বাংলার একটি প্রবাদ বাক্য। বড় গাছ কম নড়লেও পরিবেশ রক্ষাসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রেই এর গুরুত্ব অপরিসীম। বাংলাদেশের অনেক এলাকাতেই প্রাচীন অনেক বৃক্ষ দেখতে পাওয়া যায়। এর মধ্য আমরা অধিকাংশই দেখতে বা শুনতে পাই বট বৃক্ষ। কিন্তু বরেন্দ্র অঞ্চলে বট বৃক্ষের পাশাপাশি আরো একটি প্রাচীন বৃক্ষ দেখতে পাওয়া যায় তা হচ্ছে তেঁতুল বৃক্ষ।

এমনই একটি পাঁচশত বছরের প্রাচীন বৃক্ষ দেখতে পাওয়া যায় তানোর উপজেলার মোহর গ্রামে। এই বৃক্ষটি কালের সাক্ষি হয়ে আজও মানুষসহ বিভিন্ন পাখির উপকার করে আসছে নিরবে। নিরবে ভূমিকা পালন করছে প্রাণবৈচিত্র্য সুরক্ষায়।

IMG_20181026_112233

গবেষকরা ৫০ বছর বেঁচে থাকা একটি গাছের আর্থিক সুবিধা বের করেছেন। যা হল, গাছ বায়ুদূষণ থেকে পরিবেশকে রক্ষা করে ১০ লাখ টাকার, জীবন রক্ষাকারী অক্সিজেন দেয় ৫ লাখ টাকার, বৃষ্টির অনুকূল পরিবেশ সৃষ্টি করে বাঁচায় ৫ লাখ টাকা, মাটির ক্ষয়রোধ ও উর্বরতা শক্তি বৃদ্ধি করে বাঁচায় ৫ লাখ টাকা, বৃক্ষে বসবাসকারী প্রাণীদের খাদ্য ও আশ্রয় দিয়ে বাঁচায় ৫ লাখ টাকা, আসবাবপত্র, জ্বালানি কাঠ ও ফল সরবরাহ করে ৫ লাখ টাকার, বিভিন্ন জীবজন্তুর খাদ্য জোগান দিয়ে বাঁচায় আরও ৪০ হাজার টাকা। ৫০ বছর বেঁচে থাকা একটি বৃক্ষের আর্থিক সুবিধার মোট মূল্য দাঁড়ায় ৩৫ লাখ ৪০ হাজার টাকা। যেসব এলাকায় গাছ বেশি, সেখানে বন্যা, ঝড় তেমন ক্ষতি করতে পারে না। গাছপালা মায়ের আঁচলের মতো মানুষকে আগলে রেখে রক্ষা করে প্রাকৃতিক দুর্যোগ থেকে।

IMG_20181026_111515

তানোর উপজেলার মোহর গ্রামের প্রাচী তেঁতুল বৃক্ষটি এতদিন পরে ছিল অবহেলা অযত্নে। গ্রামের ‘স্বপ্ন আশার আলো’ যুব সংগঠনের সদস্যরা বৃক্ষটি রক্ষা এগিয়ে আসে। সংগঠনের সভাপতি মো. সবজুল হোসেন বলেন, ‘আমরা প্রথমে গ্রামের প্রবীণ মানুষ ও কর্তা ব্যক্তিদের সাথে আলোচনা করে গাছটি কখনও না কাটার দাবি জানাই। গাছটির উপকারিতা ও ঐতিহ্যর কথা বিবেচনা করে সবাই গাছটি না কাটার সিদ্ধান্ত নেন। এরপর আমরা সবাই মিলে গাছের গোড়ায় মাটি দিয়ে বাঁধাই করে দেই। পাশাপাশি নতুন প্রজন্মের মাঝে প্রাচীন বৃক্ষ রক্ষায় সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য গাছের বিভিন্ন উপকার নিয়ে বৃক্ষতলে একটি ক্যাম্পেইনের আয়োজন করি। সেখানে নবীন-প্রবীণ অনেক মানুষ বৃক্ষটি রক্ষায় শপথ গ্রহণ করেন।

IMG_20181026_111043

গাছের সংখ্যা কমে যাওয়ায় আবহাওয়ার আচরণ বদলে গেছে। গরমের সময় ঠান্ডা, ঠান্ডার সময় গরম পড়ে। কৃষি উৎপাদন হ্রাস পেয়েছে জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে। তাই পরিবেশ-প্রকৃতি বাঁচাতে গাছ লাগানোর ও প্রাচীন বা বড় বড় বৃক্ষগুলো রক্ষা করার বিকল্প নেই।

happy wheels 2

Comments

%d bloggers like this: