সাম্প্রতিক পোস্ট

ইউপি স্ট্যান্ডিং কমিটি আন্তরিক হলে অনেক কাজ করা সম্ভব

রাজশাহী থেকে মো. জাহিদ আলী

স্থানীয় সরকার ব্যবস্থার মাঠ পর্যায়ের প্রতিষ্ঠান ইউনিয়ন পরিষদ। ইউনিয়ন পরিষদকে শক্তিশালী ও কার্যকর করতে, ইউনিয়ন পরিষদ আইন ২০০৯-এর ৪৫ ধারায় মাধ্যমে ইউনিয়ন পরিষদকে কার্যকর করার জন্য ১৩টি স্ট্যান্ডিং কমিটি গঠনের কথা বলা হয়। আইনের একই ধারায় বলা হয়েছে, এই কমিটি ৫ থেকে ৭ সদস্যবিশিষ্ট হবে এবং কমিটি প্রয়োজনে সংশ্লিষ্ট বিষয়ে বিশেষজ্জ্ঞ কোনো একজন ব্যক্তিকে কমিটির কো-অপট সদস্য হিসেবে সংযুক্ত করতে পারবে। স্থায়ী কমিটির সভাপতি পরিষদের সদস্যগণের (ইউপি সদস্য) মধ্য থেকে নির্বাচিত হবেন এবং সংরক্ষিত আসন থেকে নির্বাচিত মহিলা সদস্যগণের মধ্য থেকে অনুন্য এক-তৃতীয়াংশ স্থায়ী কমিটির সভাপতি থাকবেন। প্রতিটি স্থায়ী কমিটি দুই মাস অন্তর সভা করবে। তবে প্রয়োজনে অতিরিক্ত সভা অনুষ্ঠান করতে পারবে। চেয়ারম্যান শুধু আইনশৃংখলা বিষয়ক কমিটির সভাপতি হবেন।

৩৩৩

 স্ট্যান্ডিং কমিটি গঠন, সভা অনুষ্ঠান, সুপারিশ প্রদানসহ অধিকাংশ ক্ষেত্রেই এই কমিটির কাজ করার বিধান থাকলেও স্টান্ডিং কমিটি নিয়মিত কাজ করে না এই রকম খরব প্রায় শোনা যায়। সেক্ষেত্রে ব্যতিক্রমধর্মী কাজ করলেন নওগাঁ জেলার মান্দা উপজেলার কুশুম্বা ইউনিয়ন পরিষদের শিক্ষা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনার স্ট্যা্ন্ডিং কমিটি।

 কুশুম্বা ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের নারী পুরুষের অংশগ্রহনে গঠিত দল বড়পই ওয়ার্ড ওয়াচ গ্রুপ তাদের নিয়মিত সভার সিদ্ধান্ত নেন যে, তারা তাদের গ্রামের সকল মানুষের রক্তের পরীক্ষা করবেন। কিন্তু এই কাজটি করতে বাধ সাধেন টাকা কোথায় পাওয়া যাবে। তারা নিজেরা সিদ্ধান্ত নেন টাকা দিবে ইউনিয়ন পরিষদ। যেই কথা সেই কাজ। তারা ইউনিয়ন পরিষদের শিক্ষা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনার স্ট্যা্ন্ডিং কমিটির সভাপতি শামীমা বেগম এর কাছে তাদের দাবি তুলে ধরেন। তাদের দাবির প্রেক্ষিতে শামীমা বেগম কমিটিতে আলোচনা করেন এবং বিষয়টি সবার নজর কাড়ে। আলোচনায় কমিটির সদস্যগণ সিদ্ধান্ত নেন যে তারা বড়পই গ্রামে ব্লাড গ্রুপিং এর কাজ করবে।

৪৪৪

বড়পই ওয়ার্ড ওয়াচ গ্রুপ বারসিক’র কাছে ব্লাড গ্রুপিং এর জন্য কারিগরী সহায়তা প্রদান করে এমন কাউকে তাদের সাথে যুক্ত করার জন্য সহযোগিতা চায়। বারসিক এক্ষেত্রে স্বেচ্ছায় রক্তদাতাদের সংগঠন বাঁধন এর সাথে তাদের পরিচয় করিয়ে দেয়। অবশেষে ২৯ অক্টোবর ২০১৬ বড়পই গ্রামের ৫০৩ জনের ব্লাড গ্রুপ পরীক্ষা করানো হয়। যার একটি কপি ইউনিয়ন পরিষদকে দেওয়া হয়। এই প্রসঙ্গে ব্লাড গ্রুপিং মিডিয়া পার্টনার হিসাবে সহযোগী মান্দা প্রেস ক্লাব সাধারণ সম্পাদক জিল্লুর রহমান বলেন, “ইউনিয়ন পরিষদের স্ট্যান্ডিং কমিটির এই রকম উদ্যোগ এর সহায়তা অন্যান্য ইউনিয়ন পরিষদকে ভালো কাজ করার অনুপ্রেরণা যোগাবে।”

৫৫৫

 কুশুম্বা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান নওেফেল আলী মন্ডল বলেন, “স্ট্যান্ডিং কমিটি আন্তরিক হলে অনেক কাজ করা সম্ভব। সেই সাথে গ্রামের যদি এই রকম গ্রুপ সহায়তা করেন তাহলে ইউনিয়ন পরিষদের অনেক কাজ করা সহজ হয়ে যায়।

 স্টান্ডিং কমিটির এই উদ্যোগি ইউনিয়নবাসীদের বড়ই উপকার করেছে। কারণ বড়পই গ্রামের মানুষের রক্তের প্রয়োজনের জীবন্ত ব্লাড ব্যাংকের ভুমিকা পালন করছেন স্ট্যান্ডিং কমিটির এই সহায়তা। অসুস্থ মানুষেরা কোন রক্তের প্রয়োজন হলে সহজে রক্ত সংগ্রহ করতে পারছেন। এভাবে দেখা যায়, গ্রামে কুদরত আলীর স্ত্রী জরাযূ ক্যান্সার এর অপারেশনে রক্তের প্রয়োজনে রক্তের চাহিদা পূরণ করে এই গ্রামের মানুষ। গ্রামের রাব্বানীর স্ত্রী নিলুফা বেগম এর দ্বিতীয়বার সিজার অপারেশনে রক্তের প্রয়োজনে যোগানদাতা হিসাবে কাজ করেন এই ব্লাড পরীক্ষার উদ্যোগ।

 বড়পই ওয়ার্ড ওয়াচ গ্রুপ সভাপতি মাসুমে রেজা জানান, গ্রামের সকল মানুষ জানেন তাদের রক্তের সমস্যা হলে আর বাইরে যেতে হবে না। তাদের গ্রাম থেকেই তারা রক্ত যোগার করতে পারবেন।

happy wheels 2

Comments

%d bloggers like this: