সাম্প্রতিক পোস্ট

প্রাচীন ও ঐতিহ্যবাহী বৃক্ষ সংরক্ষণ করুন

রাজশাহী থেকে মোঃ শামীউল আলীম শাওন

প্রাচীন ও ঐতিহ্যবাহী বৃক্ষগুলোকে নিধন নিষিদ্ধ করে সেগুলোকে সংরক্ষণের দাবি জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে স্মারকলিপি প্রদান করেছেন রাজশাহীর সচেতন ছয় নাগরিক। গত বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় রাজশাহীর জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে তারা স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।
স্মারকলিপি প্রদানকারীরা হলেন, মোঃ শামীউল আলীম শাওন, ফাতেমা আলী মেঘলা, মোঃ শাওন ইসলাম, শান্তা ইসলাম, রিনা আক্তার ও মোসাঃ সুকতারা। স্মারকলিপিতে তারা নিজেদের পরিচয় হিসেবে নাগরিক, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ লিখেছন এবং নিজেদের জাতীয় পরিচয়পত্র ও মোবাইল নাম্বার দিয়েছেন।


তিনদফা দাবি সম্বলিত স্বারকলিপিতে তারা বলেছেন, সবুজ, পরিচ্ছন্ন ও নির্মল বায়ুর স্বাস্থ্যকর শহর রাজশাহী। রাজশাহীর সৌন্দর্যের অন্যতম অনুষঙ্গ সবুজ বৃক্ষ আর পাখি। সবুজ ও নান্দনিক এ নগরীতে হাজারো পাখির বসবাস। যার অধিকাংশেরই আবাসস্থল নগরীর বুকে মাথা উচু করে থাকা বিভিন্ন প্রাচীন ও ঐতিহ্যবাহী বৃক্ষে। তবে নগরায়ণের বলি হচ্ছে এসব প্রাচীন ও ঐতিহ্যবাহী বৃক্ষগুলো। তাই এক রকম যুদ্ধ করেই বেঁচে থাকতে হচ্ছে পাখিদের।


স্মারকলিপিতে উল্লেখ করা হয়, ২০১৬ সালে জাতিসংঘের বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থার তথ্যে বিশ্বের সবচেয়ে দূষণমুক্ত শহর হিসেবে রাজশাহীর নাম উঠে আসে। গাছ কাটার মহোৎসবে সেখানকার পরিবেশে আজকাল নিঃশ্বাস নেওয়াও কষ্টকর হয়ে উঠেছে। শুধুমাত্র রাজশাহী তথা বরেন্দ্র অঞ্চল নয়, বরং দেশের বিভিন্ন স্থানে চলছে গাছ কাটার মহোৎসব, যা কোনভাবেই কাম্য নয়।
অথচ আজ বিভিন্ন অজুহাতে নির্বিচারে মানুষজন প্রাচীন ও ঐতিহ্যবাহীসহ সবধরণের গাছপালা কেটে ফেলা হয়েছে। ফলে প্রাণবৈচিত্র্য আজ হুমকির মুখে। প্রাণবৈচিত্র্য সুরক্ষায় এখনই এসব প্রাচীন ও ঐতিহ্যবাহী বৃক্ষ কাটা বন্ধের পাশাপাশি সেগুলোকে সংরক্ষণের উদ্যোগ নেওয়া আহবান জানানো হয় স্মারকলিপিতে।

happy wheels 2

Comments

%d bloggers like this: